প্রধানমন্ত্রীরদপ্তর

ইতালী-ভারতের জ্বালানী ক্ষেত্রে সংস্কারের জন্য কৌশলগত অংশীদারিত্বের বিষয়ে যৌথ বিবৃতি

Posted On: 30 OCT 2021 2:24PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লী,  ৩০  অক্টোবর, ২০২১

 

ইতালীর মন্ত্রিসভার সভাপতি মিঃ মারিও দ্রাঘি ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনের ফাঁকে এক দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হন। ৩০ এবং ৩১শে অক্টোবর রোমে ইতালী এই শীর্ষ সম্মলনের আয়োজন করেছে। 

ভারত ও ইতালী ২০২০র ৬ নভেম্বর দুই দেশের মধ্যে ২০২০ থেকে ২০২৪ পর্যন্ত সময়কালে অংশীদারিত্ব বৃদ্ধির জন্য যে অ্যাকশন প্ল্যান গ্রহণ করেছে উভয় নেতা সেই পরিকল্পনার মূল্যায়ণ করেছেন এবং এর যথাযথ অগ্রগতি হয়েছে বলে মতপ্রকাশ করেন। জলবায়ু পরিবর্তন রোধে পরিবেশ বান্ধব জ্বালানীকে আরও বেশি ব্যবহার, রোমে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন এবং গ্লাসগোতে সিওপি২৬ সম্মেলনে সহযোগিতা সহ অ্যাকশন প্ল্যানে কৌশলগত ক্ষেত্রে পারস্পরিক বোঝাপড়া বাড়ানোর প্রশ্নে উভয় নেতা সহমত পোষন করেছেন। 

২০২১এর ৮ মে পোর্তোতে ভারত ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দের মধ্যে অনুষ্ঠিত বৈঠকের প্রসঙ্গ এবারের আলোচনায় স্থান পেয়েছে। সেই বৈঠকে যেসব বিষয়গুলি গুরুত্ব সহকারে সমাধান করার ওপর জোর দেওয়া হয় সেগুলি হল : জলবায়ু পরিবর্তনের সমস্যাকে মোকাবিলা করার জন্য পারস্পরিক সহযোগিতা, জীব বৈচিত্র্যের ক্ষয় রোধ এবং দূষণ প্রতিরোধে পুনর্নবীকরণযোগ্য জ্বালানীর ব্যবহার বাড়ানো, সমুদ্র সৈকতে বায়ুশক্তির মাধ্যমে বিদ্যুৎ উৎপাদন, পরিবেশ বান্ধব হাইড্রোজেনকে জ্বালানী হিসেবে ব্যবহার করা, জ্বালানীর যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করা, স্মার্ট গ্রিড এবং জ্বালানী সঞ্চয়ের প্রযুক্তির মানোন্নয়ন এবং বিদ্যুতের বাজারের আধুনিকীকরণ। 

এছাড়াও উভয় পক্ষই নিজ নিজ দেশে পুনর্নবীকরণযোগ্য জ্বালানীর ব্যবহার বাড়াতে তার মূল্য হ্রাসের বিষয়টি নিয়ে সহমত পোষণ করে। এর মধ্য দিয়ে কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে, দেশের মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন বাড়বে, যাদের কাছে বিদ্যুতের সংযোগ পৌঁছায়নি তারা যাতে স্বল্পমূল্যে বিদ্যুৎ পান তা নিশ্চিত করা হবে।  

এই প্রেক্ষিতে দুই প্রধানমন্ত্রী ২০৩০ সালের মধ্যে ভারতের ৪৫০ গিগাওয়াট পুনর্নবীকরণযোগ্য জ্বালানী ব্যবহারের সিদ্ধান্ত এবং আন্তর্জাতিক সৌর জোটে ইতালীর সক্রিয় সহযোগিতার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন। জ্বালানীর ব্যবহারের পরিবর্তন ঘটানোর জন্য দ্বিপাক্ষিক কৌশলগত অংশীদারিত্বকে অগ্রাধিকার দেওয়ার বিষয়ে দুই প্রধানমন্ত্রী সহমত হয়েছেন। 

এ ধরণের অংশীদারিত্বের ফলে বর্তমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে গতি আসবে এবং ইতালীর বাস্তুতন্ত্রের পরিবর্তন সংক্রান্ত মন্ত্রক ও ভারতের নতুন ও পুনর্নবীকরণযোগ্য জ্বালানী মন্ত্রক, বিদ্যুৎ মন্ত্রক এবং পেট্রোলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাস মন্ত্রকের মধ্যে সহযোগিতা বাড়বে।   

ভারত ও ইতালীর মধ্যে জ্বালানীর ব্যবহারে সংস্কার আনার ক্ষেত্রে অংশীদারিত্ব বাড়ানোর জন্য যে বিষয়গুলিকে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে সেগুলি হল :

 দিল্লীতে ২০১৭র ৩০ ডিসেম্বর জ্বালানী ক্ষেত্রে সহযোগিতার জন্য একটি যৌথ কর্মী গোষ্ঠী গঠন করা হয়। স্মার্ট সিটি, যোগাযোগ ব্যবস্থাপনা, স্মার্ট গ্রিড, বিদ্যুৎ বন্টন, বিদ্যুৎ সঞ্চিত রাখার ব্যবস্থাপনা, গ্যাস সরবরাহ, প্রাকৃতিক গ্যাসকে জ্বালানী হিসেবে ব্যবহার, সুসংহত বর্জ্য ব্যবস্থাপনা (বর্জ্য থেকে সম্পদে রূপান্তর), পরিবেশ বান্ধব হাইড্রোজেন, সিএনজি ও এলএনজি-র মতো পরিবেশ বান্ধব জ্বালানীর ব্যবহার, জৈব মিথেন, দ্বিতীয় প্রজন্মের জৈব ইথানল, ক্যাস্টর অয়েল, জৈব তেলের মতো পরিবেশ বান্ধব জ্বালানীর ব্যবহার- এ সংক্রান্ত ক্ষেত্রে সহযোগিতার জন্য সমঝোতাপত্র স্বাক্ষরিত হয়েছে। 

 উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশগুলির মধ্যে পরিবেশ বান্ধব হাইড্রোজেন জ্বালানী  এবং ভারতে এ ধরণের প্রযুক্তির উদ্ভাবন ও ব্যবহার বাড়ানোর জন্য বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হবে। 

 ভারতে বৃহৎ আকারের পরিবেশবান্ধব করিডর তৈরির মাধ্যমে ভারতকে জ্বালানী ব্যবহারের সংস্কারে সাহায্য করা হবে। এর ফলে ২০৩০ সালের মধ্যে ৪৫০ গিগাওয়াট পুনর্নবীকরণযোগ্য জ্বালানী উৎপাদনে ভারত তার লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারবে। 

 প্রাকৃতিক গ্যাস, কার্বন নিঃসরণ কমানোর জন্য প্রযুক্তি উদ্ভাবন, স্মার্ট সিটি উদ্যোগ, শহরাঞ্চলে বৈদ্যুতিক যানবাহনের ব্যবহার বাড়ানোর মতো বিভিন্ন প্রকল্পে ভারত ও ইতালীর সংস্থাগুলির মধ্যে অংশীদারিত্ব বাড়াতে উৎসাহ দেওয়া হবে। 

 ভারতীয় ও ইতালীয় সংস্থাগুলি যাতে নতুন জ্বালানী ব্যবহার সংক্রান্ত প্রক্রিয়ায় যুক্ত হতে পারে তার জন্য যৌথ উদ্যোগ গড়ে তুলতে উৎসাহিত করা হবে।  

 এই প্রক্রিয়ার জন্য নীতি তৈরি ও সেই নীতি মেনে চলার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্য ও অভিজ্ঞতার আদান-প্রদান করা হবে। এরফলে পরিবেশ বান্ধব জ্বালানীর ব্যবহার বাড়বে। বাণিজ্যিকভাবে সেই জ্বালানী ব্যবহার করলে কোনো আর্থিক ক্ষতির সম্ভাবনা থাকবে না  এ ধরণের উদ্যোগ নেওয়া হবে। এছাড়াও দীর্ঘমেয়াদী গ্রিড পরিকল্পনা, অপ্রচলিত জ্বালানীকে দক্ষভাবে ব্যবহার করলে উৎসাহ ভিত্তিক বিশেষ ব্যবস্থাপনা এবং পরিবেশ বান্ধব জ্বালানী ব্যবহার করলে তারজন্য আর্থিক সুবিধার ব্যবস্থা করা হবে। 

 

CG/CB/NS 



(Release ID: 1768573) Visitor Counter : 187