গ্রামোন্নয়নমন্ত্রক

দেশজুড়ে কোভিড–১৯ মোকাবিলায় এনআরএলএমস্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা

Posted On: 12 APR 2020 3:40PM by PIB Kolkata

নতুনদিল্লি, ১২ এপ্রিল, ২০২০

 

 


কোভিড – ১৯ মহামারীর কারণে সারা বিশ্বজুড়ে এক অভূতপূর্ব স্বাস্থ্যজনিত জরুরী অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। ভারতে এর ফলে স্বাস্থ্য পরিষেবা, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থা, সাফাইকর্মী সহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বহু ব্যক্তির  জন্য মাস্ক, ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম (পিপিই) এবং ফেস শিল্ডের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। সরকারও মাস্ক ব্যবহার করার জন্য নাগরিকদের পরামর্শ দিচ্ছে। 


সারা দেশে ৬৩ লক্ষ স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সঙ্গে ৬ কোটি ৯০ লক্ষ মহিলা যুক্ত আছেন। এই স্বনির্ভর গোষ্ঠীগুলি কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের অধীনে দীনদয়াল অন্তোদয় যোজনা – জাতীয় গ্রাম জীবিকা মিশন (ডিএওয়াই-এনআরএলএম) –এর অধীনে রয়েছে। কোভিড – ১৯ এর মোকাবিলায় যাঁরা প্রথম সারিতে থেকে কাজ করছেন, তাঁদের জন্য মাস্ক অত্যন্ত জরুরী। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক এবং উপভোক্তা বিষয়ক মন্ত্রকের পরামর্শক্রমে বিভিন্ন ধরণের সার্জিক্যাল মাস্ক এবং কাপড়ের তৈরি মাস্ক౼ স্বাস্থ্য দপ্তর, স্থানীয় প্রশাসন, পুলিশ সহ সাধারণ নাগরিকদের জন্য সরবরাহ করা হচ্ছে। এই মাস্কগুলি  স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলারা তৈরি করছেন। ৮ এপ্রিলের মধ্যে ২৭ টি রাজ্যের গ্রাম জীবিকা মিশন জানিয়েছে, মোট ১ কোটি ৯৬ লক্ষ মাস্ক তৈরি করা হয়েছে। এগুলি ১০ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে। 


স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলারা অ্যাপ্রন, গাউন, ফেস শিল্ডের মতন প্রায় ৫ হাজার ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী তৈরি করেছে। এছাড়া, ৯ টি রাজ্যের ৯০০ স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সঙ্গে যুক্ত মহিলারা ১ লক্ষ ১৫ হাজার লিটার স্যানিটাইজার তৈরি করেছেন। 


এই স্যানিটাইজার তৈরি করার সময় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশিকা মেনে ৭২ শতাংশ অ্যালকোহল, ১৩ শতাংশ পাতিত জল, ১৩ শতাংশ গ্লিসারিন এবং ২ শতাংশ বাসিল অথবা লেমনগ্রাস দেওয়া হয়। বাসিল বা লেমনগ্রাস ভাইরাসকে ভালোভাবে ধ্বংস করে। ১০০ মিলিলিটার স্যানিটাইজারের দাম ৩০ টাকা ধার্য করা হয়েছে। এর ফলে সাধারণ মানুষ সহজেই এগুলি ব্যবহার করতে পারবেন।


এইভাবে কোভিড-এর বিরুদ্ধে যুদ্ধে স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিভিন্ন উপকরণ তৈরির মধ্য দিয়ে সমাজের প্রতি তাদের দায়বদ্ধতা পালন করছেন। 

 

 


CG/CB



(Release ID: 1613720) Visitor Counter : 104