PIB Headquarters

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত পিআইবি’র প্রাত্যহিক সংবাদ

Posted On: 27 APR 2020 6:57PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ২৭ এপ্রিল, ২০২০

 

 

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের পক্ষ থেকে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ তথ্য

দেশে এখনও পর্যন্ত ৬ হাজার ১৮৪ জন সুস্থ হয়েছেন। সুস্থতার হার ২২.১৭ শতাংশ। গতকাল থেকে আরও ১ হাজার ৩৯৬ জনের আক্রান্তের খবর মিলেছে। দেশে কোভিড-১৯ এ নিশ্চিতভাবে আক্রান্তের সংখ্যা ২৭ হাজার ৮৯২। গত ২৪ ঘন্টায় আরও ৪৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর ফলে, দেশে মৃত্যু হয়েছে ৮৭২ জনের। দেশের ১৬টি রাজ্য, যেখানে আগে সংক্রমণের খবর পাওয়া গিয়েছিল, সেখানে গত ২৮ দিনে নতুন করে আক্রান্তের খবর নেই। গত ১৪ দিনে ৮৫টি জেলা থেকে নতুন করে আক্রান্তের খবর আসেনি। খাদ্য ও ওষুধপত্র পরিবহণকারী লরির যাতায়াতের হার ৩০শে মার্চের ৪৬ শতাংশ থেকে বেড়ে ২৫শে এপ্রিল পর্যন্ত ৭৬ শতাংশ হয়েছে। ঐ একই সময়ে পণ্যবাহী ট্রেন পরিষেবা ৬৭ শতাংশ থেকে বেড়ে ৭৬ শতাংশ হয়েছে। বন্দরগুলিতে জাহাজ চলাচলের হার ৭০ শতাংশ থেকে বেড়ে ৮৭ শতাংশ হয়েছে। একই সঙ্গে, গুরুত্বপূর্ণ কৃষি বাজারগুলিতে কাজকর্মের হার বেড়ে ৬১ শতাংশ থেকে ৭৯ শতাংশ হয়েছে। বিভিন্ন সরকারি সংস্থা, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এবং শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলির পক্ষ থেকে দেড় কোটিরও বেশি মানুষকে রান্না করা খাবর সরবরাহ করা হচ্ছে। অত্যাবশ্যক সামগ্রীর সরবরাহ-শৃঙ্খলে বাধা-বিপত্তি দূর করতে সরকার সংশ্লিষ্ট নীতিগুলি শিথিল করার ওপর জোর দিচ্ছে।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1618722 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

কোভিড-১৯ মোকাবিলায় পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আজ কোভিড-১৯ মহামারীজনিত উদ্ভূত পরিস্থিতি এবং পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে আলোচনার জন্য ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রাজ্যগুলির মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেন। লকডাউনের ফলে ভালো পরিণাম পাওয়া গেছে বলে মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী জানান, এর ফলে গত দেড় মাসে হাজার হাজার মানুষের জীবন বাঁচানো সম্ভব হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ভারতের জনসংখ্যা বেশ কয়েকটি দেশের সম্মিলিত জনসংখ্যার সমতুল। ভারত সহ বহু দেশে কোভিড-১৯ পরিস্থিতি মার্চ মাসের গোড়ায় প্রায় একই রকম ছিল। অবশ্য, সময় মতো পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে ভারত বহু মানুষের জীবন রক্ষায় সক্ষম হয়েছে। ভাইরাসের বিপদ এখনও এড়ানো যায়নি বলে মুখ্যমন্ত্রীদের সতর্ক করে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, নিরন্তর নজরদারির এখনও প্রয়োজন রয়েছে। আসন্ন গ্রীষ্ম ও বর্ষা মরশুমে অসুস্থতার সম্ভাবনা প্রসঙ্গে আবহাওয়াগত পরিবর্তনগুলির ব্যাপারে আগাম কর্মপরিকল্পনা তৈরির জন্য তিনি মুখ্যমন্ত্রীদের প্রতি আহ্বান জানান।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1618628 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

র‍্যাপিড অ্যান্টিবডি নমুনা পরীক্ষা সরঞ্জামের মূল্য সংক্রান্ত বিতর্ক নিয়ে প্রকৃত তথ্য

কোভিড-১৯ মোকাবিলায় নমুনা পরীক্ষা অন্যতম একটি গুরুত্বপূর্ণ হাতিয়ার। ভারতীয় চিকিৎসা গবেষণা পরিষদ (আইসিএমআর) নমুনা পরীক্ষার হার বাড়াতে সম্ভাব্য সবকিছু করছে। তবে, নমুনা পরীক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় কিট সংগ্রহের প্রয়োজন হয়। পরে এই কিটগুলি রাজ্যগুলিতে পাঠানো হয়। এমন একটি সময় এ ধরনের কিট সংগ্রহ করা হচ্ছে, যখন সারা বিশ্ব জুড়ে এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। বিভিন্ন দেশ বিপুল পরিমাণে এ ধরনের কিট সংগ্রহে প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। সেজন্য আর্থিক বিষয়ের পাশাপাশি, কূটনৈতিক যোগাযোগকেও কাজে লাগানো হচ্ছে। বিজ্ঞানসম্মত পদ্ধতিতে নমুনা পরীক্ষা কিটের গুণমান যাচাইয়ের ওপর ভিত্তি করে কিট সংগ্রহ করা হয়। তাই, যে কিটগুলির গুণমান যাচাইয়ের পর নিম্নমানের পরিণাম আসে, সেগুলি বাতিল করে দেওয়া হয়। ভারতীয় চিকিৎসা গবেষণা পরিষদের পক্ষ থেকে কিট সরবরাহের ক্ষেত্রে পেমেন্ট বা মাশুল মেটনো হয় না। যথাযথ বিজ্ঞানসম্মত পদ্ধতি অনুসরণের পর কেন্দ্রীয় সরকার নমুনা পরীক্ষার কিট সংগ্রহ করে থাকে। তবে, নিম্নমানের কিট সংগ্রহের ক্ষেত্রে সরকার এক টাকাও ক্ষতি করতে রাজি নয়।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1618664 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

সরকারি কর্মচারীদের অবসর গ্রহণের বয়স কমানোর এবং এ সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে আলোচনা বা পরিকল্পনার কোনও প্রস্তাব সরকারের কাছে নেই : ডঃ জিতেন্দ্র সিং

সরকারি কর্মচারীদের অবসর গ্রহণের বয়স কমিয়ে ৫০ বছর করার ব্যাপারে সরকার চিন্তাভাবনা করছে বলে এক শ্রেণীর সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবর সম্পূর্ণ নাকচ করে দিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ডঃ জিতেন্দ্র সিং স্পষ্টভাবে জানিয়েছেন কর্মচারীদের অবসর গ্রহণের বয়স বা এই ধরনের বিষয় নিয়ে আলোচনা এবং পরিকল্পনার কোনও প্রস্তাব সরকারের কাছে নেই।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1618462 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

ডঃ হর্ষ বর্ধন এইমস্‌ ট্রমা সেন্টারের প্রস্তুতি খতিয়ে দেখলেন

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী ডঃ হর্ষ বর্ধন কোভিড-১৯ মোকাবিলায় যাবতীয় প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে আজ নতুন দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইন্সটিটিউট অফ মেডিকেল সায়েন্সেসের জয় প্রকাশ নারায়ণ অ্যাপেক্স ট্রমা সেন্টার ঘুরে দেখেন এবং সেখানকার চিকিসা পরিষেবা সম্পর্কে খোঁজখবর নেন। ডঃ হর্ষ বর্ধন জানান, এইমস্‌ – এর এই ট্রমা কেয়ার সেন্টারটি কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের চিকিসার উপযোগী করে তোলা হয়েছে এবং এখানে ২৫০ শয্যার আইসোলেশন ওয়ার্ড রয়েছে। এই ট্রমা কেয়ার সেন্টার পরিদর্শনের সময় তিনি সেখানকার আপকালীণ ওয়ার্ড, প্রাইভেট ওয়ার্ড, আইসিইউ প্রভৃতি পরিষেবা ঘুরে দেখেন। এই হাসপাতালের শৌচাগারগুলিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা হচ্ছে কিনা, সে ব্যাপারেও তিনি খোঁজখবর নেন। ট্রমা কেয়ার সেন্টার পরিদর্শনের সময় ডঃ হর্ষ বর্ধন কয়েকজন রোগীর সঙ্গে মোবাইল ফোন থেকে ভিডিও কলে সাক্ষা করেন। রোগীদের কাছ থেকে তিনি পরিষেবার ব্যাপারে মতামত জানতে চান, যাতে অবিলম্বে মানোন্নয়নের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া যায়।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1618465 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

উত্তর-পূর্বের ৮টি রাজ্যের মধ্যে ৫টি করোনা মুক্ত; বাকি ৩টি রাজ্য থেকে বিগত কয়েকদিনে নিশ্চিতভাবে করোনা আক্রান্তের খবর আসেনি : ডঃ জিতেন্দ্র সিং

উত্তর-পূর্বের ৮টি রাজ্যের মধ্যে ৫টি রাজ্যই করোনা মুক্ত হয়েছে। বাকি তিনটি রাজ্য থেকে বিগত কয়েকদিনে নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের কোনও খবর আসেনি। উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় পরিষদের আধিকারিকদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এক পর্যালোচনা বৈঠকে একথা জানান ডঃ জিতেন্দ্র সিং। এই পর্যালোচনা বৈঠকে একাধিক সরকারি প্রতিষ্ঠান এবং রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাগুলির প্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1618715 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

কখনোই রিপোর্ট চাওয়া হয়নি, তদন্তের উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে : সিবিডিটি

কেন্দ্রীয় প্রত্যক্ষ কর পর্ষদ (সিবিডিটি) আজ জানিয়েছে, কোভিড-১৯ পরিস্থিতি মোকাবিলায় কয়েকজন ইন্ডিয়ান রেভিনিউ সার্ভিসের আধিকারিকের মতামত ও দৃষ্টিভঙ্গী সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোরাফেরা করছে। এই প্রেক্ষিতে পর্ষদের পক্ষ থেকে দ্ব্যর্থহীন ভাষায় জানানো হয়েছে, রেভিনিউ সার্ভিসের আধিকারিক বা তাঁদের সংগঠনের কাছ থেকে কোভিড-১৯ মোকাবিলায় কোনও রকম প্রতিবেদন পাঠানোর জন্য বলা হয়নি। এমনকি, এই আধিকারিকরা জনসমক্ষে তাঁদের মতামত প্রচারের আগে কোনও অনুমতিও নেননি। এই আধিকারিকরা নিজেদের ব্যক্তিগত মতামত ও দৃষ্টিভঙ্গী প্রকাশ করেছেন। তবে, সরকারি ব্যাপারে প্রস্তাব দেওয়ার বিষয়টি আদর্শ আচরণবিধির পরিপন্থী। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় তদন্তের উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। পর্ষদের পক্ষ থেকে পুনরায় বলা হয়েছে, অসত্য প্রতিবেদন সিবিডিটি বা অর্থ মন্ত্রকের সরকারি দৃষ্টিভঙ্গীকে কখনই প্রতিফলিত করে না।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1618493 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

ভারতীয় রেলের কোভিড সংক্রান্ত এমার্জেন্সি সেলে প্রতিদিন প্রায় ১৩ হাজারের মতো প্রশ্ন, অনুরোধ ও প্রস্তাবের জবাব দেওয়া হচ্ছে

ভারতীয় রেল সাধারণ যাত্রী এবং বাণিজ্যিক এজেন্টদের সুবিধার্থে এক সামগ্রিক প্রয়াস নিয়েছে। এই প্রয়াসের অঙ্গ হিসাবে ভারতীয় রেল কোভিড-১৯ সংক্রান্ত যে আপৎকালীন সেল বা জবাবদিহি সেন্টার গঠন করেছে, সেখান থেকে দৈনিক প্রায় ১৩ হাজার প্রশ্ন, অনুরোধ ও প্রস্তাবের জবাব দেওয়া হচ্ছে। এসবের উদ্দেশ্যই হ’ল – লকডাউন চলাকালীন সময় জাতীয় পর্যায়ে সরবরাহ-শৃঙ্খল অব্যাহত রাখা।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1618639 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

কোভিড-১৯ মহামারীকে সুযোগে পরিণত করতে প্রবাসী ভারতীয় ছাত্রছাত্রীদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা গ্রহণের আহ্বান জানালেন শ্রী নীতিন গড়করি

কেন্দ্রীয় অতিক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি শিল্পোদ্যোগ মন্ত্রী শ্রী নীতিন গড়করি বিগত কয়েক দিনে ওয়েবইনার, ভিডিও কনফারেন্স এবং বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে সমাজের বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষের কাছে পৌঁছে যেতে এক বড় উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। এই উদ্যোগের অঙ্গ হিসাবে প্রায় ১ কোটি ৩০ লক্ষ মানুষের কাছে পৌঁছে যাওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এই উদ্যোগের অঙ্গ হিসাবে শ্রী গড়করি বিশ্ব মহামারীতে ‘ভারতের ভূমিকা, ভারতের পরিকল্পনা’ শীর্ষক বিষয়ে গ্রেট ব্রিটেন, কানাডা, সিঙ্গাপুর, ইউরোপের বিভিন্ন দেশ এবং অস্ট্রেলিয়ায় প্রবাসী ভারতীয় ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে শ্রী গড়করি মতবিনিময় করেন। ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ভারতের ভবিষ্য পরিকল্পনা বিশ্ব মহামারীর প্রেক্ষিতে উদ্ভূত চ্যালেঞ্জগুলিকে সুযোগে পরিণত করতে ইতিবাচক পদক্ষেপ নিতে হবে। দেশীয় সংস্থাগুলির কাজকর্মে মহামারীর ফলে প্রভাব পড়তে চলেছে। পরবর্তী পরিস্থিতিতে শিল্প সংস্থাগুলি কাজকর্মের নতুন পদ্ধতি খুঁজে বের করতে হবে।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1618556 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

কোভিড-১৯ লকডাউনের সময় লাইফলাইন উড়ান পরিষেবার আওতায় দেশের বিভিন্ন স্থানে ৬৮৪ টনেরও বেশি অত্যাবশ্যক ও চিকিৎসা সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়েছে

কোভিড-১৯ লকডাউনের সময় লাইফলাইন উড়ান পরিষেবার আওতায় দেশের বিভিন্ন জায়গায় অত্যাবশ্যক ও চিকিৎসা সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে ভারতের লড়াইয়ে সরকারের প্রচেষ্টার অঙ্গ হিসাবে এয়ার ইন্ডিয়া, অ্যালায়েন্স এয়ার, ভারতীয় বিমান বাহিনী এবং বেসরকারি সংস্থার ৩৮৩টি বিমানে করে এখনও পর্যন্ত ৬৮৪ টনের বেশি পণ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। এই বিমানগুলি পণ্য পৌঁছে দেওয়ার জন্য আকাশপথে ৩ লক্ষ ৭৬ হাজারেরও বেশি দূরত্ব অতিক্রম করেছে। পবন হংস সংস্থার হেলিকপ্টারগুলি জম্মু ও কাশ্মীর, লাদাখ, উত্তর-পূর্ব এবং দ্বীপপুঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় গুরুত্বপূর্ণ চিকিৎসা সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছে এবং গুরুতর অসুস্থ রোগীদের স্থানান্তরিত করছে।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1618470 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

নোভেল করোনা ভাইরাস মহামারীর সময় কেন্দ্রীয় সরকারের যে কোনও প্রয়োজন মেটাতে ভারতীয় বায়ুসেনার প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে

ভারতীয় বায়ুসেনা রাজ্য সরকার এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠান, যারা কোভিড-১৯ মোকাবিলায় নিরন্তর কাজ করে চলেছে, তাদের প্রচেষ্টাগুলিকে আরও জোরদার করতে চিকিৎসা ও অত্যাবশ্যক রেশন সামগ্রী পৌঁছে দিতে নিজেদের প্রয়াস চালিয়ে যাবে বলে জানিয়েছে।

বিস্তারিত বিবরণের জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1618720 – এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

 

 

পিআইবি’র আঞ্চলিক কার্যালয় থেকে প্রাপ্ত তথ্য

 

· পাঞ্জাব : রাজ্যে সরকারি এজেন্সিগুলি ও ব্যবসায়ীরা ৬ লক্ষ ৭৯ হাজার মেট্রিক টনের বেশি গম সংগ্রহ করেছেন। কলকারাখানায় কর্মরত শ্রমিকদের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তর কর্মক্ষেত্রে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য নির্দেশিকা জারি করেছে। নিয়োগ কর্তাদের এক নির্দেশিকায় কর্মচারীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি নিশ্চিত করার জন্য বলা হয়েছে। তাঁদের আরও বলা হয়েছে, কর্মীদের মধ্যে কোনও রকম উপসর্গ দেখা দিলেই সেগুলি গোপন না রেখে স্বেচ্ছায় তথ্য প্রকাশ করা ও চিকিৎসা পরামর্শ নিতে বলা হয়েছে। কোভিড-১৯ সংক্রান্ত গুজবে কান না দিয়ে প্রকৃত তথ্য যাচাইয়ের জন্য নিয়োগকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

 

· হরিয়ানা : রাজ্য সরকার কোভিড-১৯ চিকিৎসার কাজে যুক্ত স্বাস্থ্য কর্মীদের বিরুদ্ধে যে কোনও ধরনের হিংসাত্মক ঘটনা প্রতিরোধে রাজ্য ও জেলাস্তরে নোডাল আধিকারিক নিয়োগ করেছে। রাজ্য ও জেলাস্তরীয় এই আধিকারিকরা স্বাস্থ্য কর্মীদের নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ের সমাধানে দিবারাত্রি কাজ করবেন। এদিকে রাজ্যে বিগত ৫ দিনে ১ লক্ষ ৩০ হাজার ৭০৭ জন কৃষকের কাছ থেকে ১৯ লক্ষ ২৬ হাজার মেট্রিক টন গম সংগ্রহ করা হয়েছে।

 

· অরুণাচল প্রদেশ : ইটানগরের ডেপুটি কমিশনার জানিয়েছেন, আসাম থেকে আসা শাক-সব্জির ব্যবহার নিরাপদ।

 

· মণিপুর : প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে বৈঠকে যোগ দেওয়ার পর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এক ট্যুইটে জানিয়েছেন, সমস্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা কেন্দ্র ও রাজ্যগুলির মধ্যে সমবেত প্রয়াস গ্রহণের প্রয়োজনীয়তা নিয়ে আলোচনা করেছেন; গ্রিন জোন এবং কোভিড-১৯ এ সংক্রামিত নয়, এমন জেলাগুলিতে সম্ভাব্য ছাড় দেওয়া নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

 

· মেঘালয় : রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে যোগ দেওয়ার পর ঘোষণা করেছেন, লকডাউন অব্যাহত থাকবে। কিন্তু কিছু কিছু ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হবে।

 

· মিজোরাম : প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে বৈঠকে যোগ দিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অন্যান্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের মতো রাজ্য সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপগুলি নিয়ে আলোচনা করেছেন। মিজোরামের মানুষের নিয়মানুবর্তিতা ও সহযোগিতার কথাও তিনি বৈঠকে উল্লেখ করেন।

 

· নাগাল্যান্ড : রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, পর্যাপ্ত সংখ্যায় নিরাপত্তা কর্মীদের সীমান্ত এলাকাগুলিতে পাঠানো হয়েছে এবং সমস্ত প্রবেশপথ সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

 

· সিকিম : রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, সদিচ্ছা বজায় রেখে ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে রাজ্য সরকারের প্রয়াসগুলির প্রশংসা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। রাজ্যের পক্ষ থেকে যে সমস্ত তথ্য সরবরাহ করা হয়েছে, তা দেশের কিছু অংশে ভাইরাস প্রতিরোধে উপযোগী হয়েছে।

 

· ত্রিপুরা : রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, বাজারগুলিতে থার্মাল স্ক্রিনিং – এর ব্যবস্থা করা হবে। প্রকাশ্য-স্থানে থুথু ফেলা ও প্রস্রাব না করার জন্য সাধারণ মানুষের প্রতি তিনি আহ্বান জানিয়েছেন।

 

· কেরল : কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর সঙ্গে টেলিফোনে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ধাপে ধাপে লকডাউন প্রত্যাহারের ব্যাপারে আলালোচনা করেছেন। তবে, করোনা সংক্রমণের উৎস কেন্দ্রগুলিতে লকডাউন বজায় রাখার কথাও বলেছেন। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত কোনও একটি সম্প্রদায়ের মধ্যে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের খবর নেই। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আটকে পড়া দেড় লক্ষেরও বেশি কেরলবাসী রাজ্যে ফিরে আসতে চেয়ে অনলাইনে আবেদন জানিয়েছেন। গতকাল পর্যন্ত নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২৬৯। সুস্থ হয়েছেন ৩৪২ জন।

 

· তামিলনাডু : রাজ্য সরকার বর্তমান হারে ২০২১ সালের জুলাই মাস পর্যন্ত মহার্ঘ্য ভাতা না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সমস্ত আর্নড লিভ এনক্যাশমেন্ট বা এ ধরনের ছুটি বিক্রি করে আর্থিক সুবিধা গ্রহণ এক বছর বাতিল করা হয়েছে। রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, রক্তের প্লাজমা পরীক্ষার ব্যাপারে কেন্দ্রের অনুমতির অপেক্ষায় রয়েছে রাজ্য। মাদ্রাজ মেডিকেল কলেজের স্নাতকোত্তর বিভাগের দুই পড়ুয়ার নমুনায় ভাইরাসের উপস্থিতির প্রমাণ মিলেছে। রাজ্যে গতকাল পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ৮৮৫। নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮৩৮ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৪ জনের। ১ হাজার ২০ জনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ৫২৩ জন আক্রান্ত হয়েছেন চেন্নাই থেকে।

 

· কর্ণাটক : রাজ্যে আজ আরও ৮ জন নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। বেঙ্গালুরুর ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে ৫০ বছর বয়সী এক আক্রান্ত রোগী আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫১১। মৃত্যু হয়েছে ১৯ জনের। সুস্থ হয়েছেন ১৮৮ জন।

 

· অন্ধ্রপ্রদেশ : রাজ্যে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ৮০ জনের সংক্রমণের খবর মেলায় নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১ হাজার ১৭৭। মৃত্যু হয়েছে ৩১ জনের। সুস্থ হয়েছেন ২৩৫ জন। ৪ জন কর্মী, যাঁদের মধ্যে ১ জন নার্স রয়েছেন, তাঁদের সকলের নমুনা পরীক্ষায় কোভিড-১৯ এর উপস্থিতির প্রমাণ মিলেছে। রাজভবনের সমস্ত কর্মচারীকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। কাডাপা জেলার ৪টি এলাকাকে রেড জোন হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে।

 

· তেলেঙ্গানা : আন্তঃমন্ত্রক কেন্দ্রীয় দলটি সম্ভাব্য আক্রান্তদের খুঁজে বের করতে তেলেঙ্গানা পুলিশের প্রচেষ্টার প্রশংসা করেছে। পুলিশ বাহিনীকে সংক্রামিত এলাকা ও কোয়ারেন্টাইন কেন্দ্রগুলিতে নিরাপত্তা জোরদার করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। গাচ্ছিবাউলি স্পোর্টস কমপ্লেক্সে গড়ে তোলা দেড় হাজার শয্যাবিশিষ্ট কোভিড-১৯ হাসপাতালটিকে চিকিৎসা ও গবেষণামূলক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরিত করা হয়েছে। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত নিশ্চিতভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ১।

 

· মধ্যপ্রদেশ : রাজ্যে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ১৭৫ জনের সংক্রমণের খবর মেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২ হাজার ১২০ হয়েছে। বিভিন্ন হাসপাতাল থেকে সুস্থ হওয়ার পর ৩০২ জন রোগী ছাড়া পেয়েছেন। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ১০৩ জনের। রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ১ হাজার ৬৫০ জন রোগীর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। ৩৫ জন রোগী ভেন্টিলেটরে রয়েছেন।

 

· গুজরাট : রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ৬১টি সুনির্দিষ্ট কোভিড স্পেশাল হাসপাতালে শয্যা সংখ্যা ১০ হাজার ৫০০। রাজ্যে পর্যাপ্ত পরিমাণে ওষুধপত্র, এন-৯৫ মাস্ক এবং পিপিই কিট মজুত রয়েছে। সরকারি হাসপাতালগুলিতে ১ হাজার ৬১টি ভেন্টিলেটর রয়েছে। বেসরকারি হাসপাতালগুলিতে ভেন্টিলেটরের সংখ্যা ১ হাজার ৭০০। ইতিমধ্যে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে আরও ১ হাজার ভেন্টিলেটর সংগ্রহের বরাত দেওয়া হয়েছে।

 

· মধ্যপ্রদেশ : মধ্যপ্রদেশ থেকে ১ লক্ষ ১০ হাজারেরও বেশি প্রবাসী শ্রমিক বিভিন্ন রাজ্যে আটকে পড়েছেন। গুজরাটের ৩৫ হাজার শ্রমিক বিভিন্ন ক্ষেত্রে কর্মরত রয়েছেন। মহারাষ্ট্রের ২৫ হাজার এবং রাজস্থানের ১৫ হাজার শ্রমিক বিভিন্ন ক্ষেত্রে কর্মরত। রাজস্থানে কর্মরত অধিকাংশ শ্রমিক বাড়ি ফিরে গিয়েছেন। এদিকে গুজরাটে যাঁরা আটকে রয়েছেন, তাঁদের বাড়ি ফেরা শুরু হয়েছে। প্রবাসী শ্রমিকদের বাড়িতে ফেরানোর ব্যাপারে মহারাষ্ট্র ও মধ্যপ্রদেশের মধ্যে আলোচনা চলছে।

 

· মহারাষ্ট্র : মুম্বাইয়ের মেয়র জানিয়েছেন, শহরের অধিকাংশ সংক্রামিত এলাকাগুলির পরিস্থিতিতে উন্নতি ঘটছে। তিনি আরও জানিয়েছেন, শহরের ১ হাজার ৩৬টি সংক্রামিত এলাকার মধ্যে ২৩১টি এলাকা থেকে গত ১৪ দিনে নতুন করে আক্রান্তের খবর আসেনি। এদিকে যে ৫৩ জন সাংবাদিকের নমুনা পরীক্ষার পরিণাম পজিটিভ এসেছে, তাঁদের মধ্যে ৩১ জনের গত ২৪ ঘন্টায় দ্বিতীয়বার নমুনা পরীক্ষার পরিণামও নেগেটিভ আসায় ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। এই ৩১ জন সাংবাদিককে ১৪ দিনের জন্য বাড়িতেই কোয়ারেন্টাইনে রাখা হচ্ছে।

 

 

 

CG/BD/SB



(Release ID: 1618815) Visitor Counter : 49