মন্ত্রিসভারঅর্থনৈতিকবিষয়সংক্রান্তকমিটি
azadi ka amrit mahotsav

মেসার্স চেনাব ভ্যালি পাওয়ার প্রজেক্টস প্রাইভেট লিমিটেডের মাধ্যমে ৫৪০ মেগাওয়াটের কোয়ার জলবিদ্যুৎ প্রকল্প নির্মাণের অনুমোদন দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা

এই প্রকল্প থেকে ১৯৭ কোটি ৫০ লক্ষ ইউনিট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে বলে আশা করা হচ্ছে

৫৪ মাসের মধ্যে এই প্রকল্পের কাজ শেষ হবে

প্রকল্পের নির্মাণে সরাসরি ২ হাজার ৫০০ জনের কর্মসংস্থান হবে এবং সার্বিকভাবে জম্মু-কাশ্মীরের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন হবে

Posted On: 27 APR 2022 5:01PM by PIB Kolkata
নতুন দিল্লি, ২৭ এপ্রিল, ২০২২
 
প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর পৌরোহিত্যে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত কমিটি আজ জম্মু-কাশ্মীরের কিস্টওয়ার জেলায় চন্দ্রভাগা নদীর উপর ৫৪০ মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন কোয়ার জলবিদ্যুৎ প্রকল্প নির্মাণে ৪৫২৬.১২ কোটি টাকার বিনিয়োগ প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে। প্রকল্প নির্মাণের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে মেসার্স চেনাব ভ্যালি পাওয়ার প্রজেক্টস প্রাইভেট লিমিটেডকে। এটি জাতীয় জলবিদ্যুৎ শক্তি নিগম (ন্যাশনাল হাইড্রো ইলেক্ট্রিক পাওয়ার কর্পোরেশন - এনএইচপিসি) এবং জম্মু কাশ্মীর রাজ্য বিদ্যুৎ উন্নয়ন নিগম লিমিটেডের (জম্মু অ্যান্ড কাশ্মীর স্টেট পাওয়ার ডেভলপমেন্ট কর্পোরেশন লিমিটেড - জেকেএসপিডিসি) একটি যৌথ উদ্যোগ। এতে এনএইচপিসি-র ৫১ শতাংশ এবং জেকেএসপিডিসি-র ৪৯ শতাংশ মালিকানা রয়েছে।
 
সাধারণ বৃষ্টিপাতের ৯০ শতাংশ হলেই এই প্রকল্প থেকে বছরে ১৯৭ কোটি ৫০ লক্ষ ইউনিটেরও বেশি বিদ্যুৎ উৎপাদন করা যাবে বলে মনে করা হচ্ছে। 
 
ভারত সরকার এই প্রকল্পের পরিকাঠামো গড়ে তোলার জন্য ৬৯ কোটি ৮০ লক্ষ টাকা অনুদান দিচ্ছে। এছাড়া চেনাব ভ্যালি পাওয়ার প্রজেক্টস প্রাইভেট লিমিটেডের ৪৯ শতাংশ মালিকানা অর্জনের জন্য জম্মু-কাশ্মীরকে ৬৫৫.০৮ কোটি টাকা অনুদান দেওয়া হচ্ছে। এনএইচপিসি তার ৫১ শতাংশ মালিকানার জন্য ৬৮১.৮২ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে। এই অর্থ আসবে তার অভ্যন্তরীণ সম্পদ থেকে। এই প্রকল্পের কাজ ৫৪ মাসের মধ্যে শেষ হবে। এই প্রকল্প থেকে উৎপাদিত বিদ্যুৎ, গ্রিডের ভারসাম্য বজায় রাখতে এবং জম্মু-কাশ্মীরের বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থার উন্নয়নে কাজে লাগবে। 
 
জম্মু-কাশ্মীর সরকার এই প্রকল্পটিকে লাভজনক করে তুলতে প্রকল্প চালুর পর ১০ বছর জল ব্যবহারের মাশুল মকুব করেছে। এছাড়া জিএসটি-তে রাজ্যের অংশ সরকার দিয়ে দেবে এবং প্রতি বছর ২ শতাংশ হারে বিনামূল্যে বিদ্যুৎ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে অর্থাৎ প্রকল্প চালু হওয়ার পর প্রথম বছর ২ শতাংশ বিদ্যুৎ বিনামূল্যে পাওয়া যাবে। প্রতি বছর এটি ২ শতাংশ করে বাড়বে। ষষ্ঠ বছর থেকে এর হার হবে ১২ শতাংশ। 
 
এই প্রকল্পের ফলে প্রায় ২ হাজার ৫০০ জনের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কর্মসংস্থান হবে। জম্মু-কাশ্মীরের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সহায়ক হবে এই প্রকল্প। এছাড়া প্রকল্পের ৪০ বছরের জীবনচক্রে ৪৫৪৮.৫৯ টাকার বিদ্যুৎ বিনামূল্যে পাওয়া যাবে। জল ব্যবহারের মাশুল হিসেবে পাওয়া যাবে ৪৯৪১.৪৬ কোটি টাকা।
 
CG/SD/SKD/


(Release ID: 1820755) Visitor Counter : 37