PIB Headquarters

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত পিআইবি’র প্রাত্যহিক সংবাদ

Posted On: 27 MAY 2020 6:15PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ২৭ মে, ২০২০

 

 

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের সর্বশেষ তথ্য; সুস্থতার হার বেড়ে ৪২.৪ শতাংশ; গতকাল ১ লক্ষ ১৬ হাজার ৪১টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে

দেশ জুড়ে লকডাউনের ফলে একাধিক সুফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হ’ল – ভাইরাস সংক্রমণজনিত অসুখ ছড়িয়ে পড়ার গতি হ্রাস পাওয়া। একই সঙ্গে, লকডাউনের সময় কোভিড-১৯ সংক্রান্ত স্বাস্থ্য পরিকাঠামোয় উন্নতি; মানবসম্পদের দক্ষতা বৃদ্ধি; নমুনা পরীক্ষার হার বৃদ্ধি; প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরঞ্জাম অক্সিজেন ও অন্যান্য জিনিসপত্রের সরবরাহ বৃদ্ধি; প্রয়োজনীয় নীতি-নির্দেশিকা জারি, আদর্শ পরিচালন বিধি প্রণয়ন, রাজ্যগুলিতে পাঠানো, সেগুলি কার্যকর করা; চিকিৎসা সংক্রান্ত ওষুধপত্রের পরীক্ষা-নিরীক্ষা, টিকা উদ্ভাবনমূলক গবেষণাধর্মী কাজকর্মে গতি সঞ্চার সহ বাড়ি বাড়ি গিয়ে নজরদারি, আক্রান্তদের চিহ্নিতকরণ এবং আরোগ্য সেতু অ্যাপ চালু করার মতো পদক্ষেপগুলির সুফল মিলেছে।

দেশে ৪৩৫টি সরকারি এবং ১৮৯টি বেসরকারি নমুনা পরীক্ষাগারের মাধ্যমে পরীক্ষার হার উল্লেখযোগ্যভাবে বেড়েছে। এখনও পর্যন্ত কোভিড-১৯ এর ৩২ লক্ষ ৪২ হাজারেরও বেশি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। কেবল গতকালই নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১ লক্ষ ১৬ হাজারেরও বেশি। দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ লক্ষ ৫১ হাজার ৭৬৭। এদের মধ্যে ৬৪ হাজার ৪২৬ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এর ফলে, সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৪২.৪ শতাংশ। দেশে যেখানে করোনায় মৃত্যু হার ২.৮৬ শতাংশ, সেখানে বিশ্বে গড় মৃত্যু হার ৬.৩৬ শতাংশ।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের পক্ষ থেকে প্রজনন, মাতৃত্বকালীন, নবজাতক, শিশু, বয়ঃসন্ধিকালীন স্বাস্থ্য সহ পুষ্টি পরিষেবা সম্পর্কে কোভিড-১৯ মহামারী পরবর্তী সময়ে নতুন নীতি-নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1627179 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

আরোগ্য সেতু অ্যাপ এখন সার্বজনীন

কোভিড-১৯ সংক্রমণ প্রতিরোধে গৃহীত প্রয়াসগুলিকে আরও জোরদার করতে কেন্দ্রীয় সরকার গত দোসরা এপ্রিল আরোগ্য সেতু মোবাইল অ্যাপ সূচনা করেন। উদ্দেশ্য ছিল, ব্লুটুথ ব্যবস্থার মাধ্যমে সম্ভাব্য আক্রান্তদের হদিশ পাওয়া, সংক্রমণের উৎস কেন্দ্রগুলির মানচিত্র নির্মাণ এবং কোভিড-১৯ সম্পর্কিত প্রাসঙ্গিক তথ্য ছড়িয়ে দেওয়া। আজ পর্যন্ত ১১ কোটি ৪০ লক্ষেরও বেশি ব্যবহারকারী এই অ্যাপ ডাউন লোড করেছেন। বর্তমানে বিশ্বে যে ক’টি কন্ট্যাক্ট ট্রেসিং অ্যাপ চালু রয়েছে, তার মধ্যে আরোগ্য সেতু অ্যাপটি সবচেয়ে বেশি ডাউনলোড করা হয়েছে। দেশে ১২টি ভাষায় এই মোবাইল অ্যাপ অ্যান্ড্রয়েড, আইওএস প্রভৃতি প্ল্যাটফর্ম থেকে ডাউন লোড করা যাচ্ছে। নবীন প্রজন্মের যুবক-যুবতীরা এর মধ্যেই এই অ্যাপকে বডিগার্ড বা দেহরক্ষী হিসাবে গণ্য করছেন। এই অ্যাপ ব্যবহারকারীদের গোপনীয়তা ও সুরক্ষা বজায় রাখার পাশাপাশি, ভারতের ওপেন সোর্স সফট্ওয়্যার বা সর্বজনীন সফট্ওয়্যারের সহজেই নাগাল পাওয়ার যে নীতি রয়েছে, তার সঙ্গে সঙ্গতি রেখেই আরোগ্য সেতুর সোর্স কোডটিকে সর্বজনীন করা হয়েছে। এই মোবাইল অ্যাপটি ইতিমধ্যেই অ্যান্ড্রয়েড ভার্সনে সর্বজনীন করা হয়েছে এবং খুব শীঘ্রই আইওএস ভার্সনেও সর্বজনীন করা হবে। অবশ্য, আরোগ্য সেতু অ্যাপ –এর ৯৮ শতাংশ ব্যবহারকারী অ্যান্ড্রয়েড প্ল্যাটফর্ম ব্যবহাত করে থাকেন। আরোগ্য সেতুর সোর্স কোড এ ধরনের অ্যাপ উদ্ভাবনকারীদের জন্য সর্বজনীন করে দেওয়ার মাধ্যমে ভারতের ওপেন সোর্স সফট্ওয়্যারের যে নীতি রয়েছে, তার অঙ্গীকারের বিষয়টিকেই প্রতিফলিত করে। উল্লেখ করা যেতে পারে, আরোগ্য সেতু অ্যাপের উদ্ভাবন সরকার, শিল্প সংস্থা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সাধারণ নাগরিকের মধ্যে সহযোগিতার এক অনন্য উদাহরণ। এই অ্যাপ উদ্ভাবনের মাধ্যমে দেশের মেধাবী তরুণ প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের দিবারাত্রি কঠোর পরিশ্রমের সুফল মিলেছে। জনসমক্ষে এই অ্যাপটির সোর্স কোড সর্বজনীন করার ফলে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে মেধাবী যুবকদের সহযোগিতা ও সমন্বয় আরও বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1626979 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

কাতারের আমীরের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর টেলিফোনে কথা

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী টেলিফোনে কাতারের আমীর শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির সঙ্গে কথা বলেন। শ্রী মোদী তাঁকে এবং কাতারের বন্ধু মনোভাবাপন্ন মানুষকে ঈদ-উপ-ফিতরের শুভেচ্ছা জানান। প্রধানমন্ত্রী শ্রী মোদী কোভিড-১৯ মহামারীর সময় কাতারে ভারতীয় নাগরিকদের কল্যাণে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ব্যক্তিগতভাবে উদ্যোগী হওয়ায় সেদেশের আমীরকে ধন্যবাদ দেন। সেদেশের আমীর ভারতীয় সম্প্রদায়, বিশেষ করে ভারতীয় স্বাস্থ্য কর্মীরা বর্তমান জটিল পরিস্থিতিতে যে ভূমিকা পালন করেছেন, তার ভুয়সী প্রশংসা করেন।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1626974 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

প্রধানমন্ত্রী শ্রী মোদীর সঙ্গে মিশরের রাষ্ট্রপতির টেলিফোনে কথা

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী টেলিফোনে মিশরের রাষ্ট্রপতি আব্দেল ফতেহ আল সিসি-র সঙ্গে কথা বলে তাঁকে এবং সেদেশের মানুষকে ঈদ-উল-ফিতরের শুভেচ্ছা জানান। এই শুভেচ্ছা গ্রহণ করে সেদেশের রাষ্ট্রপতি মিশর ও ভারতকে বিশ্বের সবচেয়ে প্রাচীন মানবসভ্যতা হিসাবে বর্ণনা করেন। তিনি দু’দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের দ্রুত অগ্রগতিতে সন্তোষ প্রকাশ করেন। প্রধানমন্ত্রী শ্রী মোদী সেদেশে বর্তমান কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে ভারতীয় নাগরিকদের সুরক্ষা ও কল্যাণে মিশর কর্তৃপক্ষগুলি যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে, তার প্রশংসা করেন।চলতি বছরে তাঁর মিশর সফরের পরিকল্পনার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শ্রী মোদী বলেন, কোভিড-১৯ পরিস্থিতির কারণে এই সফর স্থগিত হয়ে গেলেও রাষ্ট্রপতি সিসি-র সঙ্গে যত দ্রুত সম্ভব তাঁর সাক্ষাৎ হবে বলে শ্রী মোদী ইচ্ছা প্রকাশ করেন।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1626970 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে টেলিফোনে অস্ট্রিয়ার রাষ্ট্রপতি ডঃ আলেকজান্ডার ভান দের ব্যালেনের কথা

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আজ টেলিফোনে অস্ট্রিয়ার রাষ্ট্রপতি ডঃ আলেকজান্ডার বান দের ব্যালেনের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেন। ঘূর্ণিঝড় আমফানে ভারতে জীবনহানি ও সম্পত্তির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতিতে অস্ট্রিয়ার রাষ্ট্রপতি শোক প্রকাশ করেন। কোভিড-১৯ মহামারির প্রেক্ষিতে দুই নেতা স্বাস্থ্য ও আর্থিক ক্ষেত্রে বিরূপ প্রভাবগুলি মোকাবিলায় গৃহীত পদক্ষেপগুলি নিয়েও মতবিনিময় করেন।বর্তমান চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক সহযোগিতা গড়ে তোলার ওপর দুই নেতাই জোর দেন। কোভিড পরবর্তী বিশ্বে ভারত – অস্ট্রিয়ার সম্পর্ককে আরও নিবিড় ও প্রশস্ত করার ব্যাপারে উভয় নেতাই গভীর আগ্রহ প্রকাশ করেন। শ্রী মোদী দুই দেশের মধ্যে পরিকাঠামো, প্রযুক্তি, গবেষণা, উদ্ভাবন প্রভৃতি ক্ষেত্রে সহযোগিতা আরও বাড়ানোর সুযোগ-সুবিধার কথা উল্লেখ করেন।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1626968 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলির পড়ুয়াদের জন্য গুণগতমানের শিক্ষা ও উন্নত শিক্ষা পরিকাঠামো গড়ে তুলতে সরকার অঙ্গীকারবদ্ধ : কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী

কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী শ্রী রমেশ পোখরিয়াল ‘নিশাঙ্ক’ বলেছেন, সরকার সারা দেশেই, বিশেষ করে উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলির ছাত্রছাত্রীদের কাছে গুণমানের শিক্ষা ব্যবস্থা ও উন্নত পরিকাঠামো পৌঁছে দিতে অঙ্গীকারবদ্ধ। তিনি জানান, এই প্রেক্ষিতে সরকার একাধিক গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ইতিমধ্যেই সিকিমের ইয়ংইয়ং – এ সিকিম বিশ্ববিদ্যালয়ের (কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়) স্থায়ী ক্যাম্পাস নির্মাণে অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এজন্য খরচ ধরা হয়েছে ৯৮৬ কোটি ৪৭ লক্ষ টাকা। এই বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলার জন্য সিকিম সরকার ১৫ কোটি টাকার বিনিময়ে ৩০০ একর জমি বরাদ্দ করেছে। এর মধ্যে প্রায় ২৬৬ একর জমি ইতিমধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। বাকি জমি হস্তান্তরের কাজ চলছে।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1626950 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ডঃ জিতেন্দ্র সিং জম্মু ও কাশ্মীরের কোভিড-১৯ সংক্রান্ত বর্তমান পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেছেন

কেন্দ্রশাসিত এই অঞ্চলে বিপুল সংখ্যায় প্রবাসীদের ফিরে আসার প্রেক্ষিতে এবং আক্রান্তের সংখ্যা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাওয়ায় কোভিড-১৯ সংক্রান্ত বর্তমান পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেছেন ডঃ জিতেন্দ্র সিং।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1627177 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসার কাজে যুক্ত চিকিৎসক ও অন্যান্য স্বাস্থ্য কর্মীদের দুপুরের খাবার সরবরাহ করবে পাওয়ার ফিনান্স কর্পোরেশন লিমিটেড

কেন্দ্রীয় বিদ্যুৎ মন্ত্রকের রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা পাওয়ার ফিনান্স কর্পোরেশন লিমিটেড নতুন দিল্লির ডঃ রামমনোহর লোহিয়া হাসপাতালে কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসার কাজে যুক্ত চিকিৎসক ও অন্যান্য স্বাস্থ্য কর্মীদের পুষ্টি সমৃদ্ধ ও স্বাস্থ্যকর খাবার সরবরাহের জন্য এশিয়ার বৃহত্তম খাদ্য সংস্থা তাজস্যাট প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1627186 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

কোভিড-১৯ মোকাবিলায় স্বাস্থ্য পরিচর্যা ক্ষেত্রে গবেষণা ও উন্নয়নমূলক উদ্যোগ গ্রহণ করবে সেন্ট্রাল ইন্সটিটিউট অফ প্ল্যাস্টিকস্‌ ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি

কোভিড-১৯ মহামারী মোকাবিলায় কেন্দ্রীয় রসায়ন ও সার মন্ত্রকের অধীন জাতীয় স্তরের গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান সেন্ট্রাল ইন্সটিটিউট অফ প্লাস্টিকস্‌ ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি (সিআইপিইটি) স্বাস্থ্য পরিচর্যা ক্ষেত্রে গবেষণা ও উন্নয়নমূলক কর্মসূচি গ্রহণ করতে চলেছে। এই কর্মসূচির আওতায় জাতীয় স্তরের এই অগ্রণী প্রতিষ্ঠানটি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং আইএসও-র নীতি-নির্দেশিকা মেনে পিপিই কিট ও অন্যান্য সামগ্রী তৈরি করবে। ক্যাবিনেট সচিবের নির্দেশের প্রেক্ষিতে সিআইপিইটি প্রতিষ্ঠানটি স্বাস্থ্য পরিচর্যা ক্ষেত্রে গবেষণা ও উন্নয়নমূলক কর্মসূচি গ্রহণের পরিকল্পনা নিয়েছে। সেই অনুসারে, এই প্রতিষ্ঠানের তিনটি শাখায় আইএসও এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নীতি-নির্দেশিকা মেনে পিপিই কিট ও অন্যান্য স্বাস্থ্য সুরক্ষার সামগ্রী উৎপাদন করা হবে। ইতিমধ্যেই এই প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে করোনা ভাইরাসের মোকাবিলায় স্বাস্থ্য কর্মী, কৃষক, শ্রমিক, পুলিশ কর্মী সহ অন্যান্য ক্ষেত্রের কর্মীদের স্বার্থে ফেস শিল্ড উদ্ভাবন করেছে। এই প্রতিষ্ঠানের জয়পুর, লক্ষ্ণৌ এবং মাদুরাই কেন্দ্রে ফেস শিল্ড উৎপাদনের কাজ চলছে।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1627131 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

এনসিএসটিসি হিন্দিতে জনপ্রিয় কোভিড কথা জনসাধারণের সচেতনতার জন্য প্রকাশ করেছে

কেন্দ্রীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি দপ্তরের অধীন ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি কম্যুনিকেশন (এনসিএসটিসি) জনপ্রিয় মাল্টি-মিডিয়া গাইড হিসাবে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্যাবলীর এক হিন্দি সংস্করণ ‘কোভিড কথা’ নামে প্রকাশ করেছে। উল্লেখ করা যেতে পারে, চলতি মাসের গোড়ার দিকে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত বিস্তারিত বিবরণ সম্বলিত ইংরাজী সংস্করণটি প্রকাশ করা হয়।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1627188 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

 

 

পিআইবি’র আঞ্চলিক কার্যালয় থেকে প্রাপ্ত তথ্য

 

· চন্ডীগড় : কেন্দ্রশাসিত এই অঞ্চলের প্রশাসক, পুর কর্মী, পুলিশ ও স্বাস্থ্য আধিকারিক সহ সমস্ত সরকারি কর্মীদের কর্মক্ষেত্রে কর্তব্য পালনের সময় সুরক্ষামূলক সামগ্রী, যেমন – ফেস মাস্ক, কভারঅল ব্যবহারের নির্দেশ দিয়েছেন। সংক্রামিত এলাকাগুলিতে পর্যাপ্ত পরিমাণে রেশন সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। বেসরকারি এবং স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলিকেও অত্যাবশ্যক সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার কাজে সামিল করতে বলেছেন।এদিকে তিনি পুর নিগমগুলির কমিশনারদের সংক্রামিত এলাকাগুলিতে নিয়মিত জীবাণু মুক্ত করার কাজ চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

 

· পাঞ্জাব : রাজ্য সরকার সমস্ত আন্তর্জাতিক ও অন্তর্দেশীয় বিমানযাত্রী, রেল ও সড়কপথে যাতায়াতকারীদের জন্য সুসংবদ্ধ নীতি-নির্দেশিকা জারি করেছে। রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ভাইরাস দমন প্রতিরোধে ব্যাপক নমুনা পরীক্ষা, আক্রান্তদের খুঁজে বের করা এবং আইসোলেশনের নির্দেশ দিয়েছেন।

 

· হরিয়ানা : রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কোভিড-১৯ মহামারী মোকাবিলায় সাধারণ মানুষের ধৈর্য্য ও সমর্থনের পাশাপাশি, রাজ্য সরকারের কার্যকর পদক্ষেপগুলির যথাযথ রূপায়ণের প্রশংসা করেছে।

 

· হিমাচল প্রদেশ : কোভিড-১৯ মহামারীর প্রেক্ষিতে রাজ্যে গত ২৪শে মার্চ থেকে কার্ফিউ বলবৎ রয়েছে। রাজ্য মন্ত্রিসভার গত ২৩শে মে অনুষ্ঠিত বৈঠকে জেলাশাসকদের স্থানীয় এলাকার পরিস্থিতি মূল্যায়ন করে ১৪৪ ধারা আওতায় আগামী ৩০শে জুন পর্যন্ত কার্ফিউ জারি করার নির্দেশ দিয়েছে।

 

· কেরল : প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের খরচ মেটানোর ব্যাপারে রাজ্য সরকার চিন্তাভাবনা করছে। সাধারণ মানুষ লকডাউন নিষেধাজ্ঞায় সাময়িকভাবে প্রদেয় শিথিলতাগুলি অপব্যবহার করছেন বলে জানা গেছে।

 

· তামিলনাডু : রাজ্য সরকার ৪৭ হাজারেরও বেশি কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য ১৫ হাজার ১২৮ কোটি টাকার ১৭টি বিনিয়োগ চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। রাজ্যে গতকাল পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ হাজার ৭২৮। মৃত্যু হয়েছে ১২৭ জনের।

 

· অন্ধ্রপ্রদেশ : লকডাউন সম্পর্কিত নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘনের প্রেক্ষিতে বিরোধী দলনেতা চন্দ্রবাবু নাইডু হাইকোর্টে যে পিটিশন দাখিল করেছেন, তার প্রেক্ষিতে আদালত তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। রাজ্যে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২ হাজার ৭৮৭ হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ৫৮ জনের।

 

· মহারাষ্ট্র : রাজ্যে ২ হাজার ৯১ জন নতুন করে আক্রান্ত হওয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫৪ হাজার ৭৫৮। কেবল মুম্বাইয়েই আক্রান্ত হয়েছেন ৩২ হাজার ৭৯১ জন। রাজ্যে কোভিড-১৯ এ আক্রান্তের দ্বিগুণ হওয়ার হার বেড়ে হয়েছে ১৪ দিন। একইভাবে, মৃত্যু হার কমে হয়েছে ৩.২ শতাংশ।

 

· গুজরাট : রাজ্যের প্রায় ১৯টি জেলা থেকে আরও ৩৬১ জনের আক্রান্তের খবর মিলেছে। এর ফলে, আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৪ হাজার ৮২৯। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬ হাজার ৭৭৭ জন।

 

 

 

CG/BD/SB



(Release ID: 1627320) Visitor Counter : 26