ভূ-বিজ্ঞানমন্ত্রক

বৈজ্ঞানিক ও প্রযুক্তিগত সহযোগিতার জন্য ভারত ও সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর মধ্যে স্বাক্ষরিত সমঝোতাপত্রটিকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার অনুমোদন

Posted On: 13 JAN 2021 1:03PM by PIB Kolkata

নতুনদিল্লি, ১৩ জানুয়ারি, ২০২১

 

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর পৌরোহিত্যে আজ কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে বৈজ্ঞানিক ও প্রযুক্তিগত সহযোগিতার জন্য সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর ন্যাশনাল সেন্টার অফ মিটিওরলজি (এনসিএম) এবং ভারতের ভূ-বিজ্ঞান মন্ত্রকের মধ্যে স্বাক্ষরিত সমঝোতাপত্রটি অনুমোদিত হয়েছে।

 

তথ্য, জ্ঞান এবং পরিচালনগত বিভিন্ন পণ্যসামগ্রী যেগুলি আবহাওয়া সংক্রান্ত, ভূকম্প-বিদ্যা ও মহাসাগরীয় পরিষেবা যেমন রেডার, কৃত্রিম উপগ্রহ, জোয়ার-ভাটা মাপার যন্ত্র, ভূমিকম্প ও আবহাওয়া দপ্তরের ব্যবহৃত নানা সামগ্রী দুই দেশ ব্যবহার করবে।

 

১) বৈজ্ঞানিক, গবেষক, বিশেষজ্ঞদের গবেষণা, প্রশিক্ষণ, আলাপ-আলোচনার জন্য কাজে লাগানো হবে। জলবায়ু সম্পর্কিত তথ্য, উপগ্রহ থেকে পাওয়া চিত্রের সাহায্যে আবহাওয়ার পূর্বাভাস, নিরক্ষীয় অঞ্চলের ঘূর্নিঝড়ের পূর্বাভাস ইত্যাদি ক্ষেত্রে এই অভিজ্ঞতা কাজে লাগানো হবে।

 

২) অভিন্ন স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট ভিন্ন বৈজ্ঞানিক ও প্রযুক্তিগত তথ্যের আদানপ্রদান করা হবে।

 

৩) বৈজ্ঞানিক ও প্রযুক্তিগত সেমিনার, কর্মশালা, সম্মেলন এবং প্রশিক্ষণ কর্মসূচির আয়োজন করা হবে যেগুলি চুক্তিতে উল্লেখ করা রয়েছে এবং উভয় দেশেরই স্বার্থ জড়িত থাকবে।

 

৪) দুই পক্ষের মধ্যে পারস্পরিক সহমতের ভিত্তিতে অন্যান্য ক্ষেত্রের সহযোগিতার দিকগুলি নির্ধারিত হবে।

 

৫) মহাসাগরীয় অঞ্চলের ক্ষেত্রে পারস্পরিক সহমতের ভিত্তিতে আবহাওয়া সংক্রান্ত বিভিন্ন নজরদারি চালানো হবে।

 

৬) ওমান সাগর এবং আরব সাগরে সুনামী সতর্কতা আরও নিখুঁত, নির্ভরযোগ্য ও দ্রুত দেওয়ার জন্য সুনামি ওপর গবেষণার ক্ষেত্রে সহযোগিতা করা হবে কারণ, ভারতীয় উপকূলবর্তী অঞ্চল এবং সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর উত্তর-পূর্বাঞ্চলে এই ধরনের সুনামি প্রভাব বিস্তার করতে পারে।

 

৭) সুনামি পূর্বাভাসের উদ্দেশ্যে দ্রুত সুনামি সতর্কতা কেন্দ্রের জন্য সহযোগিতা বাড়ানো হবে।

 

৮) ভারতের দক্ষিণ ও পশ্চিমে এবং সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর উত্তরে ভূ-কম্প পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রগুলির থেকে প্রাপ্ত তথ্য আদান-প্রদান করা হবে। এই ধরনের ভূমিকম্প আরব সাগর এবং ওমান সাগরে সুনামির সৃষ্টি করতে পারে।

 

৯) ভূকম্প-বিদ্যায় সহযোগিতার জন্য আরব সাগর এবং ওমান সাগরে সুনামির ঢেউয়ের সম্ভাবনার দিক নিয়ে সহযোগিতা করা হবে।

 

১০) বালি এবং ধূলোঝড়ের বিষয়ে আগাম সতর্কতার জন্য সহযোগিতা করা হবে।

 

প্রেক্ষাপট :

 

অর্থনীতি যেহেতু আবহাওয়ার ওপর নির্ভরশীল, তাই আবহাওয়া সংক্রান্ত পরিষবার দক্ষতাও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এর ফলে কৃষিকাজ, পরিবহণ, জল ইত্যাদির মতো গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে সুবিধা হবে। আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক সহযোগিতা দৃঢ় করার জন্য আগাম সতর্কতার ব্যবস্থাগুলিকে আধুনিকীকরণের প্রয়োজন। প্রকৃতির বিবর্তনের কারণে জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষেত্রে প্রাপ্ত তথ্যগুলি সাহায্য করবে। এর ফলে, বিনিয়োগের জন্য ব্যয় কম হবে এবং আবহাওয়া পরিষেবার আধুনিকীকরণ ও স্থিতিশীলতার ক্ষেত্রেও সুবিধা হবে।

 

ভূ-বিজ্ঞান মন্ত্রক এবং সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর এনসিএম পূর্বাভাস ও জলবায়ু সংক্রান্ত বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতা গড়ে তুললে এই অঞ্চলের আর্থিক প্রবৃদ্ধির সুবিধা হবে।

 

ভারতের বিভিন্ন সংস্থা এবং সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর এনসিএম ২০১৯-এর ৮ নভেম্বর বৈজ্ঞানিক  কর্মকাণ্ড প্রসারিত করার  বিষয়ে আলাপ-আলোচনা করেছিল। ওমান সাগর ও আরব সাগরে সুনামির মতো প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে দ্রুত এবং ভরসাযোগ্য বৈজ্ঞানিক ও প্রযুক্তিগত সহযোগিতা গড়ে তোলার জন্য উভয় পক্ষ উৎসাহ দেখিয়েছিল। 

***

 

 

CG/CB/DM



(Release ID: 1688273) Visitor Counter : 6