প্রধানমন্ত্রীরদপ্তর

প্রধানমন্ত্রী, প্রযুক্তি বিশারদদের আত্মনির্ভর ভারত অ্যাপ ইনোভেশন চ্যালেঞ্জে অংশগ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন

Posted On: 04 JUL 2020 5:20PM by PIB Kolkata

নতুন দিল্লি, ০৪ঠা জুলাই, ২০২০

 



প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী, প্রযুক্তির সঙ্গে যুক্ত সকলকে আত্মনির্ভর ভারত অ্যাপ ইনোভেশন চ্যালেঞ্জে অংশগ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন।     


লিঙ্কডইন-এ একটি পোষ্টে প্রধানমন্ত্রী প্রযুক্তি এবং স্টার্টআপের গতিশীল সমন্বিত ব্যবস্থা এবং কিভাবে তরুণ প্রজন্ম বিভিন্ন ক্ষেত্রে সমস্যার সমাধান করছে, তার উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, স্টার্ট আপ এবং প্রযুক্তির সমন্বিত ব্যবস্থাপনায়, দেশে মোবাইল অ্যাপের উদ্ভাবন, তার বিকাশ এবং সেগুলিকে তুলে ধরার ব্যাপারে বিপুল উৎসাহের সঞ্চার হয়েছে। তিনি আরো বলেন, আত্মনির্ভর ভারত গঠনের লক্ষে নতুন নতুন অ্যাপ উদ্ভাবনের বিষয়টিকে দিশা দেখানো এবং সম্ভাবনা তৈরির একটি ভাল সুযোগ এসেছে, এর ফলে ভারতে তৈরি অ্যাপগুলি দেশের বাজারের পাশাপাশি সারা বিশ্বের সঙ্গে পাল্লা দিতে পারবে।


ভারতীয় মোবাইল অ্যাপগুলির স্বার্থে এক অনুকূল বাতাবরণ গড়ে তুলতে অটল ইনোভেশন মিশনের সঙ্গে সহযোগিতায় কেন্দ্রীয় বৈদ্যুতিন ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক 'ডিজিটাল ইন্ডিয়া আত্মনির্ভর ভারত অ্যাপ ইনোভেশন চ্যালেঞ্জে'এর সূচনা করেছে। এর দুটি দিক রয়েছে : বর্তমানে যে সমস্ত অ্যাপগুলি আছে, সেগুলিকে জনপ্রিয় করে তোলা ও নতুন নতুন অ্যাপ তৈরি করা। সুদূর প্রসারী ফলের আশায়  সরকার ও প্রযুক্তি বিশারদরা যৌথভাবে এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় কাজ করবে।

 


বর্তমানে চালু থাকা বিভিন্ন অ্যাপ এবং বৈদ্যুতিন পদ্ধতিতে পাঠদান, বাড়ি থেকে কাজ করা, বিভিন্ন গেম, ব্যবসা – বাণিজ্য, বিনোদন, অফিসের কাজ এবং সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং-ক্ষেত্রে সরকার পরামর্শ দেবে, সাহায্য দেবে এবং সহযোগিতা করবে। এরজন্য ২টি উপায় রয়েছে। প্রথমটি হল –লক্ষ্য মাত্রা স্থির করে লিডার-বোর্ডের জন্য ভালো মানের অ্যাপ দ্রুত চিহ্নিত করে, একমাসের মধ্যে সেগুলির উন্নয়ন ঘটানো। দ্বিতীয়টি হল-নতুন নতুন অ্যাপ এবং প্ল্যাটফর্ম তৈরি করা। এক্ষেত্রে ভারতেই নতুন চ্যাম্পিয়ান তৈরি করার জন্য নানা ধারণের পরিকল্পনা, নক্সা এবং বাজারজাতকরণের ক্ষেত্রে সাহায্য করা হবে।


লিঙ্কডইনের এই পোষ্টে প্রধানমন্ত্রী আরো লিখেছেন, এই চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করে  নির্ধারিত লক্ষ্যে পৌঁছনোর জন্য বর্তমানে যে অ্যাপগুলি রয়েছে, সেগুলির বিষয়ে সুস্পষ্ট ধারণা থাকা প্রয়োজন।এর ফলে প্রযুক্তি ক্ষেত্রে  বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে প্রয়োজনীয় পরামর্শ এবং সহায়তা দেওয়া যাবে ও এমনকিছু প্রযুক্তিগত সামগ্রী তৈরি করা সম্ভব হবে, যেগুলি আমাদের দৈনন্দিন জীবনে সহায়ক হয়ে উঠবে ।



প্রধানমন্ত্রী, এই প্রসঙ্গে তার বেশকিছু ভাবনা সকলের মধ্যে ভাগ করে নিয়ে প্রশ্ন তোলেন, আমাদের দেশের প্রচলিত খেলাধুলাকে আমরা কি অ্যাপের মাধ্যমে আরো জনপ্রিয় করে তুলতে পারি না? মানুষের দৈনন্দিন জীবনে বিভিন্ন মানসিক চাপ থেকে মুক্ত করার জন্য আমরা কি কিছু গেমের অ্যাপ তৈরি করতে পারি? বিভিন্ন বয়সীদের লেখাপড়া শেখা, খেলাধুলা সহ বিভিন্ন বিষয়ের জন্য আমরা কি অ্যাপ উদ্ভাবন করতে পারি না? তিনি সমস্ত প্রযুক্তি বিশারদ বন্ধুদেরকে এই উদ্যোগে সামিল হয়ে আত্মনির্ভর অ্যাপ ইকোসিস্টেম গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

 



CG/CB/SS/SFS



(Release ID: 1636581) Visitor Counter : 161