অর্থমন্ত্রক
azadi ka amrit mahotsav

ঋণ নেবার সময় বন্ধক রাখা সম্পদের অতিরিক্ত মূল্য দেখানোর ফলে স্ট্রেসড লোন অধিগ্রহণে ন্যাশনাল অ্যাসেট রিকনস্ট্রাকশন কোম্পানী লিমিটেডের সিকিউরিটি রিসিট দেওয়ায় কেন্দ্রীয় সরকারের গ্যারান্টি থাকার বিষয় সংক্রান্ত বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর

Posted On: 16 SEP 2021 5:12PM by PIB Kolkata

নতুন দিল্লি, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১

 

প্রশ্ন : ন্যাশনাল অ্যাসেট রিকনস্ট্রাকশন কোম্পানী লিমিটেড (এনএআরসিএল) কি ? এটি কে তৈরি করেছে ? 

উত্তর : কোম্পানী আইনের অন্তর্ভুক্ত এনএআরসিএল, রিজার্ভ ব্যাঙ্কের কাছে অ্যাসেট রিকনস্ট্রাকশন কোম্পানী (এআরসি) অর্থাৎ সম্পদ পুনর্গঠন সংস্থা হিসেবে লাইসেন্সের জন্য আবেদন করে। ব্যাঙ্কগুলির ঋণ দেওয়ার সময় যে স্ট্রেসড অ্যাসেট (ঋণ দেবার সময় কম মূল্যের বন্ধককে বেশি মূল্যে দেখিয়ে ঋণের ব্যবস্থা করা) থাকে, সেগুলি অধিগ্রহণের জন্য এনএআরসিএল গঠন করা হয়েছে। এই সংস্থায় রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাঙ্কগুলির ৫১ শতাংশ মালিকানা থাকবে।  

প্রশ্ন : ইন্ডিয়া ডেবট রেজুলেশন কোম্পানী লিমিটেড (আইডিআরসিএল) কি ? এটি কে গড়ে তুলেছে ? 

উত্তর : আইডিআরসিএল একটি পরিষেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান। এই সংস্থা সম্পদের ব্যবস্থাপনার জন্য পেশাদারদের নিয়োগ করে। রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাঙ্ক এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলির এই সংস্থায় ৪৯ শতাংশ শেয়ার থাকবে, বাকি শেয়ার বেসরকারী ঋণ প্রদানকারী সংস্থায়। 

প্রশ্ন : যখন ২৮টি এআরসি রয়েছে, তখন এনএআরসিএল – আইডিআরসিএল –এর মতো সংস্থার প্রয়োজনীয়তা কোথায় ? 

উত্তর : স্বল্পমূল্যের ঋণের ক্ষেত্রে স্ট্রেসড অ্যাসেট থেকে সম্পদ সংগ্রহে এআরসিগুলি যথেষ্ট কার্যকর।  আইবিসি –র মতো বিভিন্ন সংস্থা  যথেষ্ট  ভাল কাজ করে। তবে বিপুল পরিমাণে অনুৎপাদক সম্পদের কথা বিবেচনা করে, অতিরিক্ত আরেকটি  ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলার প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়। কেন্দ্রীয় বাজেটে এনএআরসিএল – আইডিআরসিএল গঠনের প্রস্তাব দেওয়া হয়।  

প্রশ্ন : সরকারের গ্যারান্টি দেওয়ার প্রয়োজনীয়তা কোথায় ?   

উত্তর : বিপুল পরিমাণে অনুৎপাদক সম্পদের সমস্যা থেকে বেরিয়ে আসার জন্য এই ধরণের ব্যবস্থাপনার প্রয়োজন আছে। এক্ষেত্রে বিশ্বাসযোগ্যতা ও অনিশ্চয়তা দূর করার জন্য সরকারের গ্যারান্টির প্রয়োজন। তাই এনএডিসিএল –এর থেকে সংগ্রহ করা সিকিউরিটি রিসিট বাবদ ৩০,৬০০ কোটি টাকা কেন্দ্র গ্যারান্টি হিসেবে দেওয়ার সংস্থান রেখেছে। এর মেয়াদ হবে ৫ বছর। ধার পরিশোধের জন্য গ্যারান্টির ব্যবহার একটি প্রচলিত পদ্ধতি। এই গ্যারান্টির মাধ্যমে সিকিউরিটি রিসিট বা এসআর –এর প্রকৃত মূল্য এবং যে মূল্যের উপর ভিত্তি করে লোন দেওয়া হয়েছে, তার মধ্যে থাকা পার্থক্য দূর করতে  এই গ্যারান্টি সাহায্য করবে। এছাড়াও কেন্দ্রের গ্যারান্টি এসআর –এর মূলধন বাড়াতে সাহায্য করবে। 

প্রশ্ন : এনএআরসিএল ও আইডিআরসিএল কিভাবে কাজ করে ? 

উত্তর :  এনএআরসিএল লিড ব্যাঙ্কগুলিকে সম্পদ অধিগ্রহণের জন্য পরামর্শ দেয়। এনএআরসিএল –এর পরামর্শ গ্রহণ করলে আইআরডিসিএল সংশ্লিষ্ট সম্পদের ব্যবস্থাপনা এবং মূল্য নির্ধারণের কাজ করে থাকে। 

প্রশ্ন : ব্যাঙ্কগুলি নতুন এই ব্যবস্থায় কতটা উপকৃত হবে ? 

উত্তর : দ্রুত কাজ করার জন্য অর্থাৎ স্ট্রেসড অ্যাসেট থেকে  সম্পদকে কাজে লাগানোর জন্য এই ব্যবস্থা কার্যকর হবে। ব্যাঙ্কগুলির ব্যক্তি বিশেষের দিকে নজর রাখার পরিবর্তে তাদের ব্যবসা ও মূলধন বাড়ানোর দিকে গুরুত্ব দেবে। স্ট্রেসড অ্যাসেট এবং এসআর এর ফলে উপকৃত হবে। এছাড়াও ব্যাঙ্কগুলি সম্পদের মূল্যায়নের ক্ষেত্রে যথাযথভাবে কাজ করতে পারবে। ফলে বাজারে মূলধনের যোগান বাড়বে। 

প্রশ্ন : এটি এখন কেন গড়ে তোলা হল ?   

উত্তর : দেউলিয়া বিধি, স্ট্রেনদেনিং অফ সিকিউরিটাইজেশন অ্যান্ড রিকনস্ট্রাকশন অফ ফিন্যান্সিয়াল অ্যাসেট অ্যান্ড এনফোর্সমেন্ট অফ সিকিউরিটিস ইন্টারেস্ট (এসএআরএফএইএসআই) আইন ও ঋণ পুনরুদ্ধার ট্রাইবুনাল এবং ব্যাঙ্কগুলিতে স্ট্রেসড অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট ভার্টিকালসের মতো কিছু ব্যবস্থাপনা বড় অঙ্কের অনুৎপাদক সম্পদকে পুনরুদ্ধারের জন্য ব্যবহার করা হয়। এ সব সত্ত্বেও ব্যাঙ্কগুলির কাছে প্রচুর পরিমাণে অনুৎপাদক সম্পদ থেকে গেছে। ব্যাড লোনের কারণেই এই সমস্যা। সম্পদের গুণমান পুনর্মূল্যায়ন করে দেখা গেছে, এককভাবে এগুলি খুব বেশি না হলেও বিভিন্ন ঋণ গ্রহিতার কাছে খুচরো ভাবে এগুলি রয়ে গেছে। নতুন ব্যবস্থায় অনুৎপাদক সম্পদের দ্রুত পুনরুদ্ধারের জন্য ব্যাঙ্কগুলির কাছে  সুযোগ এনে দিয়েছে। 

প্রশ্ন : গ্যারান্টি কি কাজে লাগানো হবে ? 

উত্তর : সিকিউরিটি রিসিটের যে মূল্য দেখানো হচ্ছে, তার সঙ্গে প্রকৃত মূল্যের যে তফাৎ সেটি সরকারের গ্য়ারান্টি পূরণ করবে। এক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সীমা ৩০,৬০০ কোটি টাকা, যার মেয়াদ ৫ বছর। যেহেতু যথেষ্ট সম্পদ রয়েছে, তাই আশা করা যায়, সম্পদ পুনরুদ্ধারের ক্ষেত্রে অধিগ্রহণ বাবদ ব্যয়ের থেকে  তা বেশি হবে। 

প্রশ্ন : দ্রুত ও নির্দিষ্ট সময়ে সম্পদ উদ্ধারের কাজে সরকার, কিভাবে নিশ্চয়তা দেবে। 

উত্তর : কেন্দ্রীয় সরকারের গ্যারান্টি ৫ বছরের জন্য। ঋণ পরিশোধ করাই এই গ্যারান্টি প্রয়োগের মূল শর্ত থাকবে। এছাড়াও সম্পদ পুনরুদ্ধারে দেরি হলে এনএআরসিএলকে গ্যারান্টি ফি দিতে হবে। এই ফি এর পরিমাণ ক্রমশ বাড়তে থাকবে।   

প্রশ্ন : এনএআরসিএল –এর মূলধন কাঠামো কি হবে ? এবং সরকার এক্ষেত্রে কত অর্থের যোগান দেবে ? 

উত্তর : ব্যাঙ্ক এবং নন-ব্যাঙ্কিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলির ইক্যুইটি থেকে এনএআরসিএল মূলধন সংগ্রহণ করবে। প্রয়োজন হলে ঋণও নেওয়া যেতে পারে। মূলধনের চাহিদা কমাতে কেন্দ্রের গ্যারান্টি  সাহায্য করবে। 

প্রশ্ন : এনএআরসিএল –এর স্ট্রেসড অ্যাসেট পুনরুদ্ধারের কৌশল কি হবে ?  

উত্তর : যে সব ক্ষেত্রে স্ট্রেসড লোনের সম্পদের পরিমাণ ৫০০ কোটি টাকার উপরে এনএআরসিএল সেগুলিই পুনরুদ্ধারের চেষ্টা চালাবে। ইতিমধ্যেই এধরণের ঋণের জন্য সম্পদের পরিমাণ ২ লক্ষ কোটি টাকা। প্রথম পর্বে এনএআরসিএলের সাহায্যে ৯০,০০০ কোটি টাকার সম্পদ হস্তান্তরিত করা হবে। বাকি অর্থ দ্বিতীয় পর্বে হস্তান্তরিত হবে।  

 

CG/CB/SFS



(Release ID: 1755579) Visitor Counter : 153