প্রধানমন্ত্রীরদপ্তর

প্রধানমন্ত্রী বারাণসীর দেব দীপাবলি মহোৎসবে অংশগ্রহণ করেছেন

মা অন্নপূর্ণার হারিয়ে যাওয়া মূর্তি ফিরে পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রী কাশীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন

গুরুনানক দেবজি সংস্কারের সবথেকে বড় প্রতীক ছিলেন : প্রধানমন্ত্রী

Posted On: 30 NOV 2020 7:27PM by PIB Kolkata
নয়াদিল্লি, ৩০ নভেম্বর, ২০২০
 
প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আজ বারাণসীতে দেব দীপাবলি মহোৎসবে অংশগ্রহণ করেছেন। এই উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, এটি কাশীর একটি বিশেষ আয়োজন। তিনি জানিয়েছেন, ১০০ বছরেরও বেশি সময় আগে কাশী থেকে খোয়া যাওয়া মা অন্নপূর্ণার মূর্তিটি আবার ফিরে এসেছে। এটি কাশীর জন্য সৌভাগ্যের বিষয়। তিনি বলেছেন যে, আমাদের দেব-দেবীদের প্রাচীন যুগের মূর্তি আমাদের বিশ্বাসের এবং অমূল্য ঐতিহ্যের প্রতীক। 
 
প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, এই উদ্যোগ যদি আগেই নেওয়া হত তাহলে দেশ অনেক আগে এই ধরনের মূর্তি ফিরে পেত। তিনি বলেছেন, দেশের ঐতিহ্য আমাদের জন্মগত অধিকার। তবে কয়েকজনের কাছে দেশের ঐতিহ্য মানে তাঁদের পরিবার আর পরিবারের নাম। কিন্তু আমাদের কাছে আমাদের সংস্কৃতি, বিশ্বাস ও মূল্যবোধই হল আমাদের ঐতিহ্য। অন্যদের কাছে তাঁদের মূর্তি এবং পারিবারিক ছবিই ঐতিহ্য। 
 
প্রধানমন্ত্রী গুরুনানক দেবজির প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বলেছেন, সমাজ ব্যবস্থার সংস্কারের তিনি বড় প্রতীক। সমাজে এবং জাতীয় স্বার্থে যে পরিবর্তনই আসুক না কেন, অনভিপ্রেত বিরোধিতা কোনও না কোনভাবে শুরু হয়। কিন্তু যখন সেই সংস্কারগুলি সকলের কাছে স্পষ্ট হয়, তখন সবকিছু আবার ঠিক হয়ে যায়। গুরুনানক দেবজির জীবনের থেকে আমরা এই শিক্ষাই পেয়েছি। 
 
প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, কাশীতে যখন উন্নয়নের কাজ শুরু হয়েছিল তখন নিছক বিরোধিতা করার জন্য প্রতিবাদকারীরা রাস্তায় নেমেছিলেন। কাশী যখন সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, বাবার দরবার পর্যন্ত বিশ্বনাথ করিডর তৈরি করা হবে, প্রতিবাদকারীরা তারও সমালোচনা করেছিলেন। কিন্তু আজ বাবার আশীর্বাদে কাশী তার হৃত গৌরব ফিরে পেয়েছে। শতাব্দী প্রাচীন বাবার দরবার থেকে মা গঙ্গার সরাসরি যোগাযোগ পুনঃপ্রতিষ্ঠিত হয়েছে। 
 
বাবা কাশী বিশ্বনাথের আশীর্বাদে তিনি কাশীতে আলোর উৎসবে অংশ নেওয়ার সুযোগ পাওয়ায় নিজেকে ধন্য মনে করেছেন। শ্রী মোদী প্রাচীন এই শহরের গৌরবের কথা উল্লেখ করে বলেছেন, যুগ যুগ ধরে কাশী সারা পৃথিবীকে পথ দেখিয়েছে। করোনার নিষেধাজ্ঞার কারণে তিনি এই শহরে ঘন ঘন আসতে পারেননি, যেটি তাঁর সংসদীয় ক্ষেত্রও বটে। কিন্তু এই অভাব তিনি খুবই অনুভব করেছেন। তিনি বলেছেন, এই সময়ে জনসাধারণের থেকে তিনি দূরে ছিলেন না এবং মহামারীর সময়ে কি কি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে সেদিকে তাঁর নজর ছিল। মহামারীর এই সময়ে কাশীর জনসাধারণ মানুষকে সাহায্য করার যে উদ্যোগ নিয়েছিলেন, তিনি তার প্রশংসা করেছেন। 
 
***
 
 
CG/CB/DM


(Release ID: 1677277) Visitor Counter : 24