জলশক্তি মন্ত্রক

জল জীবন মিশন : সাফল্যের নিরিখে রাজ্যগুলি একে অপরের থেকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে

Posted On: 21 JUL 2020 6:49PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লী, ২১ জুলাই, ২০২০

 



    ২০১৯-২০ অর্থবর্ষের জল জীবন মিশন কর্মসূচির সূচনা হয়েছিল গত বছর আগস্টে। এই সূচনার ৭ মাসের মধ্যে ৮৫ লক্ষ গ্রামীণ পরিবারে জলের ট্যাপ সংযোগ দেওয়া হয়েছে। এমনকি কোভিড-১৯ মহামারীর মধ্যে আনলক-১এর পর থেকে চলতি অর্থবর্ষে প্রায় ৫৫ লক্ষ জলের ট্যাপ সংযোগ স্থাপন করা হয়েছে। এইভাবে প্রতিদিন প্রায় ১ লক্ষ পরিবারকে জলের ট্যাপ সংযোগ দেওয়া হয়েছে।


    ৭টি রাজ্যে- বিহার, তেলেঙ্গানা, মহারাষ্ট্র, হরিয়ানা, গুজরাত, হিমাচলপ্রদেশ এবং মিজোরাম তাদের নির্ধারিত লক্ষ্যের চেয়ে ১০ শতাংশ বেশি পরিবারকে জলের সংযোগ প্রদান করেছে। তামিলনাড়ু, কর্ণাটক, ওডিশা এবং মনিপুরের মতো রাজ্যগুলিতে এই একই সময় জলের ট্যাপ সংযোগের ক্ষেত্রে কাজের ভালো অগ্রগতি হয়েছে। জল জীবন মিশনের আওতায় গ্রামীণ অঞ্চলে বসবাসকারী লোকেদের মৌলিক পরিষেবাগুলি সরবরাহ করার জন্য রাজ্যগুলি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এরই অঙ্গ হিসেবে এই ট্যাপ সংযোগ দেওয়ার জন্য প্রচেষ্টা চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে।


    দেশে ১৮.৯৩ কোটি গ্রামীণ পরিবারের মধ্যে ৪.৬৩ কোটি (২৪.৩০ শতাংশ) পরিবারকে ইতিমধ্যেই জলের ট্যাপ সংযোগ দেওয়া হয়েছে। রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলি প্রতিদিন ১ লক্ষের বেশি জলের ট্যাপ সংযোগ সরবরাহ করেছে।


    ২০২০-২১ অর্থবর্ষে জল জীবন মিশন বাস্তবায়নের জন্য ২৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। গ্রামাঞ্চলে পানীয় জল সরবরাহ ব্যবস্থাপনার উন্নতি, পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণের মাধ্যমে সাধারণ মানুষ যাতে নিয়মিত ও দীর্ঘমেয়াদী ভিত্তিতে পানীয় জল পান তা সুনিশ্চিত করতে এই অর্থ খরচ করা হবে।


    কেন্দ্রীয় জলশক্তি মন্ত্রক ২০২৪ সালের মধ্যে দেশের প্রতিটি গ্রামীণ পরিবারে জলের ট্যাপ সংযোগের জন্য সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলির সঙ্গে যৌথ উদ্যোগ নিয়েছে। নিয়মিত ও দীর্ঘমেয়াদী ভিত্তিতে পর্যাপ্ত পরিমানে পানীয় জল সরবরাহের লক্ষ্যে মন্ত্রক রাজ্যগুলির সঙ্গে অংশীদার হয়ে জল জীবন মিশন বাস্তবায়নের পথে হেঁটেছে। এই জাতীয় কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্য রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে সঙ্গে নিয়ে সর্বাত্মক প্রয়াস চালানো হচ্ছে। এমনকি প্রতিদিন এই কর্মসূচির অগ্রগতি খতিয়েও দেখা হচ্ছে।


    বিভিন্ন রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিতে এই কর্মসূচি সফলভাবে রূপায়িত করতে সরকার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ২০২১ সালের মধ্যে বিহার, গোয়া, পুদুচেরী এবং তেলেঙ্গানায় এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করতে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। একইভাবে ২০২২ সালের মধ্যে গুজরাত, হরিয়ানা, হিমাচলপ্রদেশ, জম্মু-কাশ্মীর, লাদাখ, মেঘালয়, পাঞ্জাব, সিকিম এবং উত্তরপ্রদেশে এই কর্মসূচি ১০০ শতাংশ সম্পূর্ণ করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। ২০২৩ সালের মধ্যে অন্ধ্রপ্রদেশ, আসাম, ঝাড়খন্ড, কেরালা, মহারাষ্ট্র, ওডিশা, রাজস্থান, তামিলনাড়ু, উত্তরাখন্ড এবং ২০২৪ সালের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করতে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।


    আর্থিক অন্তর্ভুক্তি, রাস্তাঘাট নির্মাণ, স্বচ্ছ জ্বালানী, বিদ্যুতায়ন, শৌচালয়ের সুবিধাগুলি প্রদানের মাধ্যমে জীবন যাত্রার মান আরও সহজ করতে তুলতে প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী যে উদ্যোগ নিয়েছেন তারসঙ্গে সামঞ্জস্য বজায়  রেখে প্রতিটি গ্রামীণ পরিবারে বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলে মহিলাদের জীবনের মানোন্নয়নের লক্ষ্যে জল জীবন মিশন বাস্তবায়িত করতে এই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

 



CG/SS/NS



(Release ID: 1640293) Visitor Counter : 14