স্বাস্থ্যওপরিবারকল্যাণমন্ত্রক

প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশে স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে কোভিডের বিরুদ্ধে দেশের অদম্য লড়াইকে কুর্নিশ জানিয়েছেন

জাতীয় ডিজিটাল স্বাস্থ্য মিশনের কথা ঘোষণা করেছেন

Posted On: 15 AUG 2020 2:28PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ১৫ আগস্ট, ২০২০

 

 


বর্তমান কোভিড-১৯ মহামারী পরিস্থিতি এবং এই সঙ্কট মোকাবিলায় ভারতের পর্যায়ক্রমিক তথা সক্রিয় প্রয়াস, যেগুলি ভারতকে আত্মনির্ভর করে তুলেছে - সেই সমস্ত কথা ৭৪তম স্বাধীনতা দিবসে জাতির উদ্দেশে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন। শ্রী মোদী স্বাস্থ্যক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় সরকারের সাফল্যের কথাগুলিও তুলে ধরেন।

করোনা ভাইরাসের দরুণ যে সমস্ত ব্যক্তি প্রয়াত হয়েছেন, তাঁদের পরিবারগুলির প্রতি সমবেদনা জানিয়ে শ্রী মোদী বলেন, ভারতের করোনা সেনানীদের প্রশংসা জানানো প্রয়োজন। এঁরা সকলেই 'সেবা পরম ধর্ম' – এই মন্ত্রকে আত্মস্থ করে দৃষ্টান্তমূলক প্রয়াসের নজির রেখেছেন। প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে পুনরায় আশ্বস্ত করে বলেন, “আমরা করোনার বিরুদ্ধে জয়ী হব। অদম্য ইচ্ছাশক্তিই আমাদের জয়ের পথে এগিয়ে নিয়ে যাবে।”

কোভিড-১৯ মহামারীর মধ্যে আত্মনির্ভরতা অর্জনের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী আত্মনির্ভর ভারত গড়ে তুলতে দেশবাসীর মানসিক চেতনার কথা উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, দেশে এখন পিপিই কিট, এন-৯৫ মাস্ক, ভেন্টিলেটর প্রভৃতি তৈরি হচ্ছে। এক সময় এই চিকিৎসা সামগ্রীগুলি দেশীয় পদ্ধতিতে উৎপাদনের ব্যবস্থা ছিল না। বিপুল সংখ্যায় গুণগত মানের এ ধরনের সামগ্রী উৎপাদনে ভারতের সক্ষমতা 'ভোকাল ফর লোকাল' মতবাদকে প্রতিফলিত করে।

লালকেল্লার প্রাকার থেকে আজ জাতির উদ্দেশে ভাষণে কোভিড-১৯ নমুনা পরীক্ষার ক্ষেত্রে ভারতের ধারাবাহিক অগ্রগতির কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, দেশে গত জানুয়ারির গোড়ায় নমুনা পরীক্ষাগারের সংখ্যা ১টি থেকে বেড়ে এখন ১,৪০০-র বেশি হয়েছে। "আমরা আগে দৈনিক ভিত্তিতে কেবল ৩০০টি করে নমুনা পরীক্ষা করেছি; কিন্তু আজ আমরা দৈনিক ৭ লক্ষের বেশি নমুনা পরীক্ষা করছি। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই আমরা এই বিরাট সাফল্য অর্জন করেছি,” বলে শ্রী মোদী উল্লেখ করেন। শ্রী মোদী এবারের স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে করোনা টিকা উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে ভারতের রণকৌশলের কথাও উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, বিজ্ঞানীরা দৃঢ় ও অদম্য মানসিকতা নিয়ে টিকা উদ্ভাবনের কাজ করে চলেছেন। বর্তমানে তিনটি টিকা গুণমান যাচাইয়ের বিভিন্ন পর্যায়ে রয়েছে। বিজ্ঞানীরা টিকার ব্যাপারে সবুজ সঙ্কেত দিলেই বিপুল পরিমাণে উৎপাদন প্রক্রিয়া শুরু হবে। তিনি আরও জানান, করোনা ভাইরাসের টিকা উৎপাদন ও তার বন্টনের জন্য ইতিমধ্যেই একটি নীল নকশা তৈরি হয়েছে।

চিকিৎসা-শিক্ষা ও স্বাস্থ্য পরিকাঠামো ক্ষেত্রের মানোন্নয়নে দেশের নিরন্তর প্রয়াসের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এইমস-এর ধাঁচে গড়ে ওঠা নতুন চিকিৎসা প্রতিষ্ঠান ও মেডিকেল কলেজগুলি চিকিৎসা পরিকাঠামো ব্যবস্থাকে আরও মজবুত করতে সাহায্য করবে। ইতিমধ্যেই এমবিবিএস এবং এমডি কোর্সে ৪৫ হাজারের বেশি আসন তৈরি করা হয়েছে। 'আয়ুষ্মান ভারত' স্বাস্থ্য ও রোগীকল্যাণ কেন্দ্রগুলির ভূমিকার প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই কেন্দ্রগুলি চলতি মহামারীর সময় কোভিড বহির্ভূত চিকিৎসা পরিষেবা অব্যাহত রেখেছে। দেশে ১ লক্ষ ৫০ হাজার স্বাস্থ্য ও রোগীকল্যাণ কেন্দ্র গড়ে তোলা প্রসঙ্গে শ্রী মোদী জানান, ইতিমধ্যেই এ ধরনের এক-তৃতীয়াংশ কেন্দ্র চালু হয়েছে। তিনি আশা প্রকাশ করেন, স্বাস্থ্যক্ষেত্রে পরিষেবার মানোন্নয়নে আয়ুষ্মান ভারত প্রধানমন্ত্রী জন-আরোগ্য যোজনা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে।

জাতীয় ডিজিটাল স্বাস্থ্য মিশনের কথা ঘোষণা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রত্যেক নাগরিককে অভিনব স্বাস্থ্য পরিষেবা সংক্রান্ত আইডি বা পরিচিতি সংখ্যা দেওয়া হবে। এর ফলে, সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির আইডি-তে রোগ, ডায়াগনসিস, সর্বশেষ ফলাফল প্রভৃতির কথা উল্লেখ থাকবে। অভিন্ন এক তথ্যভাণ্ডার ব্যবস্থার মাধ্যমে এই কর্মকাণ্ড পরিচালিত হবে।

 

 


CG/BD/DM



(Release ID: 1646121) Visitor Counter : 153