PIB Headquarters

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত পিআইবি’র প্রাত্যহিক সংবাদ

Posted On: 24 AUG 2020 6:38PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ২৪ আগস্ট ২০২০

 

 

লাগাতার অগ্রগতির পথে ভারতে প্রায় ৩.কোটি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে; প্রতি ১০ লক্ষ জনসংখ্যায় নমুনা পরীক্ষার হার বেড়ে ২৬,০১৬
ভারতে এখনও পর্যন্ত ৩ কোটি ৫৯ লক্ষ ২ হাজার ১৩৭টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় নমুনা পরীক্ষায় ৬ লক্ষ ৯ হাজার ৯১৭টি। নমুনা পরীক্ষার হার বাড়ানোর লক্ষ্যে ভারত দৃঢ় সঙ্কল্পবদ্ধ। নমুনা পরীক্ষাগারের সুবিস্তৃত নেটওয়ার্কের মাধ্যমে সহজে নমুনা পরীক্ষার হার ক্রমশ বাড়ছে। নমুনা পরীক্ষার হার বাড়ানোর সঙ্কল্পকে সামনে রেখে ভারতে প্রতি ১০ লক্ষ জনসংখ্যায় পরীক্ষার হার বেড়ে ২৬,০১৬ হয়েছে। এই হার ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী। দেশে দৈনিক নমুনা পরীক্ষার হার বাড়ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) কোভিড-১৯ সংক্রমণ মোকাবিলায় দৈনিক প্রতি ১০ লক্ষ জনসংখ্যায় ১৪০টি নমুনা পরীক্ষার পরামর্শ দিয়েছিল। দেশে সরকারি ও বেসরকারি মিলিয়ে নমুনা পরীক্ষাগারের সংখ্যা ১,৫২০ হয়েছে। এর মধ্যে সরকারি নমুনা পরীক্ষাগার ৯৮৪টি এবং বেসরকারি পরীক্ষাগারের সংখ্যা ৫৩৬।
বিস্তারিত বিবরণ - https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1648153


ভারতে করোনায় সুস্থতার সংখ্যা ২৩ লক্ষ ছাড়িয়েছে; নিশ্চিতভাবে আক্রান্তের তুলনায় আরোগ্য লাভের সংখ্যা তিনগুণ বেশি; নিশ্চিত আক্রান্তের তুলনায় সুস্থতার সংখ্যা ১৬ লক্ষ ছাড়িয়েছে
হাসপাতাল ও হোম আইসোলেশন থেকে অধিক সংখ্যায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সুস্থতার হার ক্রমাগত বৃদ্ধি পাওয়ায় ভারতে আজ পর্যন্ত আরোগ্য লাভের সংখ্যা ২৩ লক্ষ ছাড়িয়েছে। ব্যাপক হারে নমুনা পরীক্ষা, আক্রান্তদের খুঁজে বের করা, যথাযথ নজরদারি ও উপযুক্তি চিকিৎসা পরিষেবা কৌশল কার্যকর করার মাধ্যমে আরোগ্য লাভের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৩ লক্ষ ৩৮ হাজার ৩৫। দেশে গত ২৪ ঘন্টায় ৫৮,৪৬৯ জন আরোগ্য লাভ করেছেন। সুস্থতার হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৫.২৭ শতাংশ যা গত কয়েক মাসে আরোগ্য লাভের সংখ্যা ক্রমাগত বৃদ্ধি পাওয়ার বিষয়টিকেই প্রতিফলিত করে। ভারতে নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৭ লক্ষ ১০ হাজার ৭৭১ এবং এঁরা সকলেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন। নিশ্চিত আক্রান্তের তুলনায় আরোগ্য লাভের সংখ্যা বেড়ে ১৬ লক্ষ ২৭ হাজার ২৬৪ হয়েছে। এর ফলে, মোট আক্রান্তের তুলনায় নিশ্চিতভাবে আক্রান্তের সংখ্যা কেবল ২২.৮৮ শতাংশ। দেশে সুস্থতার হার ক্রমাগত বৃদ্ধি পাওয়ার দরুণ মৃত্যু হার ক্রমশ নিম্নমুখী। আজ এই হার আরও কমে হয়েছে ১.৮৫ শতাংশ।
বিস্তারিত বিবরণ - https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1648145

ডঃ হর্ষ বর্ধন গাজিয়াবাদে এনডিআরএফ-এর নম্বর ব্যাটেলিয়ন সেন্টারে ১০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতাল উদ্বোধন করেছেন
কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী ডঃ হর্ষ বর্ধন গাজিয়াবাদে এনডিআরএফ-এর ৮ নম্বর ব্যাটেলিয়ান সেন্টারে ১০ শয্যাবিশিষ্ট একটি আধুনিক, সুস্থায়ী, নিরাপদ ও এক জায়গা থেকে অন্যত্র সহজেই সরিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব এমন সব মরশুমের উপযোগী হাসপাতালের উদ্বোধন করেছেন। সিএসআইআর-এর সহযোগিতায় এই হাসপাতালটি গড়ে তোলা হয়েছে।
বিস্তারিত বিবরণ - https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1647964

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক আনলক-পর্বে বিভিন্ন রাজ্য জেলা প্রশাসনের জারি করা স্থানীয় পর্যায়ে বিধি-নিষেধের সময় যাত্রী পণ্য চলাচল এবং বিভিন্ন পরিষেবা নির্বিঘ্ন রাখতে রাজ্যগুলিকে নির্দেশ দিয়েছে
কেন্দ্রের পক্ষ থেকে রাজ্যগুলিকে নির্দেশ দিয়ে বলা হয়েছে যে, আনলক-৩ নির্দেশিকা অনুসারে রাজ্যের ভেতর এবং এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে যাত্রী ও পণ্য পরিবহণ সহ বিভিন্ন পরিষেবার ক্ষেত্রে কোনরকম বিধি-নিষেধ জারি করা চলবে না। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের পক্ষ থেকে সব রাজ্যের মুখ্য সচিবদের জানানো হয়েছে, বিভিন্ন জেলায় এবং রাজ্যে স্থানীয় পর্যায়ে পরিবহণের ক্ষেত্রে বাধাদানের খবর পাওয়া গেছে। এর ফলে, আন্তঃরাজ্য ও এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে পণ্য পরিবহণ ও পরিষেবার ক্ষেত্রে সমস্যা হয়েছে। এর ফলে, সরবরাহ শৃঙ্খল ব্যাহত হয়েছে এবং অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড ও কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে ব্যাঘাত ঘটার পাশাপাশি পণ্য পরিষেবা পৌঁছে দেওয়াতেও সমস্যা হয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে জেলা প্রশাসন ও রাজ্যগুলি স্থানীয় স্তরে এ ধরনের বিধি-নিষেধ আরোপ করা মন্ত্রকের ২০০৫ সালের জাতীয় বিপর্যয় আইন অনুযায়ী নীতি-নির্দেশিকাগুলি অমান্য করার সামিল।
বিস্তারিত বিবরণ - https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1647890

মোটরগাড়ির নথিপত্রের বৈধতা বাড়িয়ে বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত করা হয়েছে
কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহণ ও মহাসড়ক মন্ত্রক ১৯৮৮ সালের মোটরগাড়ি আইন এবং ১৯৮৯-এর কেন্দ্রীয় মোটরগাড়ি নির্দেশাবলী অনুযায়ী, মোটরগাড়ির ফিটনেস, পারমিট, লাইসেন্স, রেজিস্ট্রেশন ও অন্যান্য নথিপত্রের বৈধতার মেয়াদ আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর আগে মন্ত্রক গত ৩০ মার্চ ও ৯ জুন মোটরগাড়ির বিভিন্ন নথিপত্রের বৈধতা সম্পর্কিত এক বিজ্ঞপ্তি জারি করে ওই ধরনের নথিপত্রগুলির মেয়াদ বাড়িয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত করে। কিন্তু, দেশ জুড়ে বর্তমান কোভিড-১৯ পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে মোটরগাড়ির যাবতীয় নথিপত্রের বৈধতার মেয়াদ ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে আরও তিন মাস বাড়িয়ে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত করা হয়েছে।
বিস্তারিত বিবরণ - https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1648182

মিডিয়া প্রোডাকশনের জন্য তথ্য সম্প্রচার মন্ত্রকের আদর্শ কর্মপরিচালনা বিধি ঘোষণা
দেশে মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদন বা ডিজিপি-র ক্ষেত্রে মিডিয়া প্রোডাকশন একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বর্তমান কোভিড-১৯ মহামারীর প্রেক্ষিতে মিডিয়া প্রোডাকশনের সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের সুরক্ষা অবলম্বন করা জরুরি হয়ে উঠেছে, যাতে এঁরাও মহামারীর শিকার না হন। একইসঙ্গে, এঁদের স্বাভাবিক কাজকর্ম চালিয়ে যাওয়াও সমান জরুরি। এই প্রেক্ষিতে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের সঙ্গে আলোচনা করে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক মিডিয়া প্রোডাকশনের ক্ষেত্রে একটি আদর্শ কর্মপরিচালন বিধি বা এসওপি প্রস্তুত করেছে। তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী শ্রী প্রকাশ জাভড়েকর এই এসওপি-র বিষয়ে বিস্তারিতভাবে জানিয়েছেন। জারি করা এসওপি অনুযায়ী, কোভিড-১৯-এর জন্য সংক্রমিত এলাকায় প্রযোজনার কোন কাজ করা যাবে না। প্রযোজনার সঙ্গে যুক্ত যে সমস্ত ব্যক্তির জটিল শারীরিক সমস্যা রয়েছে তাঁদের বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। সেইসঙ্গে, ফেস কভার, মাস্ক, বারবার হাত ধোয়া, হ্যান্ড স্যানিটাইজার সহ হাঁচি ও কাশির সময় নিয়ম মেনে চলতে হবে।
বিস্তারিত বিবরণ - https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1648011

২৩ আগস্ট জারি হওয়া মিডিয়া প্রোডাকশন সংক্রান্ত এসওপি সম্পর্কে স্পষ্টীকরণ
কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক গত ২৩ তারিখ কোভিড-১৯ সংক্রমণ প্রতিরোধে মিডিয়া প্রোডাকশনের ক্ষেত্রে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে আদর্শ কর্মপরিচালন বিধি সংক্রান্ত নীতি-নির্দেশিকা জারি করে। এই নীতি-নির্দেশিকায় চলচ্চিত্রের বিশ্বায়ন, টিভির অনুষ্ঠান প্রযোজনা, ওয়েব সিরিজ ও বৈদ্যুতিন মাধ্যমে অন্যান্য সব ধরনের অনুষ্ঠান প্রযোজনার ক্ষেত্রে মন্ত্রকের এই নীতি-নির্দেশিকা প্রযোজ্য হবে বলেও স্পষ্ট জানানো হয়েছে।
বিস্তারিত বিবরণ - https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1648211

ডেডিকেটেড ফ্রেট করিডর কর্পোরেশন ইন্ডিয়া লিমিটেডের কাজকর্মের অগ্রগতি পর্যালোচনায় শ্রী পীযূষ গোয়েল
রেলমন্ত্রী শ্রী পীযূষ গোয়েল আজ ডেডিকেটেড ফ্রেট করিডরের কাজকর্মের অগ্রগতি পর্যালোচনা করে দেখেছেন। উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের সঙ্গে এ সম্পর্কিত এক বৈঠকে শ্রী গোয়েলকে ডেডিকেটেড ফ্রেট করিডরগুলির কাজকর্মের অগ্রগতির বিষয়ে অবহিত করা হয়। বৈঠকে জানানো হয়েছে, লুধিয়ানার কাছে শাহনেওয়াল থেকে পশ্চিমবঙ্গের ডানকুনি পর্যন্ত পূর্বাঞ্চলীয় করিডর এবং উত্তরপ্রদেশের দাদরি থেকে মুম্বাইয়ের জওহরলাল নেহরু বন্দর পর্যন্ত পশ্চিমাঞ্চলীয় করিডরের কাজ ২০২১-এর ডিসেম্বর নাগাদ শেষ হবে বলে জানানো হয়েছে। শ্রী গোয়েল ডেডিকেটেড ফ্রেট করিডর কর্পোরেশন লিমিটেডকে প্রকল্পগুলির কাজ দ্রুত শেষ করার নির্দেশ দিয়েছেন।
বিস্তারিত বিবরণ - https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1648203

গরিবকল্যাণ রোজগার অভিযানের আওতায় ২১ আগস্ট পর্যন্ত ভারতীয় রেল লক্ষ ৪০ হাজারের বেশি শ্রমদিবস তৈরি করেছে
ভারতীয় রেল বিহার, ঝাড়খণ্ড, মধ্যপ্রদেশ, ওড়িশা, রাজস্থান ও উত্তরপ্রদেশ – এই ছয়টি রাজ্যে গরিবকল্যাণ রোজগার অভিযানের আওতায় ৬ লক্ষ ৪০ হাজারের বেশি কর্মদিবস তৈরি করেছে। রেলমন্ত্রী শ্রী পীযূষ গোয়েল ব্যক্তিগত এই অভিযানের আওতায় রেলের পরিচালিত কর্মকাণ্ডগুলির ওপর নিয়মিত তদারকি করছেন। এই ছয়টি রাজ্যের প্রবাসী শ্রমিকরা প্রায় ১৬৫টি রেলের পরিকাঠামোগত প্রকল্পে যুক্ত হয়েছেন। গত ২১ আগস্ট পর্যন্ত ১২,২৭৬ জন শ্রমিক রেলের পরিকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পে যুক্ত হয়ে ৬ লক্ষ ৪০ হাজারের বেশি শ্রমদিবস তৈরি করেছেন এবং শ্রমিকদের মজুরিবাবদ রেল ১,৪১০ কোটি ৩৫ লক্ষ টাকা মিটিয়েছে।
বিস্তারিত বিবরণ - https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1648063

খাদ্য গণবন্টন জাতীয় খাদ্য সুরক্ষা আইনের আওতায় সমস্ত যোগ্য ভিন্নভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের সামিল করতে রাজ্য / কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে নির্দেশিকা জারি করেছে
কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে রাজ্যগুলিকে ২০১৩-র জাতীয় খাদ্য সুরক্ষা আইন যথাযথভাবে কার্যকর করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় খাদ্য ও গণবন্টন দপ্তর এই মর্মে রাজ্যগুলিকে চিঠি পাঠিয়ে বলেছে, ২০১৩-র জাতীয় খাদ্য সুরক্ষা আইনের ৩৮ নং ধারা অনুযায়ী, ভিন্নভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের এই প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। জাতীয় খাদ্য সুরক্ষা আইন এবং প্রধানমন্ত্রী গরিবকল্যাণ অন্ন যোজনায় যাতে এই সমস্ত ব্যক্তিরা প্রকল্পের সুবিধা পেতে পারেন, তার জন্য খাদ্য ও গণবন্টন দপ্তর রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলেছে। যাঁরা এই প্রকল্পের আওতাভুক্ত হতে পারেন অথচ রেশন কার্ড নেই, সেই সমস্ত ব্যক্তিরা যাতে দ্রুত রেশন কার্ড পান তা রাজ্যগুলিকে নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। দপ্তরের পক্ষ থেকে রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভিন্নভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে তাঁদের অন্ত্যোদয় অন্ন যোজনার আওতায় নিয়ে আসার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
বিস্তারিত বিবরণ - https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1648050

 

 


পিআইবি-আঞ্চলিক কার্যালয়গুলি থেকে প্রাপ্ত তথ্য

. কেরল : রাজ্যে আজ দুপুর পর্যন্ত আরও সাতজনের মৃত্যুর খবর মেলায় করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৩০ হয়েছে। রাজ্য রাজধানী সহ চারটি জেলায় করোনা সংক্রমণ দ্রুত ছড়াচ্ছে। এদিকে রাজ্যে গতকাল আরও ১,৯০৮ জনের সংক্রমণের খবর মেলায় ২০,৩৩০ জন ব্যক্তি বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় ১ লক্ষ ৮২ হাজারের বেশি ব্যক্তি চিকিৎসা নজরদারিতে রয়েছে।


. তামিলনাড়ু : রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন আগামী দু’সপ্তাহে সরকার এমন এক স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা শুরু করতে চলেছে যাতে সাধারণ মানুষ কোভিড-১৯ সংক্রান্ত নমুনা পরীক্ষার পরিণাম এসএমএস-এর মাধ্যমে পেতে পারেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেছেন, আন্তঃরাজ্য ও রাজ্যের বাইরে যাতায়াতের ক্ষেত্রে কেন্দ্রের জারি করা সিদ্ধান্ত কোভিড-১৯ মোকাবিলার ক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠবে। এদিকে রাজ্যে গতকাল আরও ৯৭ জনের মৃত্যুর খবর মেলায় করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬৫১৭ হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৩ লক্ষ ৮০ হাজার। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৩,৫৪১ জন।

. কর্ণাটক : রাজ্য সরকার প্লাজমা থেরাপির নীতি-নির্দেশিকা প্রণয়ন করেছে। যেসব ব্যক্তি করোনা থেকে আরোগ্য লাভ করেছেন, তাঁরা স্বেচ্ছায় প্লাজমা দান করতে পারবেন। রাজ্যে করোনায় সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৬৮.২৩ শতাংশ। গতকাল আরও ৬৮ জনের মৃত্যুর খবর মেলায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪,৬৮৩। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লক্ষ ৭৭ হাজারের বেশি। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮৩,৫৫১ জন।

. অন্ধ্রপ্রদেশ : রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত। জুনিয়র চিকিৎসকরা তাঁদের দাবি পূরণ করা না হলে আগামীকাল থেকে আপৎকালীন পরিষেবা বয়কটের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এদিকে রাজ্যে গতকাল আরও ৯৩ জনের মৃত্যুর খবর মেলায় করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩,২৮২ হয়েছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লক্ষ ৫৩ হাজার ছাড়িয়েছে। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮৯,৭৪২ জন। সুস্থ হয়েছেন ২ লক্ষ ৬০ হাজারের বেশি।

. তেলেঙ্গানা : রাজ্যে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ছয়জনের মৃত্যুর খবর মেলায় করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৭৬১ হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষ ৬ হাজার ছাড়িয়েছে। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২২,৯১৯ জন। সুস্থ হয়েছেন ৮২,৪১১ জন। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শ্রী জি কিষাণ রেড্ডি হায়দরাবাদে গতকাল রাজ্যের প্রথম কোভিড-১৯ সংক্রান্ত প্লাজমা ব্যাঙ্কের উদ্বোধন করেছেন।

. আসাম : রাজ্যে গতকাল আরও ১,২৭২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। সুস্থ হয়েছে ৩,২৫৯ জন। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৯,৫৯৫ এবং মৃত্যু হয়েছে ২৪২ জনের।

. মণিপুর : রাজ্যে আরও ১৪১ জনের সংক্রমণের খবর মিলেছে। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১,৬০৮ জন। সুস্থতার হার বেড়ে হয়েছে ৬৯ শতাংশ।

. মেঘালয় : রাজ্যে নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১,১৩৩ এবং সুস্থ হয়েছেন ৭৭৬ জন।

. মিজোরাম : রাজ্যের কোলাসিগ জেলার তিনটি গ্রাম থেকে কোভিড-১৯ সংক্রমণের খবর মেলায় এই তিনটি গ্রামেই লকডাউন কার্যকর করা হয়েছে।


. নাগাল্যান্ড : রাজ্যর তুয়েনসাং জেলায় দু’দিনের সম্পূর্ণ লকডাউন আজ থেকে কার্যকর হয়েছে। এদিকে জেলা প্রশাসন দু’জন কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীকে মেইন বাজারে স্থানান্তরিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

. সিকিম : রাজ্যে আরও ৪৩ জন করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৫০৯। এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৯৩৪ জন।

. মহারাষ্ট্র : মুম্বাইয়ে নেসকো জাম্বো কোভিড সেন্টারে করোনা ভাইরাস সংক্রমিতদের চিহ্নিতকরণের জন্য পরীক্ষামূলকভাবে ভোকাল টেস্টিং পদ্ধতি শুরু হয়েছে। সন্দেহজনক রোগীদের ভয়েস স্যাম্পেল বা কন্ঠ নমুনা স্বর সংগ্রহ করা হচ্ছে। এই পদ্ধতিতে নমুনা পরীক্ষার পাশাপাশি, মুম্বাইয়ে আরটি-পিসিআর পদ্ধতিতেও নমুনা পরীক্ষা চালু থাকবে।

. গুজরাট : আমেদাবাদ পুর নিগম ধাপে ধাপে বেসরকারি হাসপাতালগুলির ওপর থেকে কোভিড হাসপাতাল হিসেবে প্রদেয় তকমা তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ও মৃত্যু হার ধীরে ধীরে কমে আসছে। করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা পূর্বের ৩৫ শতাংশ কমে এখন ২.৫ শতাংশে দাঁড়িয়েছে।

. রাজস্থান : রাজ্যে গত ছয়দিনে আরও ১০ হাজার ব্যক্তির নতুন করে সংক্রমণের খবর মিলেছে। এর ফলে, আক্রান্তের সংখ্যা ৭০ হাজার ছাড়িয়েছে। আগে, ৫০ হাজার থেকে আক্রান্তের সংখ্যা ৬০ হাজারে পৌঁছেছে নয়দিনে। এখন আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজারে পৌঁছতে তিনদিন কমে ছয়দিন হয়েছে।

. মধ্যপ্রদেশ : রাজ্যে গতকাল এযাবৎ একদিনেই সর্বাধিক ১,২৬৩ জনের সংক্রমিত হওয়ার খবর মেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫৩,১২৯ হয়েছে। সর্বাধিক ১৯৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন ইন্দোর থেকে। ভোপাল থেকে আক্রান্তের সংখ্যা ১৬১ এবং গোয়ালিয়র থেকে আক্রান্ত হয়েছেন ১১৮ জন।

 

 

CG/BD/DM



(Release ID: 1648361) Visitor Counter : 10