প্রধানমন্ত্রীরদপ্তর

নতুন সংসদ ভবনের শিলান্যাস করেছেন প্রধানমন্ত্রী

নতুন সংসদ দেশের উচ্চাকাঙ্ক্ষা পূরণ করবে : প্রধানমন্ত্রী

গণতন্ত্র আমাদের সংস্কৃতি : প্রধানমন্ত্রী

নতুন সংসদ ভবন আত্মনির্ভর ভারতের সাক্ষ্য বহন করবে : প্রধানমন্ত্রী

দেশের স্বার্থকে অগ্রাধিকার দেবার জন্য জনসাধারণকে শপথ নেবার আহ্বান

Posted On: 10 DEC 2020 4:00PM by PIB Kolkata
নতুন দিল্লি, ১০ই ডিসেম্বর, ২০২০
 
 
প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আজ নতুন সংসদ ভবনের শিলান্যাস করেছেন। নতুন এই ভবনটি আত্মনির্ভর ভারতের একটি গুরুত্বপূর্ণ নিদর্শন হবে। এর মাধ্যমে স্বাধীনতার পর প্রথমবারের মতো জনসাধারণের সংসদ নির্মাণের সুযোগ পাওয়া যাবে। স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তিতে 2022 সালে নতুন ভারতের উচ্চাকাঙ্ক্ষা এর মাধ্যমে পূরণ হবে।  
 
এই উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন আজ ভারতের গণতন্ত্রের ইতিহাসে একটি নতুন অধ্যায় সূচিত হলো, যা ভারতীয়ত্বের প্রতীক।  তিনি বলেছেন আমাদের গণতান্ত্রিক ঐতিহ্যের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় হলো নতুন এই সংসদ ভবন তৈরি। শ্রী মোদী দেশের জনসাধারণকে একযোগে এই নতুন ভবন নির্মাণের কাজে যুক্ত হবার  আহ্বান জানিয়েছেন।  তিনি বলেছেন এর থেকে ভালো আর কিছু হয়না যে দেশ যখন স্বাধীনতার ৭৫তম বর্ষপূর্তি উদযাপন করবে সেই সময়ে নতুন এই সংসদ ভবনটি তৈরি হবে। 
  
এই প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী 20১৪ সালে প্রথমবার সাংসদ হওয়ার পর সংসদ ভবনে তাঁর প্রবেশের কথা স্মরণ করেন। তিনি জানান প্রথমবার সংসদ ভবনে পা রাখার আগে গণতন্ত্রের এই মন্দিরকে তিনি মাথা নত করে প্রণাম জানিয়ে ছিলেন। নতুন এই সংসদ ভবনে অনেকগুলি নতুন বিষয় থাকবে যার জন্য সাংসদদের দক্ষতা বাড়বে এবং তাদের আধুনিক  কর্মসংস্কৃতির  সঙ্গে চলতে সুবিধেহবে। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন পুরনো সংসদ ভবন  স্বাধীনতা পরবর্তী ভারতকে পথ দেখিয়েছে  আর নতুন সংসদ ভবন আত্মনির্ভর ভারতের সাক্ষ্য বহন করবে। পুরনো সংসদ ভবন দেশের চাহিদাকে পূরণ করেছে,  আর একবিংশ শতাব্দীর ভারতের উচ্চাকাঙ্ক্ষা পূরণ হবে নতুন সংসদ ভবনের মাধ্যমে। 
 
শ্রী মোদি বলেছেন অন্য সব জায়গায় গণতন্ত্র মানে হল নির্বাচনী প্রক্রিয়া, শাসন কাজ পরিচালনা করা এবং প্রশাসন। কিন্তু ভারতে গণতন্ত্র হলো মূল্যবোধ, একটি জাতির জীবন ও আত্মা।  তিনি বলেছেন ভারতের গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে পাওয়া অভিজ্ঞতা থেকে  গড়ে উঠেছে। এটি জীবনের মন্ত্র। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন ভারতের গণতান্ত্রিক ক্ষমতাই দেশের উন্নয়নের শক্তি এবং দেশের মানুষের নতুন বিশ্বাস। ভারতের গণতন্ত্র প্রতিবছর পুনরুজ্জীবিত হয়, প্রত্যেক নির্বাচনে দেখা যায় আগের থেকে বেশি ভোটদাতা সেই প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করছেন। 
 
প্রধানমন্ত্রী বলেছেন ভারতে গণতন্ত্র হলো মতপার্থক্য দূর করার জন্য একটি পদ্ধতি যার সঙ্গে পরিচালনা যুক্ত হয়েছে। ভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি, ভিন্ন ব্যাখ্যা একটি প্রাণবন্ত গণতন্ত্রের মূল শক্তি। আমাদের গণতন্ত্র সঠিক দিকেই এগিয়ে চলেছে।  যতক্ষণ না  মানুষ গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাচ্ছে, ততক্ষণ পর্যন্ত মতপার্থক্য থাকবেই। তিনি বলেছেন নীতি এবং রাজনীতি আলাদা হতেই পারে কিন্তু আমরা জনসাধারণের সেবার জন্য এসেছি, আর এই বিষয়টিতে কোন পার্থক্য থাকা উচিত নয়। শ্রী মোদী বলেছেন সংসদের ভেতরে ও বাইরে বিতর্ক চলতেই পারে, কিন্তু জাতীয় স্বার্থে কাজ করার মানসিকতা ও দায়বদ্ধতা সকলের থাকতে হবে আর এটি সবসময় প্রতিফলিত হওয়া প্রয়োজন।  
 
প্রধানমন্ত্রী জনসাধারণকে তাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য সব সময় মনে রাখার আবেদন  জানিয়েছেন। গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার প্রতি আমাদের সতর্ক থাকতে হবে,  এটি হলো সংসদ ভবনের অস্তিত্বের ভিত্তি। যেসব সদস্য সংসদে ঢুকছেন,  তাদের জনসাধারণের ও সংবিধানের প্রতি দায়বদ্ধ হতে হবে। শ্রীমোদী বলেছেন গণতন্ত্রের এই মন্দিরকে উপাসনা করার কোনো নির্দিষ্ট রীতিনীতি নেই। যারা এই মন্দিরে ঢুকবেন তাদেরই এর পবিত্রতা রক্ষা করতে হবে। তাদের নিষ্ঠা, কাজ, আচর্ ভাবনাই হবে এই মন্দিরের মূল ভিত্তি। তিনি আরো বলেছেন যখন প্রত্যেক জনপ্রতিনিধি তার জ্ঞান ও প্রজ্ঞা, শিক্ষা এবং অভিজ্ঞতা পুরো ভাবে এখানে ভাগ করে নেবেন তখনই এই নতুন সংসদ ভবন তার পবিত্রতা অর্জন করবে।   
 
প্রধানমন্ত্রী জনসাধারণকে দেশের কথা প্রথম বিবেচনা করা, দেশের বিকাশের  উপাসনা করা,  দেশের উন্নয়নকে অগ্রাধিকার দেওয়ার জন্য শপথ নিতে বলেছেন। তারা যে সিদ্ধান্ত নেবেন তাতে যেন দেশের স্বার্থকে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়। তিনি প্রত্যেকের কাছে নিজের স্বার্থের থেকে দেশের স্বার্থকে অগ্রাধিকার দেওয়ার জন্য শপথ নিতে বলেছেন। দেশের একতা ও অখণ্ডতার থেকে গুরুত্বপূর্ণ কিছু হয়না। দেশের সংবিধানের মর্যাদা এবং চাহিদা পূরণই তাদের জীবনের সবথেকে বড় লক্ষ্য হতে হবে।  
 
***
 
 
CG/CB


(Release ID: 1679784) Visitor Counter : 145