কেন্দ্রীয়মন্ত্রিসভা

দেশ জুড়ে সমবায় আন্দোলনকে শক্তিশালী করে তৃণমূল স্তরে পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার অনুমোদন

Posted On: 15 FEB 2023 3:49PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩

 

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর পৌরহিত্যে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার আজকের বৈঠকে দেশ জুড়ে সমবায় আন্দোলনকে শক্তিশালী করে তৃণমূল স্তরে পৌঁছে দেওয়ার কর্মসূচিকে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী নেতৃত্বে এবং স্বরাষ্ট্র ও সমবায় মন্ত্রী শ্রী অমিত শাহের পরামর্শক্রমে দেশের প্রতিটি পঞ্চায়েতে প্রাথমিক কৃষি ঋণদান সমিতি (প্রাইমারী এগ্রিকালচারাল ক্রেডিট সোসাইটি – পিএসিএস) গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই সমিতিগুলি ডেয়ারি, মৎস্যপালন ও পশুপালনের সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের সহায়ক হবে। প্রাথমিকভাবে স্থির হয়েছে যে, আগামী ৫ বছরে এ ধরনের ২ লক্ষ সমিতি গড়ে তোলা হবে। উপকূলবর্তী অঞ্চলগুলির পঞ্চায়েত এবং যেসব গ্রামে বড় বড় জলাশয় রয়েছে, সেখানে মৎস্য পালনে সহায়তার জন্য সংশ্লিষ্ট সমিতিগুলি সহায়তা করবে। প্রকল্প বাস্তবায়নে নাবার্ড, ন্যাশনাল ডেয়ারি ডেভেলপমেন্ট বোর্ড এবং ন্যাশনাল ফিশারিজ ডেভেলপমেন্ট বোর্ড – এর সাহায্যে নেওয়া হবে। সম্পূর্ণ সরকারি উদ্যোগে এই প্রকল্প বাস্তবায়নের মূল উদ্দেশ্য হ’ল - কেন্দ্রীয় মৎস্য ও পশুপালন এবং ডেয়ারি মন্ত্রকের বিভিন্ন কর্মসূচি রূপায়ণ।

এর ফলে, সংশ্লিষ্ট সমিতিগুলির সদস্যরা তাঁদের উৎপাদিত পণ্য সামগ্রী বাজারজাত করতে পারবেন। ফলস্বরূপ, তাঁদের আয় বৃদ্ধি হবে। যেসব গ্রামে প্রাথমিক সমবায় সমিতিগুলি সক্রিয় নয়, অথচ তাদের পুনর্গঠনও করা যাচ্ছে না, সেখানে নতুন সমবায় সমিতি গঠন করা হবে। ফলস্বরূপ, গ্রামাঞ্চলে কর্মসংস্থানে সুযোগ সৃষ্টি হবে এবং গ্রামীণ অর্থনীতির বিকাশ ঘটবে। কৃষকরা সংশ্লিষ্ট সমিতিগুলির মাধ্যমে তাঁদের উৎপাদিত পণ্য সরবরাহ-শৃঙ্খলে নিরবচ্ছিন্নভাবে যোগান দিতে পারবেন। স্বরাষ্ট্র ও সমবায় মন্ত্রীর নেতৃত্বে এর জন্য একটি আন্তঃমন্ত্রিগোষ্ঠী গঠন করা হয়েছে। কৃষি ও কৃষক কল্যাণ মন্ত্রী; মৎস্য, পশুপালন ও ডেয়ারি মন্ত্রী ছাড়াও নাবার্ড, এনডিডিবি এবং এনএফডিবি-র প্রধানরাও এই কমিটিতে রয়েছেন। সংশ্লিষ্ট কমিটিগুলি বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য জাতীয়, রাজ্য ও জেলাস্তরে পৃথক পৃথক কমিটি গঠনে সাহায্য করবে।

বর্তমানে দেশে ১ লক্ষ ৬০ হাজার পঞ্চায়েতে কোনও পিএসিএস নেই। দেশের প্রায় ২ লক্ষ পঞ্চায়েতে দুগ্ধ সমবায় সমিতিও নেই। দেশ জুড়ে গ্রামীণ অর্থনীতিকে শক্তিশালী করতে তৃণমূল স্তরে সমবায় সমিতিগুলি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। তাই, এ ধরনের সমিতির প্রয়োজন উপলব্ধি করে সম্পূর্ণ সরকারি উদ্যোগে যেসব গ্রামে কোনও পিএসিএস নেই, সেখানে এ ধরনের সমবায় সমিতি গড়ার জন্যই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার এই সিদ্ধান্ত।

 

PG/CB/SB



(Release ID: 1899585) Visitor Counter : 171