রেলমন্ত্রক

কভিড-১৯ এর চিকিৎসায় আড়াই হাজার চিকিৎসক ও পঁয়ত্রিশ হাজার প্যারামেডিক্স কে কাজে লাগাবে রেল অস্থায়ী ভিত্তিতে বিভিন্ন অঞ্চলে (Zone) চিকিৎসক ও প্যারামেডিক্স নিয়োগ করছে রেল

কোভিড-১৯এ সংক্রামিত ব্যক্তিদের চিকিৎসার জন্য ১৭টি হাসপাতাল ও রেল হাসপাতালের ৩৩ টি ব্লকে পাঁচ হাজার শয্যা তৈরি রাখা হয়েছে

কোভিড-১৯ এ সংক্রামিত দের কোয়ারিন্টিন ও আইসোলেশেরন জন্য ট্রেনের ৩২৫০ টি কামরা কে তৈরি রাখা হয়েছে; মোট পাঁচ হাজার কামরা কে এই কাজের জন্য পরিবর্তন করা হবে

দেশের এই সংকটকালে বিভিন্ন কোচ নির্মাণ কারখানা, ওয়ার্কশপ, কোচিং ডিপো এবং হাসপাতাল গুলি ব্যক্তিগত সুরক্ষা উপকরণ পোশাক, স্যানিটাইজার ও মাস্ক তৈরিতে নেমে পড়েছে

Posted On: 08 APR 2020 5:34PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ০৮ এপ্রিল, ২০২০ 

 

 

     কোভিড-১৯ এর পরিপ্রেক্ষিতে ভারত সরকারেরস্বাস্থ্য পরিষেবা ব্যবস্থাকে সহায়তা করতে কোমর বেঁধে কাজে নেমে পড়েছে ভারতীয় রেল। এই কাজের অঙ্গ হিসাবে রেল হাসপাতাল গুলিকে উন্নীত করা হচ্ছে, প্রয়োজনে কাজে লাগানোর জন্য শয্যা প্রস্তুত রাখা, অতিরিক্ত চিকিৎসক ও প্যারামেডিক্স নিয়োগ, রেলের যাত্রী কামরা গুলিকে আইসোলেশেরন জন্য প্রস্তুত রাখা, চিকিৎসা সামগ্রীর যোগান সুনিশ্চিত করা, পি পি ই, ভেন্টিলেটার প্রভৃতির উৎপাদন করা ইত্যাদি।  

 

     উল্লেখ করা যেতে পারে সারা দেশে রেলের ৫৮৬টি হেলথ ইউনিট, ৪৫টি মহকুমা হাসপাতাল, ৫৬ টি ডিভিশনাল হাসপাতাল, ৮টি উৎপাদনক্ষম হাসপাতাল ও ১৬টি জোনাল হাসপাতাল আছে। এর একটা বড় অংশকেই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে কাজে লাগানো হবে। 

 

     আড়াই হাজারেরও বেশি চিকিৎসক ও পঁয়ত্রিশ হাজারেরও বেশি প্যারামেডিক্স কর্মী এই চ্যালেঞ্জের জন্য প্রস্তুত রয়েছে। দেশ জুড়ে থাকা কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীরাও রেলের স্বাস্থ্য পরিষেবার সুযোগ নিতে পারবেন।     

  

       কোভিড ১৯ এর মোকাবিলায় যে সমস্ত উদ্যোগ রেলের তরফে নেওয়া হয়েছে সেগুলি হলঃ- 

১। কোভিড-১৯ এ সংক্রামিত দের কোয়ারিন্টিন ও আইসোলেশেরন জন্য ট্রেনের ৩২৫০ টি কামরা কে তৈরি রাখা হয়েছে; মোট পাঁচ হাজার কামরা কে এই কাজের জন্য পরিবর্তন করা হবে। ৮০ হাজার শয্যা থাকবে।

২। কোভিড-১৯এ সংক্রামিত ব্যক্তিদের চিকিৎসার জন্য ১৭টি হাসপাতাল ও রেল হাসপাতালের ৩৩ টি ব্লকে পাঁচ হাজার শয্যা তৈরি রাখা হয়েছে।

৩। ১১ হাজার কোয়ারিন্টিন শয্যার প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

৪। পি পি ই, ভেন্টিলেটার প্রভৃতির পর্যাপ্ত যোগান সুনিশ্চিত করা।

৫। উল্লেখ করা যেতে পারে রেল ইতিমধ্যেই নিজেরা ব্যক্তিগত সুরক্ষা উপকরণ পোশাক তৈরি করছে। বর্তমানে দিনে হাজারটি পি পি ই তৈরির লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে প্রয়োজনে উৎপাদন আরও বৃদ্ধি করা হবে।

৬। দেশ জুড়ে থাকা সমস্ত কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীরাও রেলের স্বাস্থ্য পরিষেবার সুযোগ নিতে পারবেন।

 

 

 

CG/SDG



(Release ID: 1612359) Visitor Counter : 82