স্বাস্থ্যওপরিবারকল্যাণমন্ত্রক

কোভিড-১৯-এর বিষয়ে সর্বশেষ তথ্য

Posted On: 27 APR 2020 6:25PM by PIB Kolkata

নতুন দিল্লি, ২৭ এপ্রিল, ২০২০

 



প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আজ সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠক করেন। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী এই ভাইরাসের সংক্রমণের শৃঙ্খলা ভাঙার ওপর গুরুত্ব দেন। তিনি বলেন, রেড জোনে এবং অরেঞ্জ জোনে থাকা জেলাগুলির জন্য এই শৃঙ্খলা ভাঙা অত্যন্ত জরুরী।  রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির রেড জোনকে অরেঞ্জ জোনে এবং সেখান থেকে গ্রীণ জোনে নিয়ে যেতে হবে। তিনি বলেন, কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত কেউ যেন বৈষম্যের শিকার না হন এবং কোভিড-১৯ ছাড়াও বাকি নানা অসুখে যারা আক্রান্ত সেই সব মানুষেরা যেন সঠিক ভাবে চিকিত্সা পান, তা নিশ্চিত করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, পরম্পরাগত চিকিত্সা পদ্ধতিকে ব্যবহার করতে হবে।

গত ২৮ দিনে ১৬টি জেলায় নতুন করে সংক্রমণের কোন খবর পাওয়া যায়নি। মহারাষ্ট্রের গুন্ডিয়া, কর্ণাটকের দেভাংগেরে এবং বিহারের লক্ষীসরাই জেলা এই তালিকায় নতুন সংযোজন। উত্তরপ্রদেশের পিলিভিট এবং পাঞ্জাবের শহীদ ভগত্ সিং নগর জেলায় নতুন করে সংক্রমণের খবর পাওয়া গেছে। এই জেলাগুলিতে এর আগে ২৮ দিন সংক্রমণের কোন তথ্য পাওয়া যায়নি। ২৫টি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ৮৫টি জেলায় গত ১৪ দিনে নতুন করে সংক্রমণের কোন খবর পাওয়া যায়নি।

কেন্দ্রের পঞ্চম ক্ষমতাশীল গোষ্ঠী আজ সরবরাহ ব্যবস্থা নিয়ে একটি সাংবাদিক বৈঠক করেছে। কোভিড-১৯ মহামারীর পর দেশজুড়ে যে সব ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, সাংবাদিকদের সে বিষয়ে জানানো হয়। পানীয় জল এবং পয়ঃপ্রণালী দফতরের সচিব ও পঞ্চম ক্ষমতাশীল গোষ্ঠীর আহ্বায়ক শ্রী পরমেশ্বরণ আইয়ার জানান, কৃষি, নির্মাণ, লজিস্টিক এবং সমাজের দুর্বলতর শ্রেণীর মানুষদের জন্য খাবার যোগান দেওয়ার বিষয়ে সরকার সক্রিয় ভাবে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। তিনি বলেন, ৩০ মার্চ থেকে ২৫ এপ্রিলের মধ্যে দেশে খাদ্য এবং ওষুধ নিয়ে ট্রাক চলাচলের পরিমাণ ৪৬ শতাংশ থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ৭৬ শতাংশ হয়েছে। এই একই সময়ে রেলে ৬৭ শতাংশ থেকে পণ্য পরিবহণের পরিমান বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে ৭৬ শতাংশ। বিভিন্ন বন্দরে পণ্য  ওঠা-নামার পরিমান ৭০ শতাংশ থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ৮৭ শতাংশ হয়েছে। সব্জি মান্ডিগুলিতে বেচা-কেনার পরিমান ৬১ শতাংশ থেকে বেড়ে হয়েছে ৭৯ শতাংশ। বিভিন্ন সরকারি সংস্থা, অসরকারি প্রতিষ্ঠান এবং শিল্প সংস্থাগুলি প্রতিদিন দেড় কোটির বেশি মানুষকে রান্নাকরা খাবার সরবরাহ করছে।

পঞ্চম ক্ষমতাশীল গোষ্ঠী অত্যাবশ্যক সামগ্রী সরবরাহে যে সব সমস্যাগুলি হচ্ছে সেগুলি দূর করার লক্ষ্যে কাজ করে চলেছে, যাতে সকলে নিরবচ্ছিন্ন ভাবে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস পান এবং যাঁরা এগুলি সরবরাহ করছেন তাঁদের কোন সমস্যা না হয়। এই লক্ষ্যে তারা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সহ খাদ্য, ওষুধ, পরিবহণ ছাড়াও পাইকারি এবং খুচরো বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলছেন।

শেষ পাওয়া খবরে দেশে মোট কোভিড-১৯-এ আক্রান্তের সংখ্যা ২৭,৮৯২ জন। এদের মধ্যে ৬১৮৪ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। অর্থাত্ মোট আক্রান্তের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২২.১৭ শতাংশ। গত ২৪ ঘন্টায় ৪৮ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। অর্থাত্ দেশে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৮৭২।

কোভিড-১৯ এর বিষয়ে বস্তুনিষ্ঠ তথ্যের জন্য এবং এই মহামারী প্রতিরোধের বিষয়ে যে সব নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে তা জানতে https://www.mohfw.gov.in/ লিঙ্কটি ক্লিক করুন।

কোভিড-১৯ এর বিষয়ে কোন জিজ্ঞাস্য থাকলে technicalquery.covid19@gov.in অথবা  ncov2019@gov.in - এই দুটি  ই-মেলে যোগাযোগ করা যাবে।

এছাড়াও +৯১-১১-২৩৯৭ -৮০৪৬  অথবা নিঃশুল্ক নম্বর ১০৭৫ এ ফোন করা যাবে। বিভিন্ন রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে কোভিড–১৯ সংক্রান্ত হেল্প লাইন নম্বরগুলির তালিকা চাইলে নীচের লিঙ্কে ক্লিক করুন।
https://www.mohfw.gov.in/pdf/coronvavirushelplinenumber.pdf

 

 



CG/CB/AS



(Release ID: 1618766) Visitor Counter : 53