বিজ্ঞানওপ্রযুক্তিমন্ত্রক

শুকনো থুতুর থেকে করোনা ভাইরাস শনাক্ত করার জন্য সিএসআইআর-সিসিএমবি-র আরটি-পিসিআর পদ্ধতিকে অনুমোদন দিল আইসিএমআর

Posted On: 28 NOV 2020 2:58PM by PIB Kolkata

নতুনদিল্লি, ২৮শে নভেম্বর, ২০২০ 

 

সিএসআইআরের অধীনস্থ হায়দ্রাবাদের সেলুলার অ্যান্ড মলিকিউলার বায়োলজি (সিসিএমবি) সহজ ভাবে শুকনো থুতুর থেকে করোনা ভাইরাস শনাক্ত করার জন্য আরটি-পিসিআর পদ্ধতিকে আইসিএমআর অনুমোদন দিয়েছে। এর ফলে সার্স-কোভ-২কে দ্রুত শনাক্ত করা যাবে। প্রচলিত আরটি-পিসিআর পদ্ধতির থেকে এই পদ্ধতি একটু আলাদা। এর সাহায্যে বাড়তি বিনিয়োগ ছাড়াই দুই-তিন গুণ বেশী নমুনা পরীক্ষা করা যাবে। এই পদ্ধতির সাফল্যের হার ৯৬.৯%। অপেক্ষাকৃত কম খরচে দ্রুত এই পরীক্ষা পদ্ধতির বিষয়ে আইসিএমআর এখন নীতি নির্দেশিকা প্রকাশ করেছে। 

হায়দ্রাবাদ ভিত্তিক সিএসআইআর-সিসিএমবি গত এপ্রিল থেকে নমুনা পরীক্ষা করছে। তেলেঙ্গানার স্বাস্থ্যকর্মীদের সঙ্গে কাজ করার সময় এই সংস্থাটি নমুনা পরীক্ষার ফল দেরিতে পাওয়ার কারণ খুঁজেছে। আর সেখান থেকেই গবেষকরা কোভিড-১৯ ভাইরাস শনাক্ত করার জন্য আরএনএ নিষ্কাশন ছাড়া  শুকনো কফ থেকে এই পদ্ধতিটি উদ্ভাবন করেছে। 

শুকনো থুতু থেকে আরটি-পিসিআর পদ্ধতিতে নমুনা সংগ্রহ করে সেটিকে পরীক্ষাগারে নিয়ে যাওয়ার পদ্ধতিটি অত্যন্ত সহজ। প্রচলিত পদ্ধতিতে ভিটিএম-এর মাধ্যমে এই নমুনা নিয়ে যাওয়া হয় যার ফলে সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা বেশি থাকে। এছাড়াও প্রচলিত পদ্ধতিতে আরএনএ-কে পৃথক করে সেখান থেকে নমুনা পরীক্ষার কাজটি করা হয়। নতুন পদ্ধতিতে এই প্রক্রিয়া না থাকায় শনাক্তকরণের কাজটি সহজ হয়। আরটি-পিসিআর-এর মাধ্যমে প্রচলিত নমুনার থেকে আরএনএ-কে পৃথক করার ক্ষেত্রে সময় অর্থ এবং দক্ষ মানব সম্পদের প্রয়োজন হয়। কিন্তু শুকনো থুতুর থেকে নমুনা পরীক্ষার এই পদ্ধতিতে সময় বাঁচে এবং ২-৩ গুন বেশি নমুনা পরীক্ষা করা যায়। 

সিসিএমবি-র নির্দেশক ডঃ রাকেশ মিশ্র বলেছেন, ভিটিএম এবং আরএনএ-র পৃথকীকরণের জন্য সময় এবং অর্থ দুটি-ই বেশি লাগে। এরফলে করোনা ভাইরাসের শনাক্তকরণের জন্য বিপুল সমস্যা হয়। বর্তমান পদ্ধতিতে এই সমস্যা দূর হবে। 

***

 

CG/CB/NS



(Release ID: 1676805) Visitor Counter : 157