PIB Headquarters

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত পিআইবি’র প্রাত্যহিক সংবাদ

Posted On: 04 JUL 2020 6:27PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ০৪ জুলাই, ২০২০

 

 

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ তথ্য; সুস্থতার সংখ্যা আক্রান্তের সংখ্যার তুলনায় লক্ষ ৬০ হাজার বেশি; সুস্থতার ৬০.৮১ শতাংশ; ৯৫ লক্ষেরও বেশি নমুনা পরীক্ষা
কোভিড-১৯ এ সুস্থতার সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। সুস্থতার সংখ্যা আক্রান্তের সংখ্যার তুলনায় বেড়ে হয়েছে ১ লক্ষ ৫৮ হাজার ৭৯৩। এর ফলে, সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৬০.৮১ শতাংশ। গত ২৪ ঘন্টায় ১৪ হাজার ৩৩৫ জন সুস্থ হয়েছেন। এর ফলে, সুস্থ হওয়া ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ লক্ষ ৯৪ হাজার ২২৬। বর্তমানে ২ লক্ষ ৩৫ হাজার ৪৩৩ জন রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। দেশে প্রতিদিন নমুনা পরীক্ষাগারের সংখ্যা বাড়ছে। এখনও পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষাগারের সংখ্যা ১ হাজার ৮৭। এর মধ্যে সরকারি পরীক্ষাগার ৭৮০টি এবং বেসরকারি পরীক্ষাগার ৩০৭টি। গত ২৪ ঘন্টায় নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ২ লক্ষ ৪২ হাজার ৩৮৩টি। এখনও পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা ৯৫ লক্ষ ৪০ হাজার ১৩২।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1636423 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

রাষ্ট্রপতি বলেছেন মহামারী যেভাবে বিশ্বজুড়ে মানুষের জীবন এবং অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিচ্ছে সেখানে বুদ্ধের বার্তা আশার আলোর মতো পথ দেখিয়েছে
রাষ্ট্রপতি শ্রী রামনাথ কোবিন্দ বলেছেন, মহামারী যেভাবে বিশ্বজুড়ে মানুষের জীবন এবং অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিচ্ছে সেখানে বুদ্ধের বার্তা আশার আলোর মতো পথ দেখিয়েছে। ভগবান বুদ্ধ লোভ, ঘৃণা, হিংসা, ঈর্ষা এবং অন্যান্য অনেক অনৈতিকতা ত্যাগ করে সুখ খুঁজে পাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। কিন্তু এই বার্তার বিপরীত পথে হেঁটে তীব্র লোভের শিকার হয়ে মানবজাতি একইভাবে পুরনো হিংসা এবং প্রকৃতির ধ্বংসের দিকে ঝুঁকেছে। আমরা সকলেই জানি যে এ মুহুর্তে করোনা ভাইরাসের তীব্রতা হ্রাস পেয়েছে, তবে আমাদের সামনে জলবায়ু পরিবর্তনের মতো আরও অনেক বড় সমস্যা রয়েছে।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1636335 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

ধর্ম চক্র দিবস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ
প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আজ ধর্ম চক্র দিবস উদযাপন উপলক্ষে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভাষণ দেন কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রকের অধীন আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ মহাসংঘ ৪ঠা জুলাই আষাঢ় পূর্ণিমা দিনটি ধর্ম চক্র দিবস হিসাবে উদযাপন করে থাকে। মনে করা হয়, আজকের এই দিনটিতে বারাণসীর কাছে সারনাথে গৌতম বুদ্ধ তাঁর প্রথম নৈতিক বক্তৃতা দিয়েছিলেন। সারা বিশ্বের বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা আজকের দিনটিকে ধর্ম চক্র প্রবর্তন অর্থাৎ ধর্মের চাকা ঘোরানো হিসাবে উদযাপন করে থাকেন।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1636320 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

ধর্ম চক্র দিবস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের মূল অংশ
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1636324 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

ধন্বন্তরী রথ : আমেদাবাদে কোভিড ছাড়া অন্যান্য স্বাস্থ্য পরিষেবা মানুষের দোরগোড়ায়
কোভিড-১৯ মহামারীর সময় কোভিড সংক্রান্ত স্বাস্থ্য পরিষেবা কে যখন সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে, ঠিক সেই সময় সমস্ত রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে কোভিড বহির্ভূত জরুরি চিকিৎসা পরিষেবা পৌঁছে দেওয়ার বিষয়েও সমান গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। আমেদাবাদ পুর নিগম শহরের মানুষের বাড়ির দোরগোড়ায় কোভিড বহির্ভূত স্বাস্থ্য পরিষেবা পৌঁছে দিতে এক অভিনব ও উদ্ভাবনী প্রয়াস গ্রহণ করেছে। এই প্রয়াসের অঙ্গ হিসাবে পুর নিগম ধন্বন্তরী রথ নামে ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা পরিষেবা যানের সূচনা করেছে। কোভিড-১৯ চিকিৎসার জন্য শহরের অধিকাংশ হাসপাতালকে কোভিড-১৯ হাসপাতালে রূপান্তরিত করার ফলে অন্যান্য উপসর্গ ও ব্যাধি রয়েছে, এমন রোগীদের যাতে চিকিৎসা পরিষেবা কোনও রকম সমস্যার সম্মুখীন না হতে হয়, তার জন্যই ভ্রাম্যমাণ এই চিকিৎসা যানের সূচনা করা হয়েছে।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1636359 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

মেঘালয়ে হাজার ৭০০ জন আশা কর্মী নজরদারি ব্যবস্থাকে সুদৃঢ় করছেন এবং সচেতনতার কাজে যুক্ত রয়েছেন
রাজ্যে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার প্রেক্ষিতে আশা কর্মীদের করোনা সংক্রমণ মোকাবিলা ও দমনে অবিচ্ছেদ্য অংশ করে তুলতে প্রশিক্ষিত করা হয়েছে। আশা কর্মীরা সংক্রমণ প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছেন। সর্বস্তরে প্রায় ৬ হাজার ৭০০ আশা কর্মী সংক্রমিত এলাকাগুলির পাশাপাশি, দূরবর্তী গ্রামগুলিতে গিয়েও সচেতনতার কাজ করছেন এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ওপর কড়া নজর রাখছেন।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1636402 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

আত্মনির্ভর ভারত ইনোভেশন চ্যালেঞ্জের সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী
সাধারণ মানুষ যে সমস্ত ভারতীয় মোবাইল অ্যাপগুলি ব্যবহার করছেন এবং যে সমস্ত দেশীয় অ্যাপের বিশ্ব মানের অ্যাপ হয়ে ওঠার সম্ভাবনা রয়েছে, সেগুলিকে চিহ্নিত করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আত্মনির্ভর ভারত ইনোভেশন চ্যালেঞ্জের সূচনা করেছেন। এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশ্ব মানের ভারতীয় অ্যাপ উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে প্রযুক্তি ও স্টার্ট আপ ক্ষেত্রের সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে বিপুল উৎসাহ রয়েছে। তাই, এ ধরনের অ্যাপগুলির উদ্ভাবন ও প্রসারে সাহায্য করার জন্য আত্মনির্ভর ভারত অ্যাপ ইনোভেশন চ্যালেঞ্জের সূচনা করা হয়। শ্রী মোদী কারিগরি ক্ষেত্রের সমস্ত ব্যক্তিকে এই অ্যাপ উদ্ভাবন চ্যালেঞ্জে অংশগ্রহণের আহ্বান জানান।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1636420 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

আত্মনির্ভর ভারত অ্যাপ ইনোভেশন চ্যালেঞ্জে অংশগ্রহণ করার জন্য টেক কম্যুনিটিকে আহ্বান জানালেন প্রধানমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আত্মনির্ভর ভারত অ্যাপ ইনোভেশন চ্যালেঞ্জে প্রযুক্তি জগতের ব্যক্তিদের সামিল হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়া লিঙ্কেডিন – এ প্রকাশিত এক পোস্টে প্রধানমন্ত্রী ভারতে এক প্রাণবন্ত প্রযুক্তি ও স্টার্ট আপ উপযোগী অনুকূল বাতাবরণের কথা উল্লেখ করে বলেন, সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে উদ্ভাবিত অ্যাপগুলির প্রচার ও প্রকাশে স্টার্ট আপ এবং প্রযুক্তি ক্ষেত্রের ব্যক্তিদের মধ্যে প্রবল উৎসাহ রয়েছে। দেশ যখন আত্মনির্ভর হয়ে ওঠার লক্ষ্যে অগ্রসর হচ্ছে, তখন সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে উদ্ভাবিত অ্যাপগুলিকে বিশ্ব মানে গড়ে তোলার জন্য এটাই উপযুক্ত সময়।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1636428 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল ভারত – আত্মনির্ভর ভারত গঠনের স্বপ্ন পূরণে যোগাযোগ তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক এবং নীতি আয়োগের পক্ষ থেকে ডিজিটাল ইন্ডিয়া আত্মনির্ভর ভারত অ্যাপ ইনোভেশন চ্যালেঞ্জের সূচনা
ভারতীয় মোবাইল অ্যাপগুলির স্বার্থে এক অনুকূল বাতাবরণ গড়ে তুলতে নীতি আয়োগের অটল ইনোভেশন মিশনের সঙ্গে সহযোগিতায় কেন্দ্রীয় তথ্য প্রযুক্তি ও যোগাযোগ মন্ত্রক ভারতীয় কারিগরি শিল্প সংস্থা ও স্টার্ট আপগুলিকে উদ্ভাবন ক্ষেত্রে সাহায্য করতে ডিজিটাল ইন্ডিয়া আত্মনির্ভর ভারত অ্যাপ ইনোভেশন চ্যালেঞ্জের সূচনা করেছে। আত্মনির্ভর ভারত গঠনে ডিজিটাল প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে ডিজিটাল ভারত গড়ে তোলার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন পূরণে এই উদ্যোগ সুদূরপ্রসারী ভূমিকা নেবে।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1636407 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী এনইইটি এবং জেইই মেইন তথা অ্যাডভান্স পরীক্ষার নতুন তারিখ ঘোষণা করলেন
কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী শ্রী রমেশ পোখরিয়াল ‘নিশাঙ্ক’ এনইইটি এবং জেইই মেইন তথা অ্যাডভান্স পরীক্ষার নতুন তারিখ ঘোষণা করেছেন। ছাত্রছাত্রীদের সুরক্ষা এবং গুণগত মানের শিক্ষার বিষয়টিকে বিবেচনায় রেখে জেইই এবং এনইইটি পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। মন্ত্রকের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, জেইই মেইন পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে ১-৬ই সেপ্টেম্বরের মধ্যে এবং জেইই অ্যাডভান্স পরীক্ষা নেওয়া হবে ২৭শে সেপ্টেম্বর। এনইইটি পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে আগামী ১৩ই সেপ্টেম্বর।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1636289 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

রপ্তানি ক্ষেত্রে মন্দা দ্রুত কাটিয়ে ওঠার ক্ষেত্রে রপ্তানিকারীদের প্রচেষ্টার প্রশংসা করলেন শ্রী পীযূষ গোয়েল
শ্রী গোয়েল গতকাল এক অনুষ্ঠানে বলেন, চলতি অর্থবর্ষের প্রথম দু’মাসে কোভিড-১৯ এর দরুণ রপ্তানি ক্ষেত্রে বিভিন্ন বাধা-বিপত্তি সত্ত্বেও, দেশে আনলক প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার পর থেকেই রপ্তানি হার ক্রমশ বাড়ছে। একই সঙ্গে, অর্থনৈতিক কর্মকান্ডেও গতি সঞ্চারিত হচ্ছে। স্বল্প সময়ের মধ্যে রপ্তানির মন্দা হার কাটিয়ে ওঠার জন্য শ্রী গোয়েল রপ্তানিকারীদের প্রচেষ্টার প্রশংসা করেন। শ্রী গোয়েল আরও বলেন, দ্বিতীয় পর্যায়ের আনলক কার্যকর হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে শীঘ্রই পরিস্থিতিতে আরও পরিবর্তন আসবে বলে মনে করা হচ্ছে।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1636250 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

কোভিড-১৯ মহামারীর সময় কৃষক কৃষি কাজের সহায়তার জন্য কৃষি কৃষক কল্যাণ দপ্তর তৃণমূল স্তরে একাধিক পদক্ষেপ নিয়েছে
কোভিড-১৯ মহামারীর সময় কৃষক ও কৃষি কাজের সহায়তার জন্য কৃষি ও কৃষক কল্যাণ দপ্তর তৃণমূল স্তর পর্যন্ত একাধিক পদক্ষপে নিয়েছে। খরিফ শস্যের চাষাবাদ এলাকায় লক্ষ্যণীয় অগ্রগতি ঘটেছে। গ্রীষ্মকালীন শস্য চাষাবাদের ক্ষেত্রে ধান চাষ হয়েছে ৬৮ লক্ষ হেক্টরেরও বেশি জমিতে। গত বছরের এই সময় চাষাবাদ এলাকার পরিমাণ ছিল ৪৯ লক্ষ ২৩ হাজার হেক্টর। একইভাবে, ডালশস্যের চাষাবাদের এলাকা গত বছরের ৯ লক্ষ ৪৬ হাজার হেক্টরের তুলনায় এ বছর বেড়ে হয়েছে ৩৬ লক্ষ ৮২ হাজার হেক্টর। তৈলবীজ চাষ এলাকার পরিমাণ গত বছরের ৩৩ লক্ষ ৬৬ হাজার হেক্টর থেকে এবার বেড়ে হয়েছে ১ কোটি ৯ লক্ষ হেক্টরেরও বেশি। আখ চাষের এলাকার পরিমাণ এবার বেড়ে হয়েছে প্রায় ৫০ লক্ষ ৬২ হাজার হেক্টর, যা গতবার ছিল ৪৯ লক্ষ ৮৬ হাজার হেক্টর।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1636289 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

কোভিড পরবর্তী সময়ে অর্থনীতির চালিকাশক্তি হয়ে ওঠার ক্ষেত্রে উত্তর-পূর্বাঞ্চল অগ্রণী ভূমিকা নেবে : জিতেন্দ্র সিং
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ডঃ জিতেন্দ্র সিং আজ বলেছেন, কোভিড পরবর্তী সময়ে বিপুল প্রাকৃতিক এবং দক্ষ মানবসম্পদকে কাজে লাগিয়ে উত্তর-পূর্বাঞ্চল অর্থনীতির চালিকাশক্তি হয়ে উঠে দেশকে নেতৃত্ব দেবে। তিনি আরও বলেন, উত্তর-পূর্বাঞ্চলে মহিলাদের ক্ষমতায়ন (মাতৃশক্তি) সব ধরনের অর্থনৈতিক কর্মকান্ডে অগ্রণী ভূমিকা নিচ্ছে। উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বিভিন্ন স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সঙ্গে ওয়েবইনারের মাধ্যমে এক মতবিনিময় অনুষ্ঠানে ডঃ সিং একথা বলেন।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1636426 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

 



পিআইবি’আঞ্চলিক কার্যালয় থেকে প্রাপ্ত তথ্য

মহারাষ্ট্র : রাজ্যে আরও ৬ হাজার ৩৬৪ জনের সংক্রমণের খবর মেলায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ লক্ষ ৯২ হাজার ৯৯০। এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৪ জন। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৮০ হাজার। থানে, কল্যাণ-দোমবিভিলি, মিরা-ভায়ান্দর কোভিড-১৯ সংক্রমণের নতুন উৎস স্থল হয়ে উঠেছে।

গুজরাট : রাজ্যে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ৬৮৭ জনের সংক্রমণের খবর মেলায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩৪ হাজার ৬৮৬। মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৯০৬ জনের। আমেদাবাদ পুর নিগমের স্বাস্থ্য বিভাগ সংক্রমিত এলাকাগুলিতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে সমীক্ষা এবং স্বাস্থ্য পরীক্ষার কাজ শুরু করেছে।

রাজস্থান : রাজ্যে আজ আরও ২০৪ জনের সংক্রমণের এবং ৩ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৯ হাজার ২৫৬। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৪৪৩ জনের।

মধ্যপ্রদেশ : রাজ্যে আরও ১৯১ জনের সংক্রমণের খবর মেলায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৪ হাজার ২৯৭। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ৬৫৫। এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১১ হাজার ৪৯ জন।

ছত্তিশগড় : রাজ্যে নতুন করে ৪০ জনের সংক্রমণের খবর মেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩ হাজার ৬৫। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬৩৭।

গোয়া : রাজ্যে শুক্রবার আরও ৯৫ জনের সংক্রমণের খবর মেলায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৪৮২। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭৩৪ জন।

চন্ডীগড় : এক গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত হিসাবে চন্ডীগড় প্রশাসন কেন্দ্রশাসিত সমস্ত সরকারি বিদ্যালয়ে নবম ও দশম শ্রেণীতে পঠন-পাঠনরত ছাত্রছাত্রীদের কোভিড-১৯ জনিত পরিস্থিতির ফলে পারিবারিক আর্থিক বিষয়টিকে বিবেচনায় রেখে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের প্রথম ছ’মাসের টিউশন ফি ও মাসিক তহবিল হিসাবে প্রদেয় শুল্ক প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর ফলে, প্রায় ২৪ হাজার ৫০০ জন ছাত্রছাত্রী ও তাদের পরিবার লাভবান হবে।

পাঞ্জাব : রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী আগামী সপ্তাহ থেকে কোভিড-১৯ র্যা পিড অ্যান্টিজেন নমুনা পরীক্ষার জন্য পরীক্ষামূলকভাবে কর্মসূচি গ্রহণে সবুজ সংকেত দিয়েছে।

হরিয়ানা : রাজ্যের উপ-মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, দেশ জুড়ে দ্বিতীয় পর্বের আনলকের সময় শিল্প ও বাণিজ্যিক কর্মকান্ড ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরবে।

হিমাচল প্রদেশ : রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ইন্সটিটিউট অফ হিমালয়ান বায়ো-রিসোর্স টেকনোলজি প্রতিষ্ঠানের ৩৮তম প্রতিষ্ঠা দিবস হিসাবে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বলেন, এই প্রতিষ্ঠানটি কোভিড-১৯ নমুনা পরীক্ষার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। এছাড়াও, এই প্রতিষ্ঠানটি অ্যালকোহল মুক্ত হ্যান্ড স্যানিটাইজার এবং ভেষজ সাবান উদ্ভাবন করেছে।

কেরল : রাজধানী তিরুবনন্তপুরমের আরও অনেক এলাকাকে সংক্রমিত হিসাবে ঘোষণা করার ব্যাপারে উচ্চ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। আজ নতুন দিল্লিতে আরও জন কেরলবাসীর মৃত্যু হয়েছে। রাজ্যে গতকাল আরও ২১১ জনের সংক্রমণের খবর মিলেছে। রাজ্যে ২ হাজার ৯৮ জন রোগীর চিকিৎসা চলছে। এছাড়াও, ১ লক্ষ ৭৭ হাজার মানুষকে নজরদারিতে রাখা হয়েছে।

তামিলনাডু : পন্ডিচেরীতে আরও ১ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে এবং নতুন করে ৮০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এর ফলে, কেন্দ্রশাসিত এই অঞ্চলে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৯০৪ এবং মৃত্যু হয়েছে ১৪ জনের। এদিকে তামিলনাডু করোনা সংক্রমনের সংখ্যার দিক থেকে ভারতের দ্বিতীয় রাজ্য হয়ে উঠেছে। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ লক্ষ ২ হাজার ৭২১। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪২ হাজার ৯৫৫ জন। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৩৮৫ জনের। কেবল চেন্নাইয়েই আক্রান্তের সংখ্যা ২৩ হাজার ৫২১।

কর্ণাটক : রাজ্য সরকার স্বল্প উপসর্গের লক্ষণ দেখা দেওয়া ব্যক্তিদের হোম আইসোলেশন এবং মৃতদেহগুলির সৎকারের ব্যাপারে বিস্তারিত নীতি-নির্দেশিকা প্রকাশ করেছে। বেঙ্গালুরুতে আরও ৪০০টি অ্যাম্বুলেন্স কাজে লাগানো হবে। এদিকে ব্যাঙ্গালোর শহরে গতকাল আরও ২১ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ হাজার ৭১০ এবং মৃত্যু হয়েছে ২৯৩ জনের।

অন্ধ্রপ্রদেশ : রাজ্যে গতকাল আরও ৭৬৫ জনের সংক্রমণের এবং ১২ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এদিকে রাজ্যে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে প্রায় ১৮ হাজার। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৯ হাজার ৪৭৩। এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ২১৮ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৮ হাজার ৮ জন।

তেলেঙ্গানা : রাজ্যে হোম আইসোলেশন কৌশল গ্রহণ করায় ভালো পরিণাম পাওয়া যাচ্ছে। রাজ্যে গতকাল পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২০ হাজার ৪৬২। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯ হাজার ৯৮৪ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৮৩ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ১০ হাজার ১৯৫ জন।

অরুণাচল প্রদেশ : রাজধানী ইটানগরে কোভিড-১৯ এ আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার দরুণ রাজ্য সরকার রাজধানী অঞ্চলে আগামী সোমবার ৬ই জুলাই ভোর ৫টা থেকে ১২ই জুলাই বিকেল ৫টা পর্যন্ত লকডাউন কার্যকর করার কথা ঘোষণা করেছে। রাজ্যের মুখ্যসচিব জানিয়েছেন, এ সংক্রান্ত আদর্শ পরিচালন বিধি শীঘ্রই জারি করা হবে। এদিকে রাজ্যে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৫২। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৭৬ জন। এখনও পর্যন্ত মৃত্যুর কোনও খবর নেই।

মিজোরাম : রাজ্যে আরও ৩ জন করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়েছেন। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা এখন ৩২। সুস্থ হয়েছেন ১৩০ জন।

 

 

 

CG/BD/SB



(Release ID: 1636546) Visitor Counter : 121