স্বাস্থ্যওপরিবারকল্যাণমন্ত্রক

ভারতে পরপর দু’দিন দৈনিক-ভিত্তিতে করোনায় নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ হাজার; দৈনিক সুস্থতার সংখ্যা গত দেড় মাস যাবৎ আক্রান্তের সংখ্যার তুলনায় বেশি

Posted On: 17 NOV 2020 11:27AM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ১৭ নভেম্বর,  ২০২০

 

ভারতে পরপর দু’দিন দৈনিক-ভিত্তিতে করোনায় নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৩০ হাজারে সীমিত রয়েছে। দেশে গত ২৪ ঘন্টায় ২৯ হাজার ১৬৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এমনকি, দেশে গত ১০ দিনে নিরবচ্ছিন্নভাবে দৈনিক-ভিত্তিতে আক্রান্তের নতুন ঘটনা ৫০ হাজারেরও কম। 

কোভিড আদর্শ আচরণ ব্যাপকভাবে মেনে চলার দরুণ দেশে আক্রান্তের সংখ্যা হ্রাস পেলেও আমেরিকা ও ইউরোপের বহু দেশে এই সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে।

দৈনিক-ভিত্তিতে সুস্থতার সংখ্যা ক্রমশ কমে গত ২৪ ঘন্টায় ৪০ হাজার ৭৯১ এ রয়েছে। অন্যদিকে, আক্রান্তের ঘটনা ঘটেছে ২৯ হাজার ১৬৩। 

অধিক সংখ্যায় নমুনা পরীক্ষার হার দেশে অব্যাহত রয়েছে। সরকারি ও বেসরকারি ক্ষেত্রের প্রচেষ্টার ফলে আজ নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা ১২ কোটি ৬৫ লক্ষ ৪২ হাজার ৯০৭ এ পৌঁছেছে। একইভাবে, আক্রান্তের হারও কমে হয়েছে ৭.০১ শতাংশে। 

দেশে সুস্পষ্টভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বর্তমানে ৪ লক্ষ ৫৩ হাজার ৪০১, যা মোট আক্রান্তের কেবল ৫.১১ শতাংশ। দেশে আজ সুস্থতার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮২ লক্ষ ৯০ হাজার ৩৭০ এ। একই সঙ্গে, সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৯৩.৪২ শতাংশ। 

গত ২৪ ঘন্টায় ১০টি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে সুস্থতার হার ৭২.৮৭ শতাংশ। কেরল থেকে সর্বাধিক ৬ হাজার ৫৬৭ জন আরোগ্য লাভ করেছেন। পশ্চিমবঙ্গ থেকে একদিনেই সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৩৭৬ জন। অন্যদিকে, দিল্লিতে সুস্থতার সংখ্যা ৩ হাজার ৫৬০। 

১০টি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে করোনায় নতুন করে আক্রান্তদের ৭৫.১৪ শতাংশই রয়েছেন। দিল্লি থেকে সর্বাধিক ৩ হাজার ৭৯৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। পশ্চিমবঙ্গ থেকে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ হাজার ১২। কেরল থেকে আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৭১০ জন। 

দেশে গত ২৪ ঘন্টায় ৪৪৯ জনের করোনাজনিত কারণে মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ৭৮.৪০ শতাংশই মারা গেছেন ১০টি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল থেকে। দিল্লি থেকে সর্বাধিক ৯৯ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। মহারাষ্ট্র থেকে মারা গেছেন ৬০ জন এবং পশ্চিমবঙ্গে আরও ৫৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। 

***

 

CG/BD/SB



(Release ID: 1673414) Visitor Counter : 209