অর্থমন্ত্রক
azadi ka amrit mahotsav

২০২২-২৩ অর্থবর্ষে আর্থিক ঘাটতির পরিমাণ মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদনের ৬.৪ শতাংশ হবে বলে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে

Posted On: 01 FEB 2022 12:58PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লী,  ০১ ফেব্রুয়ারি, ২০২২


কেন্দ্রীয় অর্থ ও কর্পোরেট বিষয়ক মন্ত্রী শ্রীমতী নির্মলা সীতারমন আজ সংসদে বাজেট পেশ করার সময় জানান, ২০২৫-২৬ অর্থবর্ষের মধ্যে আর্থিক ঘাটতির পরিমাণ মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদনের ৪.৫ শতাংশের নীচে নামিয়ে আনার যে পরিকল্পনা তিনি করেছেন তার অঙ্গ হিসেবে এবারের বাজেটে আর্থিক ঘাটতির পূর্বাভাস ৬.৪ শতাংশ করা হয়েছে। এই লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য জোরদার আর্থিক উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বর্তমান অর্থবর্ষে পরিবর্তিত আর্থিক ঘাটতির পূর্বাভাস ৬.৯ শতাংশ। বিগত বাজেট পেশের সময় এই পূর্বাভাস ছিল ৬.৮ শতাংশ।

মন্ত্রী জানান, ২০২২-২৩ অর্থবর্ষে আর্থিক ঘাটতির পরিমাণ নির্ধারণের সময় তিনি বেশ কয়েকটি বিষয় বিবেচনা করেছেন। জন-বিনিয়োগের মধ্য দিয়ে আর্থিক বিকাশ নিশ্চিত করা এবং আরও শক্তিশালী ও স্থিতিশীল হয়ে ওঠার উপর গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। ২০২২-২৩ অর্থবর্ষে আর্থিক ঘাটতির পরিমাণ ১৬,৬১,১৯৬ কোটি টাকা। বর্তমানে ২০২১-২২ অর্থবর্ষে আর্থিক ঘাটতির পূর্বাভাস ১৫,৯১,০৮৯ কোটি টাকা। বাজেট পেশের সময় ১৫,০৬,৮১২ কোটি টাকা ঘাটতি হবে বলে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছিল।

অর্থমন্ত্রী জানান, মূলধন ব্যয়ের পরিমাণ বর্তমান বছরে ৫ লক্ষ ৫৪ হাজার কোটি টাকা। কেন্দ্রীয় বাজেটে ২০২২-২৩ অর্থবর্ষে তা বৃদ্ধি করে ৭ লক্ষ ৫০ হাজার কোটি টাকা করা হয়েছে। রাজ্যগুলিকে সাহায্যের জন্য তহবিল এবং কেন্দ্রীয় সরকারের মূলধনী ব্যয়ের কথা বিবেচনা করে এই পরিমাণ নির্ধারিত হয়েছে। ২০২২-২৩ অর্থবর্ষে মোট ব্যয়ের পরিমাণ ধার্য হয়েছে ৩৯ লক্ষ ৪৫ হাজার কোটি টাকা। এরমধ্যে আয়ের পূর্বাভাস ধার্য করা হয়েছে ২২ লক্ষ ৮৪ হাজার কোটি টাকা। এই অর্থবর্ষে বাজার থেকে ১১ লক্ষ ৯৮ হাজার ৭১৯ কোটি টাকা ঋণ নেওয়ার সম্ভাবনা আছে। ২০২১-২২ অর্থবর্ষে বাজেট পেশের সময় বাজার থেকে ৯ লক্ষ ৬৭ হাজার ৭০৮ কোটি টাকা ঋণ নেওয়ার পূর্বাভাস থাকলেও নেওয়া হয়েছে ৮ লক্ষ ৭৫ হাজার ৭৭১ কোটি টাকা।
 

CG/CB /NS



(Release ID: 1794442) Visitor Counter : 189