ক্রেতা, খাদ্যএবংগণবন্টনমন্ত্রক

আজ থেকে উপভোক্তা সুরক্ষা আইন, ২০১৯ কার্যকর হয়েছে

Posted On: 20 JUL 2020 4:53PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি,২০ জুলাই, ২০২০

 



উপভোক্তা সুরক্ষা আইন,২০১৯আজ কার্যকর হয়েছে। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আজ কেন্দ্রীয় উপভোক্তা,খাদ্যও গণবন্টন দপ্তরের মন্ত্রী শ্রী রামবিলাস পাসোয়ান উপভোক্তাসুরক্ষা আইন, ২০১৯সম্পর্কে ব্যাখ্যা করতে গিয়ে জানান, এই নতুন আইনটির ফলে উপভোক্তাদের আরও বেশি করে ক্ষমতায়ন হবে। উপভোক্তা সুরক্ষা পর্ষদ, উপভোক্তা বিরোধ নিরসন কমিশন, ভেজাল/জালিয়াতিমূলক পণ্যসামগ্রী বিক্রয় বা বিক্রয়ের চেষ্টার জন্য শাস্তির ক্ষেত্রে এই আইন যথাযথভাবে  সাহায্য করবে এবং উপভোক্তাদের অধিকার রক্ষা করবে। তিনি বলেন, এই আইনে গ্রাহকদের সুরক্ষারবিষয়ে প্রচার ও প্রয়োগের জন্য কেন্দ্রীয় উপভোক্তা সুরক্ষা কর্তৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। উপভোক্তাদের অধিকার লঙ্ঘনও অভিযোগ যথাযথভাবে বিচার করে দেখা হবে। বিভ্রান্তিকর বিজ্ঞাপন বন্ধের আদেশ, বিভ্রান্তিমূলক বিজ্ঞাপন নির্মাতা /সমর্থনকারী/প্রকাশকদেরওপর জরিমানা আরোপের বিষয়ে কেন্দ্রীয় উপভোক্তা সুরক্ষা কর্তৃপক্ষকে আরও বেশি ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। শ্রীপাসোয়ান বলেন, ই-প্ল্যাটফর্মগুলির অন্যায়ভাবে বাণিজ্য পরিচালনার ক্ষেত্রে প্রতিরোধ মূলক ব্যবস্থাপনাও এই আইনের আওতায় আনা হয়েছে। কেন্দ্রীয় উপভোক্তা সুরক্ষা কর্তৃপক্ষ গেজেট বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলির অন্যায়ভাবে বাণিজ্য পরিচালন প্রতিরোধ বিধি এই আইনের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, এই আইনের অধীনে প্রত্যেক ই-কমার্স সংস্থাকে তার পণ্য ফেরত, বিনিময়, ওয়ারেন্টি, গ্যারান্টি, বিতরণ, চালান, প্রদানের পদ্ধতি,অভিযোগ প্রতিকারের ব্যবস্থাপনা সম্পর্কিত তথ্য সরবরাহ করতেহবে। তিনি বলেন, ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মগুলিকে উপভোক্তাদের কাছ থেকে পাওয়া যে কোন অভিযোগ ৪৮ ঘন্টার মধ্যে প্রাপ্তিস্বীকার করতে হবে এবং এই আইনের অধীনে প্রাপ্তির তারিখ থেকে এক মাসের মধ্যে অভিযোগটির নিষ্পত্তি করতে হবে। কেন্দ্রীয়মন্ত্রী আরও বলেন,নতুনএই আইনে ক্ষতিপূরণ দাবির ক্ষেত্রে পণ্য প্রস্তুতকারক, পণ্যপরিষেবা সরবরাহকারী এবং পণ্যবিক্রেতাকেও আনা হয়েছে। শ্রীপাসোয়ান জানান, এইনতুন আইনে উপভোক্তাদের বিরোধনিষ্পত্তি প্রক্রিয়া সহজ করা হয়েছে। উপভোক্তারা অনলাইনের মাধ্যমে অভিযোগ দায়ের করবেন। শুনানির জন্যভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে হাজির থাকতে পারবেন। মন্ত্রীবলেন, উপভোক্তা বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশন ৫ লক্ষটাকা পর্যন্ত মামলা দায়েরের ক্ষেত্রে কোন ফি নেবে না। মামলায় দোষী সাব্যস্ত হলেওই ব্যক্তির যে কোন লাইসেন্স দু’বছর পর্যন্তস্থগিত রাখা হবে। শ্রীপাসোয়ান বলেন,কেন্দ্রীয় উপভোক্তা সুরক্ষা পর্ষদ গঠনের জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। উপভোক্তা সুরক্ষা আইন, ২০১৯ সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্যজানার জন্য https://static.pib.gov.in/WriteReadData/userfiles/PIB%20Delhi/CPA%202019-%20PPT-20%20July,%202020.pdf -এইলিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

 



CG/SS/DM



(Release ID: 1640071) Visitor Counter : 2221