PIB Headquarters

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত পিআইবি’র প্রাত্যহিক সংবাদ

Posted On: 13 AUG 2020 6:31PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ১৩ অগাস্ট, ২০২০

 

 

ভারতে যাবৎ একদিনে সর্বাধিক ৫৬ হাজার ৩৮৩ জন আরোগ্য লাভ করেছেন, মোট সুস্থতার সংখ্যা প্রায় ১৭ লক্ষ; ধারাবাহিকভাবে মৃত্যু হার হ্রাসের ক্ষেত্রে অগ্রগতি হচ্ছে, এই হার বর্তমানে ১.৯৬ শতাংশ
দৈনিক সুস্থতার নিরিখে ভারতে একদিনে করোনা থেকে আরোগ্য লাভ করেছেন ৫৬,৩৮৩ জন। দেশে এই নিয়ে আজ পর্যন্ত করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৬ লক্ষ ৯৫ হাজার ৯৮২ জন। কেন্দ্রীয় সরকার এবং রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির যৌথ উদ্যোগ এবং সামনের সারির কয়েক লক্ষ করোনা যোদ্ধার সহযোগিতায় ‘পরীক্ষা অনুসন্ধান এবং চিকিৎসা’ এই তিন বিষয়ের ওপর সতর্ক নজরদারি, পরিকল্পনা গ্রহণ, হাসপাতাল পরিকাঠামো উন্নয়ন, পরীক্ষার সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি, গৃহ নিভৃতবাসে নজরদারি এবং কোভিড-১৯ রোগীর চিকিৎসার বিষয়ে কেন্দ্রের পরামর্শ অনুযায়ী সুনির্দিষ্ট চিকিৎসার নিয়ম কার্যকর করার ফলে দেশে করোনায় সুস্থতার হার উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। আজ পর্যন্ত করোনায় দেশে সুস্থতার হার ৭০.৭৭ শতাংশ। অন্যদিকে করোনায় মৃত্যুর হার ক্রমশই কমে দাঁড়িয়েছে ১.৯৬ শতাংশে। এদিকে দেশে করোনায় উল্লেখযোগ্যভাবে সুস্থতার হার বৃদ্ধি পাওয়ায় ফলে দেশে প্রকৃত সংক্রমিত করোনা রোগীর সংখ্যা কমে হয়েছে ২৭.২৭ শতাংশ। বর্তমানে প্রকৃত করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬ লক্ষ ৫৩ হাজার ৬২২।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1645478 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্যগুলিকে তিন কোটির বেশী এন-৯৫ মাস্ক বন্টনের লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছেছে; কেন্দ্র বিনামূল্যে ১.২৮ কোটি পিপিই ১০কোটি এইচসিকিউ ট্যাবলেট বন্টন করেছে
কোভিড-১৯ মহামারী প্রতিরোধে এবং অন্যান্য ব্যবস্থাপনায় রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির বিরামহীন উদ্যোগের সঙ্গে কেন্দ্রের স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর উন্নতির প্রয়াসে পরিস্থিতি আয়ত্ত্বের মধ্যে রয়েছে। কোভিড-১৯ এর ব্যবস্থাপনার উন্নতি সহ কেন্দ্র বিনামূল্যে রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে চিকিৎসার নানা ধরণের সামগ্রী পাঠাচ্ছে। এই সব সামগ্রী প্রথমে দেশে তৈরি হত না। মহামারীর কারণে বিশ্বজুড়ে এর চাহিদা বাড়ায়, বিদেশেও এগুলি পাওয়া যাচ্ছিল না। এর পর, ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী (পিপিই), এন৯৫ মাস্ক ভেন্টিলেটরের মত প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সামগ্রী তৈরি করার জন্য স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যান মন্ত্রক, বস্ত্র মন্ত্রক, ফার্মাসিউটিক্যাল মন্ত্রক, শিল্প ও অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য দপ্তর, প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা সহ বেশ কিছু সংস্থা যৌথভাবে উদ্যোগী হয়। এর ফলশ্রুতিতে যে সব সামগ্রী কেন্দ্র সরবরাহ করছে, সেগুলি দেশেই তৈরি করা হচ্ছে।এর মাধ্যমে আত্মনির্ভর ভারত ও মেক ইন ইন্ডিয়া প্রয়াস শক্তিশালী হচ্ছে। রাজ্য, কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ও কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলিকে ১১ই মার্চ থেকে কেন্দ্র বিনামূল্যে ৩কোটি চার লক্ষের বেশীএন-৯৫মাস্ক, ১কোটি ২৮ লক্ষের বেশী পিপিই কিট, ১০ কোটি ৮৩ লক্ষ এইচসিকিউ ট্যাবলেট সরবরাহ করেছে। এছাড়াও ২২,৫৩৩টি ভেন্টিলেটর দিয়েছে। এই ভেন্টিলেটরগুলি যাতে ঠিকভাবে কাজ শুরু করতে পারে, সেই ব্যবস্থাও কেন্দ্রীয় সরকার করেছে।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1645435 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

ভারতে যাবৎ একদিনেই রেকর্ড ৮.লক্ষেরও বেশি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে; আজ পর্যন্ত ২.৬৮ কোটিরও বেশি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে; প্রতি ১০ লক্ষ জনসংখ্যায় নমুনা পরীক্ষার হার বেড়ে ১৯ হাজার ৪৫৩
ভারতে একদিনেই সর্বাধিক ৮ লক্ষেরও বেশি নমুনা পরীক্ষার মাইল ফলক অর্জিত হয়েছে। দেশে গত ২৪ ঘন্টায় রেকর্ড ৮ লক্ষ ৩০ হাজার ৩৯১টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। টেস্ট, ট্র্যাক এবং ট্রিট কৌশল গ্রহণ করে দেশে দৈনিক ১০ লক্ষ নমুনা পরীক্ষার দিকে অগ্রসর হচ্ছে। সাপ্তাহিক-ভিত্তিতে দৈনিক গড় নমুনা পরীক্ষায় লক্ষ্যনীয় অগ্রগতি হয়েছে। জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে ২.৩ লক্ষ নমুনা পরীক্ষার পরিমাণ বেড়ে চলতি সপ্তাহে তা বেড়ে হয়েছে ৬.৩ লক্ষেরও বেশি। গত ২৪ ঘন্টায় ৮ লক্ষেরও বেশি নমুনা পরীক্ষা হওয়ার দরুণ আজ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা ২ কোটি ৬৮ লক্ষ ৪৫ হাজার ছাড়িয়েছে। একইভাবে, প্রতি ১০ লক্ষ জনসংখ্যায় নমুনা পরীক্ষার হার বেড়ে হয়েছে ১৯ হাজার ৪৫৩। দেশে জানুয়ারির গোড়ায় নমুনা পরীক্ষাগারের সংখ্যা কেবল ১টি থেকে বেড়ে আজ পর্যন্ত সরকারি ও বেসরকারি মিলিয়ে এই সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৪৩৩।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1645542 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

স্বচ্ছ কর ব্যবস্থা - সৎ ব্যক্তিদের সম্মান জানানো”-জন্য প্ল্যাটফর্মের সূচনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী; করকাঠামোকে করতে হবে মসৃণ, সমস্যাবিহীন, স্বয়ংক্রিয় প্রধানমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে “ স্বচ্ছ কর ব্যবস্থা ౼সৎ ব্যক্তিদের সম্মান জানানো”-র জন্য একটি প্ল্যাটফর্মের সূচনা করেছেন। এই উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, দেশে গঠনমূলক সংস্কার এখন নতুন উচ্চতায় পৌছেছে। তিনি বলেছেন, একবিংশ শতাব্দীর কর ব্যবস্থার সঙ্গে সাযুজ্য রেখে “ স্বচ্ছ কর ব্যবস্থা ౼ সৎব্যক্তিদের সম্মান জানানো”-র জন্য প্ল্যাটফর্ম তৈরি করা হয়েছে। এই প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে মূল্যায়ন ও আবেদন এবং করদাতাদের সনদ অনুযায়ী সংস্কার সম্ভব হবে। শ্রী মোদী আরও জানিয়েছেন,স্বয়ংক্রিয় আবেদন এবং করদাতাদের সনদের বিষয়টি আজ থেকে কার্যকর হয়েছে। দেশ জুড়ে স্বয়ংক্রিয় মূল্যায়নের সুবিধে নাগরিকরা দীন দয়াল উপাধ্যায়ের জন্মদিন౼২৫শে সেপ্টেম্বর থেকে পাবেন।স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থাপনার জন্য করদাতাদের মধ্যে আস্থা বাড়বে এবং তাঁরা দুশ্চিন্তামুক্ত হবেন।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1645472 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

স্বচ্ছ কর ব্যবস্থা – সৎ করদাতাদের সম্মান শীর্ষ প্ল্যাটফর্মের সূচনা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের মূল অংশ
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1645454 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।
জৈব চাষের সঙ্গে যুক্ত কৃষকদের সংখ্যার দিক থেকে ভারত প্রথম স্থানে এবং জৈব কৃষি কাজের এলাকার দিক থেকে নবম স্থানে রয়েছে
কেবল ভারতেই নয়, বরং সারা বিশ্বে চাহিদা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে জৈব পদ্ধতিতে কৃষি কাজের ক্রমাগত অগ্রগতি হচ্ছে। কোভিড মহামারীর দরুণ তিক্ততাপূর্ণ এই বিশ্বে স্বাস্থ্যকর ও সুরক্ষিত খাবারের চাহিদা ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী। তাই, বর্তমান পরিস্থিতি ভারতীয় কৃষক, গ্রাহক এবং সর্বোপরি পরিবেশগত দিক থেকে এক অনুকূল বাতাবরণ গড়ে তুলেছে। জৈব পদ্ধতিতে কৃষি কাজের সঙ্গে যুক্ত কৃষকদের সংখ্যার দিক থেকে ভারত বিশ্বের প্রথম স্থানে এবং কৃষি কাজের এলাকার দিক থেকে নবম স্থান অর্জন করেছে। সিকিম জৈব পদ্ধতিতে কৃষি কাজের দিক থেকে দেশ ও বিদেশের প্রথম রাজ্য হয়ে উঠেছে। একইভাবে, ত্রিপুরা ও উত্তরাখন্ডের মতো আরও কয়েকটি রাজ্য একই ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। উত্তর-পূর্ব ভারতে জৈব পদ্ধতিতে চাষাবাদের সুপ্রাচীন ঐতিহ্য রয়েছে এবং দেশের বাকি অঞ্চলের তুলনায় এই অঞ্চলে খাদ্যভাসে রাসায়নিক সামগ্রী মিশ্রণের হার তুলনামূলক কম।
বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1645497 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 



পিআইবি’আঞ্চলিক কার্যালয় থেকে প্রাপ্ত তথ্য

মহারাষ্ট্র : রাজ্যে গতকাল আরও ১২ হাজার ৭১২ জনের সংক্রমণের খবর মেলায় নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষ ৪৭ হাজার ছাড়িয়েছে। সুস্থ হয়েছেন ৩ লক্ষ ৮১ হাজারেরও বেশি। মৃত্যু হয়েছে ১৮ হাজার ৬৫০ জনের। এদিকে ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন মহারাষ্ট্র সরকারকে কোভিড-১৯ হাসপাতালগুলিতে মাশুল সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি পর্যালোচনার আর্জি জানিয়েছে।

গোয়া : রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, দেশের মধ্যে এই রাজ্যেই নমুনা পরীক্ষার হার সবচেয়ে বেশি হওয়ার দরুণ কোভিড-১৯ এ আক্রান্তের সংখ্যাও তুলনামূলক বেশি। রাজ্যে প্রতি ১০ লক্ষ জনসংখ্যায় ৯০ হাজার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। আজ পর্যন্ত গোয়ায় নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩ হাজার ১৯৪।

রাজস্থান : রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিষেবা ব্যবস্থার মানোন্নয়নে সরকার ১ হাজার ৩০০টি নতুন ভেন্টিলেটর সংগ্রহের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। রাজ্যে নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৩ হাজার ৬৩০।

ছত্তিশগড় : রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ডঃ রমন সিং – এর স্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৩ হাজার ৪৯৮।

কেরল : করোনায় আরও ২ জনের মৃত্যুর খবর মেলায় রাজ্যে মারণ এই ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১২৮। তিরুবনন্তপুরম কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারের ৪১ জন কারাবন্দীর নমুনা পরীক্ষায় আজ ভাইরাসের উপস্থিতির প্রমাণ মিলেছে। এদিকে ১৩ হাজার ৪৫ জন রোগীর চিকিৎসা চলছে এবং ১ লক্ষ ৫১ হাজার ব্যক্তি নজরদারির আওতায় রয়েছেন।

তামিলনাডু : কেন্দ্রশাসিত পন্ডিচেরীতে আরও ৬ জনের মৃত্যুর খবর মেলায় করোনায় মৃতের সংখ্যা ১০০ ছাড়িয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা ৬ হাজার ৬৮০। আজ পর্যন্ত নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৭৫০ জন। এদিকে তামিলনাডু সরকার জটিল কোভিড-১৯ পরিস্থিতির দরুণ বিনায়ক চতুর্থী শোভাযাত্রা বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। রাজ্যে গতকাল আরও ১১৯ জনের মৃত্যুর খবর মেলায় করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫ হাজার ২৭৮ হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লক্ষ ১৪ হাজার ছাড়িয়েছে। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৫৩ হাজার। সুস্থ হয়েছেন ২ লক্ষ ৫৬ হাজারেরও বেশি।

কর্ণাটক : ব্যাঙ্গালোর শহরে নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের হার জুলাই মাসের ২৪ শতাংশ থেকে কমে অগাস্টে ১৮ শতাংশ হয়েছে। এদিকে রাজ্যে গতকাল এ যাবৎ একদিনেই সর্বাধিক ৭ হাজার ৮৮২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর ফলে, আক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষ ৯৬ হাজার ছাড়িয়েছে। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮০ হাজার ৩৪৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৫১০ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লক্ষ ১২ হাজারেরও বেশি।

অন্ধ্রপ্রদেশ : আগাম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসাবে সাধারণ মানুষের সহায়তার জন্য রাজ্য সরকার করোনা ভাইরাস হেল্পলাইন সেন্টার চালু করেছে। এই সেন্টারগুলি থেকে টেলিমেডিসিন পরিষেবা পাওয়া যাবে। এদিকে রাজ্যে মহরম উৎসবের জন্য নীতি-নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। রাজ্যে গতকাল আরও ৯৩ জনের মৃত্যুর খবর মেলায় করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২ হাজার ২৯৬ হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা ২ লক্ষ ৫৪ হাজার ছাড়িয়েছে। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯০ হাজার ৪২৫। সুস্থ হয়েছেন ১ লক্ষ ৬১ হাজারেরও বেশি।

তেলেঙ্গানা : হায়দরাবাদ-ভিত্তিক জেনেরিক ওষুধ নির্মাতা সংস্থা এমএসএন গ্রুপের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, অ্যান্টি ভাইরাল ড্রাগ ফ্যাভিপিরাভির – এর সুলভে বিপণন প্রক্রিয়া শীঘ্রই শুরু হবে। এই ওষুধটি স্বল্প ও মাঝারি লক্ষণবিশিষ্ট কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের উপশমের জন্য ফ্যাবিলো ব্র্যান্ড নামে বাজারে বিপণন করা হবে। এদিকে রাজ্যে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ১১ জনের মৃত্যুর খবর মেলায় রাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬৬৫ হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা ৮৬ হাজার ৪০০ ছাড়িয়েছে। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২২ হাজার ৭৩৬ জন এবং আরোগ্যলাভ করেছেন ৬৩ হাজার ৭৪ জন।

অরুণাচল প্রদেশ : রাজ্যে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ১০৩ জনের সংক্রমণের খবর মেলায় নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৭৬৮ হয়েছে। এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৬৫৯ জন।

আসাম : রাজ্যে গত ২৪ ঘন্টায় ১ লক্ষ ৪৩ হাজারেরও বেশি কোভিড-১৯ নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর ফলে, মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা বেড়ে ১৫ লক্ষ ৭৩ হাজার ৮০০ হয়েছে।

মণিপুর : রাজ্যে ৪১ জনের সংক্রমণ এবং ৭৮ জনের আরোগ্য লাভের খবর মিলেছে। করোনায় সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৫৬ শতাংশ। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ৭৩৯।

মিজোরাম : রাজ্যে আজ আরও ১৩ জনের সুস্থ হওয়ার খবর মিলেছে। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০৬ এবং এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৩৪৩ জন। এদিকে রাজ্য সরকার নমুনা পরীক্ষার হার বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই কাজে ১০ হাজার আরএটি কিট সংগ্রহ করা হবে।

নাগাল্যান্ড : রাজ্যের ডিমাপুর শহরাঞ্চলীয় পরিষদ ২৩ ওয়ার্ডের সর্বত্রই ফেডারেশন সদস্যদের সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, তারা যেন করোনা যুদ্ধে অগ্রভাগে থাকা কর্মীদের কোনোভাবেই হেনস্থা বা নিশানা না করেন।

সিকিম : রাজ্যে আজ কেবল ২ জনের নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের খবর মিলেছে। আজ পর্যন্ত নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩৪৯। সুস্থ হয়েছেন ৫৮১ জন।

 

 

CG/BD/SB



(Release ID: 1645623) Visitor Counter : 6