প্রধানমন্ত্রীরদপ্তর

প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল কৃষি পরিকাঠামো তহবিল থেকে পিএম কিষাণ যোজনার সুবিধাভোগীদের ঋণদানের সূচনা করবেন


১ লক্ষ কোটি টাকার কৃষি পরিকাঠামো তহবিল, ফসল পরবর্তী পরিচালন পরিকাঠামো তৈরী এবং যৌথভাবে কৃষিকাজের সহায়ক হবে

Posted On: 08 AUG 2020 1:18PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লী, ৮ আগস্ট, ২০২০

 



প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আগামীকাল, ৯ই আগস্ট বেলা ১১টার সময় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ১ লক্ষ কোটি টাকার কৃষি পরিকাঠামো তহবিল থেকে ঋণ দান প্রক্রিয়ার সূচনা করবেন। প্রধানমন্ত্রী ওই অনুষ্ঠানে পিএম কিষাণ প্রকল্পে ৮ কোটি ৫০ লক্ষ কৃষকের জন্য ১৭ হাজার কোটি টাকার ষষ্ঠ কিস্তির অর্থ তাঁদের অ্যাকাউন্টে পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু করবেন। দেশজুড়ে লক্ষ লক্ষ কৃষক, সমবায় সমিতির সদস্য এবং নাগরিকরা এই অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। কেন্দ্রীয় কৃষি ও কৃষক কল্যাণ মন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র সিং তোমর অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন। 


১ লক্ষ কোটি টাকার কৃষি পরিকাঠামো তহবিলের মাধ্যমে কেন্দ্রের ঋণদানের এই উদ্যোগটি কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভা অনুমোদন করেছে। ফসল পরবর্তী পরিচালন পরিকাঠামো তৈরী এবং যৌথভাবে কৃষিকাজের জন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ যেমন- হিমঘর, শস্য সংগ্রহ কেন্দ্র, খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ কেন্দ্রের মতো পরিকাঠামো গড়ে তুলতে এই তহবিল সাহায্য করবে। এই উদ্যোগের ফলে  কৃষকরা তাঁদের উৎপাদিত পণ্যের আরও ভালো দাম পাবেন, উৎপাদিত পণ্য মজুত করে রেখে প্রয়োজনে বেশি দামে সেগুলিকে বিক্রি করতে পারবেন, কৃষি পণ্যের অপচয় কমাতে পারবেন ও এগুলির যথাযথ মূল্য পাবেন। ১২টির মধ্যে ১১টি রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাঙ্ক ইতিমধ্যেই কৃষি ও কৃষক কল্যাণ দপ্তরের সঙ্গে একটি সমঝোতাপত্রে স্বাক্ষর করেছে। এরফলে এই ১ লক্ষ কোটি টাকার তহবিলের অর্থ  ব্যাঙ্কগুলির মাধ্যমে ঋণ  বাবদ  দেওয়া হবে। এই ঋণের সুদের ৩ শতাংশ সরকার ঋণগ্রহীতাদের ফেরত দিতে সাহায্য করবে এবং ২ কোটি টাকা পর্যন্ত মূলধনের গ্যারান্টার হবে। এর  মাধ্যমে এই প্রকল্পের কার্যকারিতা বৃদ্ধি পাবে। কৃষক, পণ্য বাজারজাত করার বিভিন্ন সমবায়-সমিতি, কৃষিকাজে ঋণ প্রদানকারী বিভিন্ন সংস্থা, কৃষিপণ্য উৎপাদক সংগঠন, স্বনির্ভর গোষ্ঠী, বহুমুখী সমবায় সমিতি, কৃষিভিত্তিক শিল্পোদ্যোগ সংস্থা, স্টার্ট আপ অর্থাৎ নতুন উদ্যোগ এবং সরকারি বেসরকারী অংশীদারিত্বে চলা বিভিন্ন প্রকল্প এই তহবিল থেকে উপকৃত হবে। 


প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধি যোজনা (পিএম-কিষাণ) প্রকল্পটি ২০১৮র পয়লা ডিসেম্বর সূচনা হয়েছিল। এর মাধ্যমে ৯ কোটি ৯০ লক্ষের বেশি কৃষক ৭৫ হাজার কোটি টাকার সরাসরি আর্থিক সুবিধা পেয়ে থাকেন। এরফলে কৃষকরা তাঁদের কৃষিকাজে এবং পরিবারের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থের সংস্থান করতে পারেন। পিএম কিষাণ প্রকল্পটি দ্রুত গতিতে বাস্তবায়িত হয়েছে। সুবিধাভোগীদের আধার সংযুক্তিকরণের ফলে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে তাঁদের অর্থ সরাসরি চলে যায়, যে কারণে অর্থের কোন অপচয় হয়না। কোভিড-১৯ মহামারীর সময় এই প্রকল্পে কৃষকরা প্রভূত উপকৃত হয়েছেন। লকডাউনের সময়ে কৃষকদের জন্য ২২ হাজার কোটি টাকা তাদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি পাঠানো হয়েছে। 

 



CG/CB/NS



(Release ID: 1644407) Visitor Counter : 207