PIB Headquarters

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত পিআইবি’র প্রাত্যহিক সংবাদ

Posted On: 11 SEP 2020 6:34PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২০

 

 

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ তথ্য; ভারতে দৈনিক আরোগ্য লাভের ৬০ শতাংশই পাঁচটি রাজ্য থেকে; মোট সুস্থতার সংখ্যা প্রায় ৩৫.৫ লক্ষ
ভারতে অধিক সংখ্যায় আরোগ্য লাভের প্রবণতা অব্যাহত রয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় ৭০,৮৮০ জন আরোগ্য লাভ করেছেন। এর মধ্যে কেবল মহারাষ্ট্র থেকেই সুস্থ হয়েছেন ১৪ হাজারের বেশি এবং অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে সুস্থ হয়েছেন ১০ হাজারের বেশি। সুস্থতার সংখ্যা ক্রমাগত বৃদ্ধি পাওয়ায় ভারতে আরোগ্য লাভের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩৫ লক্ষ ৪২ হাজার ৬৬৩ এবং সুস্থতার হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৭.৬৫ শতাংশ। দেশে দৈনিক ভিত্তিতে সুস্থতার ৬০ শতাংশই পাঁচটি রাজ্য থেকে। এই রাজ্যগুলি হল মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্ণাটক ও উত্তরপ্রদেশ। এদিকে দেশে গত ২৪ ঘন্টায় ৯৬.৫৫১ জনের নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হওয়ার খবর মিলেছে। নতুন করে আক্রান্তদের মধ্যে মহারাষ্ট্র থেকে আক্রান্ত হয়েছেন ২৩ হাজারের বেশি এবং অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে ১০ হাজারের বেশি। নতুন করে আক্রান্তদের মধ্যে প্রায় ৫৭ শতাংশই পাঁচটি রাজ্য থেকে। যে পাঁচটি রাজ্য থেকে দৈনিক ভিত্তিতে ৬০ শতাংশের বেশি আরোগ্য লাভ করেছেন, সেই রাজ্যগুলি থেকেই আবার নতুন করে ৫৭ শতাংশ আক্রান্তের খবর মিলেছে। দেশে আজ পর্যন্ত নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৯ লক্ষ ৪৩ হাজার ৪৮০। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে মহারাষ্ট্র রাজ্যগুলির মধ্যে প্রথম স্থানে রয়েছে। এই রাজ্য থেকে নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২ লক্ষ ৬০ হাজারের বেশি। এরপর রয়েছে কর্ণাটক, যেখানে নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ লক্ষের বেশি মানুষ। নিশ্চিতভাবে কারোনায় আক্রান্তের প্রায় ৭৪ শতাংশই সর্বাধিক করোনায় প্রভাবিত নয়টি রাজ্য থেকে। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের ৪৮ শতাংশেরও বেশি ঘটনা ঘটেছে মহারাষ্ট্র, কর্ণাটক ও অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে। দেশে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ১,২০৯ জনের করোনায় মৃত্যুর খবর মিলেছে। এর মধ্যে ৪৯৫ জন মহারাষ্ট্রের, ১২৯ জন কর্ণাটকের এবং ৯৪ জন উত্তরপ্রদেশ থেকে রয়েছেন।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1653246 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক রাজ্য / কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে রাজ্যগুলির মধ্যে মেডিকেল অক্সিজেনের সরবরাহে কোনরকম বাধা-বিপত্তি তৈরি না করার জন্য আহ্বান জানিয়েছে
কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের নজরে এসেছে যে কয়েকটি রাজ্য বিভিন্ন আইনের ধারা প্রয়োগ করে আন্তঃরাজ্য অক্সিজেন সরবরাহের ক্ষেত্রে কিছু বিধি-নিষেধ আরোপ করার চেষ্টা করছে। সেইসঙ্গে মন্ত্রকের আরও নজরে এসেছে যে ওই রাজ্যগুলিতে অক্সিজেন উৎপাদক বা সরবরাহকারীদের ক্ষেত্রেও অন্য রাজ্যে সরবরাহের ব্যাপারে বিধি-নিষেধ আরোপ করা হচ্ছে। রাজ্যগুলিতে এ ধরনের বিধি-নিষেধের প্রেক্ষিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রক পুনরায় জানিয়েছে, সঙ্কটাপন্ন কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালগুলিতে অক্সিজেন সরবরাহ অব্যাহত রাখা অত্যন্ত জরুরি। রাজ্য / কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে পাঠানো এক চিঠিতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার কাজে পর্যাপ্ত পরিমাণে ও নিরবচ্ছিন্নভাবে মেডিকেল অক্সিজেনের সরবরাহ সুনিশ্চিত করার কথা বলেছেন। স্বাস্থ্য সচিবের পক্ষ থেকে রাজ্য / কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে মেডিকেল অক্সিজেনের সরবরাহের ওপর কোনরকম বিধি-নিষেধ না আরোপ করার আহ্বান জানানো হয়েছে। ওই চিঠিতে মন্ত্রকের পক্ষ থেকে সুস্পষ্টভাবে বলা হয়েছে, চিকিৎসাধীন কোভিড-১৯ রোগীদের স্বার্থে অক্সিজেনের সরবরাহ ও ব্যবহার অব্যাহত থাকা প্রতিটি রাজ্যের কর্তব্য। রাজ্য / কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে ওই চিঠিতে স্মরণ করিয়ে দেওয়া হয়েছে, মেডিকেল অক্সিজেন অত্যাবশ্যক জনস্বাস্থ্য সামগ্রীর অন্যতম একটি। তাই, মেডিকেল অক্সিজেন সরবরাহের ক্ষেত্রে যে কোনও ধরনের অন্তরায় কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে। এমনকি, অনেক অক্সিজেন উৎপাদক বা সরবরাহকারী রয়েছেন যাঁরা ইতিমধ্যেই অন্যান্য রাজ্যে অক্সিজেন সরবরাহের ব্যাপারে আগাম চুক্তিবদ্ধ। তাই আইনি বাধ্যবাধকতা হিসেবে এঁদের বিষয়টিকেও বিবেচনায় রাখার জন্য রাজ্য / কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে বলা হয়েছে।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1653254 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

করোনা ভাইরাস (সার্স-কভ-২) – এর অ্যান্টিবডিগুলির সেরোলজিকাল পরীক্ষা-নিরীক্ষা লক্ষ্ণৌর সিএসআইআর – সিডিআরআই প্রতিষ্ঠানে
লক্ষ্ণৌর সিএসআইআর – সিডিআরআই (সেন্ট্রাল ড্রাগ রিসার্চ ইন্সটিটিউট) সার্স-কভ-২ সংক্রান্ত অ্যান্টিবডিগুলির জন্য সাধারণ মানুষের ওপর এক পরীক্ষা-নিরীক্ষা শুরু করেছে। এই সেরোলজিকাল বা রক্তের নমুনা পরীক্ষা গত ৯-১১ই সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পরিচালিত হয়। সিএসআইআর – এর কর্মী ও পড়ুয়াদের জন্য স্বেচ্ছায় এই পরীক্ষা ছিল সম্পূর্ণ নিঃশুল্ক।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1653349 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

২০২০-র জাতীয় শিক্ষানীতির জন্য 'একবিংশ শতাব্দীতে বিদ্যালয় শিক্ষা' শীর্ষক আলোচনাসভায় প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ
প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ২০২০-র জাতীয় শিক্ষানীতির জন্য 'একবিংশ শতাব্দীতে বিদ্যালয় শিক্ষা' শীর্ষক আলোচনাসভায় বক্তব্য রেখেছেন। এই আলোচনাসভায় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, জাতীয় শিক্ষানীতি একবিংশ শতাব্দীতে ভারতকে নতুন দিশা দেখাবে এবং আমরা আমাদের দেশের উন্নত ভবিষ্যৎ গড়ার জন্য প্রয়োজনীয় ভিত তৈরির ক্ষেত্রে অংশীদার হতে চলেছি। তিনি বলেছেন, বিগত তিন দশক ধরে আমাদের জীবনে এমন কোনও বিষয় ছিল না, যেগুলি আগের সঙ্গে সাযুজ্য রেখে চলত। অথচ, আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থা এখনও সেই পুরনো নিয়ম অনুযায়ীই চলছিল। শ্রী মোদী বলেছেন, নতুন ২০২০-র জাতীয় শিক্ষানীতি তাই নতুন ভারত গড়ার জন্য নতুন আকাঙ্ক্ষা, নতুন সুযোগ এনে দেবে। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ২০২০-র জাতীয় শিক্ষানীতি হল দেশের প্রতিটি অঞ্চল, সমাজের প্রতিটি স্তর এবং প্রত্যেক ভাষাভাষী মানুষের গত ৩-৪ বছর ধরে কঠোর পরিশ্রমের ফসল। তিনি বলেছেন, এই নীতিকে বাস্তবায়িত করার মধ্য দিয়ে আসল কাজটি এখন শুরু হবে। নতুন জাতীয় শিক্ষানীতি সফলভাবে বাস্তবায়নের জন্য তিনি শিক্ষক-শিক্ষিকাদের একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1653279 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

সংসদের বর্ষাকালীন অধিবেশনের আগে রাজ্যসভার চেয়ারম্যান শ্রী ভেঙ্কাইয়া নাইডুর কোভিড-১৯ নমুনা পরীক্ষা; অধিবেশন শুরুর ৭২ ঘন্টার মধ্যে সমস্ত সাংসদকে কোভিড টেস্ট করাতে হবে
সংসদের বর্ষাকালীন অধিবেশন আগামী ১৪ই সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে। অধিবেশন শুরু হওয়ার দু’দিন আগেই সভার চেয়ারম্যান শ্রী এম ভেঙ্কাইয়া নাইডু আজ কোভিড-১৯ নমুনা পরীক্ষা করিয়েছেন। রাজ্যসভার সমস্ত সদস্যদের এক পরামর্শ দিয়ে বলা হয়েছে, প্রত্যেককেই আসন্ন অধিবেশনে যোগদানের পূর্বে কোভিড-১৯ নমুনা পরীক্ষা (আরটি-টিসিআর পদ্ধতিতে) করা বাধ্যতামূলক। সদস্যদের বলা হয়েছে, অধিবেশন শুরুর ৭২ ঘন্টার মধ্যে যে কোনও স্বীকৃত হাসপাতাল অথবা ল্যাবরেটরি থেকে নমুনা পরীক্ষা করাতে হবে। সংসদ ভবন কমপ্লেক্সেও নমুনা পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সদস্যদের সুবিধার্থে আজ থেকে সংসদ ভবন চত্বরে ৩টি নমুনা পরীক্ষা কেন্দ্র চালু করা হয়েছে।সদস্যদের অনুরোধ করা হয়েছে, যাতে তাঁরা রাজ্যসভা সচিবালয়ে নমুনা পরীক্ষা সম্পর্কিত রিপোর্ট আগাম সুনির্দিষ্ট ই-মেল মারফৎ পাঠাতে পারেন। অধিবেশনের সময় সংসদ ভবনে প্রবেশের ক্ষেত্রে যাতে অযাচিত ঘটনা এড়ানো যায়, তার জন্যই এই পদক্ষেপ।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1653284 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

মূল্যবোধ-ভিত্তিক শিক্ষা ব্যবস্থার ওপর গুরুত্ব দিলেন উপ-রাষ্ট্রপতি
উপ-রাষ্ট্রপতি শ্রী এম ভেঙ্কাইয়া নাইডু ব্যক্তি-বিশেষের উন্নয়নে মূল্যবোধ-ভিত্তিক শিক্ষা ব্যবস্থা প্রদানের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিয়েছেন। প্রচলিত শিক্ষা ব্যবস্থাকে ছাপিয়ে গিয়ে মূল্যবোধ-ভিত্তিক শিক্ষা ও শিক্ষণ ব্যবস্থাকে আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থার অবিচ্ছেদ্য অংশ গড়ে তোলার ওপর তিনি জোর দিয়েছেন। শ্রী নাইডু ভারত ও ভুটানের জন্য রাষ্ট্রসংঘের তথ্য কেন্দ্রের সহযোগিতায় শ্রী রামচন্দ্র মিশন আয়োজিত হাটফুলনেস অল ইন্ডিয়া এসে রাইটিং শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে অনলাইন সূচনা করে ভাষণ দিচ্ছিলেন। রাষ্ট্রসংঘের আন্তর্জাতিক যুবদিবস উদযাপন উপলক্ষে প্রতি বছর জুলাই ও নভেম্বর মাসের মধ্যে এ ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়ে থাকে।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1653272 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।


লাইফ সার্টিফিকেট জমা দেওয়ার বর্তমান সময়সীমা শিথিল করার কথা জানালো সরকার
কেন্দ্রীয় কর্মচারী, গণঅভিযোগ ও পেনশন বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ডঃ জিতেন্দ্র সিং বলেছেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে বয়স্কদের আরও কিছুটা সুবিধা দিতে সরকার লাইফ সার্টিফিকেট জমা দেওয়ার জন্য বর্তমান সময়সীমা শিথিল করেছে। সমস্ত কেন্দ্রীয় সরকারি পেনশন প্রাপক এবার পয়লা নভেম্বর থেকে ৩১শে ডিসেম্বর পর্যন্ত লাইফ সার্টীফিকেট জমা দিতে পারবেন। আগে পেনশনের সুবিধা অব্যাহত রাখতে কেবল নভেম্বর মাসেই এই সার্টিফিকেট জমা করতে হ’ত। অবশ্য, ৮০ বছর বা তার বেশি বয়সী পেনশন-প্রাপকরা আগামী পয়লা অক্টোবর থেকে ৩১শে ডিসেম্বর পর্যন্ত পেনশন অব্যাহত রাখতে লাইফ সার্টিফিকেট জমা করতে পারবেন। লাইফ সার্টিফিকেট জমা দেওয়ার ক্ষেত্রে এই সময়সীমা বৃদ্ধির ফলে পেনশন প্রদান কর্তৃপক্ষগুলি প্রাপকদের প্রাপ্ত পেনশনের অর্থ সংশ্লিষ্ট পেনশনারের অ্যাকাউন্টে জমা দেওয়া অব্যাহত রাখবে।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1653327 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী শ্রী অমিত শাহ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গান্ধীনগর জেলা ও শহরে ১৫.০১ কোটি টাকার একগুচ্ছ উন্নয়নমূলক প্রকল্প মানুষের উদ্দেশে উসর্গ ূচনা করেছেন
কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী শ্রী অমিত শাহ গতকাল ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ১৫.০১ কোটি টাকার একগুচ্ছ উন্নয়নমূলক প্রকল্প জাতির উদ্দেশে উৎসর্গ ও সূচনা করেছেন। গান্ধীনগর জেলা ও শহরে এই কর্মসূচিগুলি উদ্বোধন হয়েছে অথবা সেগুলি রূপায়িত হচ্ছে। এই উপলক্ষে শ্রী শাহ ১১৯ কোটি ৬৩ লক্ষ টাকার একাধিক উন্নয়নমূলক প্রকল্পের শিলান্যাস করেন। প্রকল্পগুলির মধ্যে রয়েছে – স্মার্টসিটি, উদ্যানগুলির মানোন্নয়ন, সড়কের সংস্কার ও সম্প্রসারণ, বালিকা বিদ্যালয়গুলিতে নতুন শ্রেণীকক্ষ নির্মাণ প্রকৃতি। এই উন্নয়নমূলক প্রকল্পগুলি গান্ধীনগরের বিকাশের গতি আরও ত্বরান্বিত করবে। অনুষ্ঠানে গুজরাটের উপ-মুখ্যমন্ত্রী শ্রী নীতিন প্যাটেল ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যোগ দেন। শ্রী শাহ আরও বলেন, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে একমাত্র সমাধান হ’ল – জনসচেতনতা। এজন্য তিনি সামাজিক দূরত্ববিধি কঠোরভাবে মেনে চলার জন্য জনগণের প্রতি আবেদন জানান।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1653075 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

ব্যাঙ্কের ঋণ গ্রহীতাদের সুবিধের জন্য সরকারকে মূল্যায়নের কাজে সাহায্য করবে বিশেষজ্ঞ কমিটি
ব্যাঙ্কে ঋণের উপর সুদের স্বত্বত্যাগ সংক্রান্ত ছাড়ের সুবিধের বিষয় নিয়ে সর্বোচ্চ আদালতে গজেন্দ্র শর্মার সঙ্গে কেন্দ্রের মামলার শুনানীর সময় যে সব প্রসঙ্গ গুলি উঠেছে, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য সরকার একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গড়েছে। এই কমিটি সার্বিক পরিস্থিতি মূল্যায়ন করে সরকারকে সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করবে। এই বিশেষজ্ঞ কমিটির সদস্যরা হলেনঃ-
১। শ্রী রাজীব মেহঋষি, (প্রাক্তন ক্যাগ) চেয়ারপার্সন
২। ডঃ রবীন্দ্র এইচ ঢোলাকিয়া, আই আই এম আহমেদাবাদের প্রাক্তন অধ্যাপক এবং রিজার্ভ ব্যাঙ্কের আর্থিক নীতি সংক্রান্ত কমিটির প্রাক্তন সদস্য
৩। শ্রী বি শ্রীরাম, স্টেট ব্যাঙ্ক ও আইডিবিআই ব্যাঙ্কের প্রাক্তণ ম্যানেজিং ডিরেক্টর।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1653099 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

কোভিড-১৯ মহামারীর জেরে উদ্ভূত সাধারণ সমস্যা সমাধানের জন্য সকলকে একসঙ্গে কাজ চালিয়ে যেতে হবে : জি-২০ শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রীদের বৈঠকে জানালেন শ্রী গাঙ্গোয়ার
কোভিড-১৯এর জেরে উদ্ভূত সমস্যার সমাধানের জন্য সকলকে একসঙ্গে কাজ চালিয়ে যেত হবে বলে জানালেন কেন্দ্রীয় শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রকের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী শ্রী সন্তোষ গাঙ্গোয়ার। জি-২০ সদস্য দেশগুলির শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রীদের ভার্চুয়াল বৈঠকে একথা জানান তিনি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, কোভিড-১৯ মহামারী আমাদের সকলকেই অনেক কিছু নতুন শিখিয়েছে এবং আমাদের কাজ করার পদ্ধতিতে পরিবর্তন এনে দিয়েছে।
কোভিড-১৯ মহামারীর প্রভাব থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য জি-২০ সদস্য দেশগুলির সুনির্দিষ্ট ব্যবস্থাপনার কথা উল্লেখ করে তিনি শ্রমিকদের সমস্যা হ্রাস করার কথা তুলে ধরেন। এই প্রসঙ্গে তিনি ভারতে শ্রমিকদের সমস্যা সমাধানে ও যথার্থ মজুরি প্রদানের জন্য সরকারের নেওয়া পদক্ষেপগুলির কথা উল্লেখ করেন। শ্রী গাঙ্গোয়ার আরও জানান, পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য অস্থায়ী আশ্রয় কেন্দ্র গড়ে তোলা, তাদের খাবার ও চিকিৎসার সুবিধা প্রদান করার মতো পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এমনকি পরিযায়ী শ্রমিকদের মধ্যে খাদ্যশস্য বিতরণও করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার পরিযায়ী শ্রমিকদের সুবিধার্থে 'এক দেশ এক রেশন কার্ড' চালু করেছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। এদিনের বৈঠকে কোভিড-১৯এর জেরে জি-২০ সদস্য দেশগুলির মধ্যে সৃষ্ট সমস্যার নিরসনে যে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে তা নিয়েও আলোচনা হয়।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1653260 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।



পিআইবি’র আঞ্চলিক কার্যালয় থেকে প্রাপ্ত তথ্য

চন্ডীগড় : কেন্দ্রশাসিত এই অঞ্চলের প্রশাসক তিনটি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানকে নতুন পরীক্ষার হার, শয্যা সংখ্যা বৃদ্ধি ও গুরুতর অসুস্থ রোগীদের ব্যক্তিগতভাবে পরিচর্যা করার নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি জনপ্রতিনিধিদের নিজ নিজ এলাকা থেকে উপসর্গ-বিশিষ্ট ও সন্দেহজনক ব্যক্তিদের ব্যাপারে তথা সংগ্রহ করে স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষগুলিকে তা অবিলম্বে জানাতে আবেদন জানিয়েছেন।

পাঞ্জাব : রাজ্যের স্বাস্থ্য মন্ত্রী সাধারণ মানুষের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, কোভিড নমুনা পরীক্ষার জন্য স্বেচ্ছায় এগিয়ে আসতে, যাতে মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াই আরও জোরদার করা যায় এবং হাসপাতালগুলির ওপর বর্তমান চিকিৎসার বোঝা লাঘব করা যায়।

মহারাষ্ট্র : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে আগামী দিনগুলিতে রাজ্যে কওভিড আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার ব্যাপারে যে সতর্ক বাণী দেওয়া হয়েছে, তার প্রেক্ষিতে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, হাসপাতালগুলিকে ৮০ শতাংশই অক্সিজেন সিলিন্ডার সরবরাহ করবে সরকার এবং বাকি ২০ শতাংশ শিল্প সংস্থাগুলিতে সরবরাহ করা হবে। গতকাল রাজ্যে দ্বিতীয়বার সর্বাধিক ২৩ হাজার ৪৪৬ জনের সংক্রমিত হওয়ার খবর মেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৯ লক্ষ ৯০ হাজার ছাড়িয়েছে।

গুজরাট : রাজ্যের ১৫০ জনেরও বেশি চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে ১ হাজার ৮০০ চিকিৎসক কোভিড রোগীদের চিকিৎসার কাজ পরিচালনা করছেন। এদিকে রাজ্যে গতকাল আরও ১ হাজার ৩৩২ জনের আক্রান্ত হওয়ার খবর মিলেছে। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৬ হাজার ১৯৮ জন।

রাজস্থান : রাজ্যে কোভিড-১৯ সংক্রমণের হার অগাস্ট মাসে ৫ শতাংশ থেকে বেড়ে সেপ্টেম্বরে ৬ শতাংশ ছাড়িয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে আরও ৭৪০ জনের সংক্রমিত হওয়ার খবর মেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৯৮ হাজার ছাড়িয়েছে। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৬ হাজার ৪২৭ জন।

মধ্যপ্রদেশ : রাজ্যে মেডিকেল অক্সিজেন সিলিন্ডারের ঘাটতি দেখা দেওয়ায় কোভিড-১৯ এর রেখাচিত্রে অগ্রগতি ঘটছে। এই প্রেক্ষিতে রাজ্য সরকার একটি নতুন অক্সিজেন উৎপাদন প্ল্যান্ট স্থাপনের কথা ঘোষণা করেছে। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী গতকাল রাজ্য থেকে অক্সিজেন সিলিন্ডার অন্য রাজ্যে সরবরাহ করার ব্যাপারে বিধিনিষেধ আরোপ করার একদিন পর রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্ত। এদিকে রাজ্যে নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৮ হাজার ৪০০ ছাড়িয়েছে।

কেরল : মুখ্যমন্ত্রীর ডাকা সর্বদলীয় বৈঠকে রাজ্যে ২টি বিধানসভার উপ-নির্বাচন পিছিয়ে দেওয়ার জন্য নির্বাচন কমিশনের কাছে আহ্বান জানানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। এদিকে রাজ্যের শিল্প মন্ত্রীও করোনায় আক্রান্ত। রাজ্যে গতকাল আরও ৩ হাজার ৩৪৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এখনও পর্যন্ত রাজ্যে এই মারণ ভাইরাসের বলি ৩৯৬ জন।

তামিলনাডু : কেন্দ্রশাসিত পন্ডিচেরীতে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ৫০৪ জনের সংক্রমিত হওয়ার এবং ১২ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। এর ফলে, করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১৯ হাজার ছাড়িয়েছে এবং এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৩৬৫ জনের। এদিকে তামিলনাডুর স্বাস্থ্য মন্ত্রী জানিয়েছেন, রাজ্যের ২টি জেলা বাদে অন্যত্র নমুনা পরীক্ষায় করোনায় আক্রান্তের হার ১০ শতাংশের কম। রাজ্যের বিদ্যালয়গুলি পুনরায় আংশিকভাবে খোলার ব্যাপারে যে পরিকল্পনা করা হচ্ছে, তার প্রেক্ষিতে রোটেশন অনুযায়ী, সামাজিক দূরত্ববিধি বজায় রেখে ক্লাস চালু করার প্রস্তাব রয়েছে।

কর্ণাটক : রাজ্যে প্রথম আক্রান্তের ঘটনা সামনে আসার ৬ মাস পর নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষ ছাড়িয়েছে। এদিকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সরকারি হাসপাতালগুলিতে অক্সিজেন সরবরাহের যে ঘাটতি দেখা দিয়েছে, তা মেটানোর জন্য আন্তঃজেলা সমন্বয় জোরদার করার জন্য গুরুত্ব দিয়েছেন।

অন্ধ্রপ্রদেশ : রাজ্যে ৫ কোটি ৬৪ লক্ষ জনসংখ্যার প্রায় ২০ শতাংশই কোভিড-১৯ প্রতিরোধী রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছেন বলে সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় প্রকাশ। ঐ সমীক্ষায় আরও বলা হয়েছে, ১০০ শতাংশ আক্রান্তের মধ্যেই ৯০ শতাংশের অতি স্বল্প উপসর্গ রয়েছে। ক্রমাগত মৃত্যু হার বাড়তে থাকায় তিরুপতি জেলার অবস্থা এখনও উদ্বেগজনক। জেলাশাসক আধিকারিকদের নির্দেশ দিয়ে বলেছেন, ৫০ বছরের বেশি বয়সী ব্যক্তিরা যেন বাড়ির বাইরে না বেরোন, তা যথাসম্ভব সুনিশ্চিত করতে।

তেলেঙ্গানা : রাজ্যে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ১৩ জনের মৃত্যুর খবর মেলায় করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৯৪০ হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষ ৫২ হাজার ছাড়িয়েছে। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩২ হাজার ১৯৫ জন। এদিকে তেলেঙ্গানা হাইকোর্ট অনলাইনে স্নাতকোত্তর স্তরের পরীক্ষা সাময়িক স্থগিত রাখা যায় কিনা সে ব্যাপারে রাজ্য সরকারের কাছে জানতে চেয়েছে।

অরুণাচল প্রদেশ : রাজ্যে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ১২৭ জনের করোনায় সংক্রমিত হওয়ার খবর মিলেছে। এদিকে গুয়াহাটি হাইকোর্টের ইটানাগর বেঞ্চ রাজধানী অঞ্চলের জেলা প্রশাসনকে রাজ্যের লেখিতে যে কোভিড কেয়ার সেন্টার রয়েছে, সেখানে চিকিৎসাধীন রোগীদের মনস্তাত্ত্বিক সহায়তা দেওয়া যায় কিনা সে ব্যাপারে উপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছে।

আসাম : রাজ্যে গত ২৪ ঘন্টায় ২ হাজার ১৯৭ জন আরোগ্য লাভ করেছেন। আজ পর্যন্ত করোনা মুক্ত হয়েছেন ১ লক্ষ ৫ হাজারেরও বেশি। রাজ্যে নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২৯ হাজার ৬৮৭।

মণিপুর : রাজ্যে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ১০৮ জনের আক্রান্ত হওয়ার খবর মিলেছে। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ৬৩৩ জন। রাজ্যে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর। তবে, সুস্থতার হার বেড়ে ৭৭ শতাংশে পৌঁছেছে।

মেঘালয় : রাজ্যে নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ৪৩৪। এখনও পর্যন্ত আরোগ্যলাভ করেছেন ১ হাজার ৮৪২ জন।

মিজোরাম : রাজ্য সরকার আইজল পুর এলাকায় আগামী ১৭ই সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আংশিক লকডাউন কার্যকর করার কথা ঘোষণা করেছে। এদিকে গতকাল আরও ২০ জনের সংক্রমিত হওয়ার খবর মেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১ হাজার ৩৫৩ হয়েছে। এদের মধ্যে ৬০৩ জন নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

নাগাল্যান্ড : আরও কিছু এলাকায় কোভিড আক্রান্তের খবর মেলায় কোহিমার বেশ কিছু এলাকা সীল করে দেওয়া হয়েছে। লোয়ার নাগাবাজার, অফিসার্স হিল, জেল কলোনী সহ আরও কয়েকটি এলাকা ইতিমধ্যেই সীল করা হয়েছে।

 

 

CG/BD/SB



(Release ID: 1653456) Visitor Counter : 7