স্বাস্থ্যওপরিবারকল্যাণমন্ত্রক

রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিতে সরবরাহ করা অক্সিজেন সরবরাহকারী সরঞ্জামের কার্যকারিতা ও প্রতিস্থাপন, ব্যবহারের বিষয় নিয়ে কেন্দ্রের পর্যালোচনা

Posted On: 15 DEC 2021 3:57PM by PIB Kolkata
নতুন দিল্লি,  ১৫ ডিসেম্বর, ২০২১
 
চিকিৎসা ক্ষেত্রে ব্যবহৃত অক্সিজেন জনস্বাস্থ্য ক্ষেত্রে অপরিহার্য । মহামারি মোকাবিলায় পর্যাপ্ত পরিমাণে এর নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ । কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য সচিব শ্রী রাজেশ ভূষণ আজ রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিতে মেডিকেল অক্সিজেন সরঞ্জাম ও ব্যবস্থাপনা (পিএসএ প্ল্যান্ট, লিকুইড মেডিকেল অক্সিজেন প্ল্যান্ট, অক্সিজেন কনসেনট্রেটর, মেডিকেল গ্যাস পাইপলাইন ব্যবস্থাপনা) সম্পর্কিত অবস্থা এবং তার প্রস্তুতির বিষয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে পর্যালোচনা বৈঠকে একথা জানিয়েছেন । 
 
রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে অবহিত করা হয়েছে যে,কেন্দ্রীয় সরকার পিএসএ প্ল্যান্ট, অক্সিজেন কনসেনট্রেটর, ভেন্টিলেটর, অক্সিজেন সিলিন্ডার, লিকুইড মেডিকেল অক্সিজেন প্ল্যান্ট এবং মেডিকেল গ্যাস পাইপ লাইন ব্যবস্থাপনার জন্য সরঞ্জাম, প্রযুক্তি এবং আর্থিক সহায়তা করে চলেছে। জেলাগুলিতে সরবরাহ করা এবং স্বাস্থ্য পরিষেবা ক্ষেত্রে সুবিধাগুলিতে প্রতিস্থাপন করা সরঞ্জামগুলি – এই দুইয়ের মধ্যে ব্যবধান হ্রাস নিশ্চিত করার জন্য প্রতিদিন এগুলির অবস্থা বিষয়ে পর্যালোচনা, পর্যবেক্ষণ করতে রাজ্যগুলিকে অনুরোধ করা হয়েছে । অনেক রাজ্যের চাহিদা মতো জেলা স্বাস্থ্য পরিষেবা ক্ষেত্রে ব্যবহৃত সরঞ্জাম পাঠানো হলেও তা এখনও কার্যকর করা হয়নি । রাজ্যের নোডাল আধিকারিকদের প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা, এইচএলএল ইনফ্রা টেক সার্ভিসেস লিমিটেড এবং সেন্ট্রাল মেডিকেল সার্ভিসেস সোস্যাইটি ইত্যাদির মতো সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় সাধন করে একাধিক সমস্যা সমাধানের অনুরোধ জানানো হয়েছে । 
 
এখনও পর্যন্ত দেশে মোট ৩,২৩৬টি পিএসএ প্ল্যান্ট প্রতিস্থাপন করা হয়েছে । এখানে মোট ৩,৭৮৩ মেট্রিক টন অক্সিজেন ধারন ক্ষমতা রয়েছে । পাশাপাশি ‘পিএম কেয়ার’ এবং ‘এমারজেন্সি কোভিড ১৯ রেসপন্স প্ল্যান্ট(ইসিআরপি)’ দ্বিতীয় পর্যায়ের আওতায় ১ লক্ষ ১৪ হাজারেরও বেশি অক্সিজেন কনসেনট্রেটর রাজ্যগুলিকে সরবরাহ করা হয়েছে । 
 
রাজ্যগুলিকে আরও জানানো হয়েছে যে ১,৩৭৪টি হাসপাতালেমেডিকেল গ্যাস পাইপলাইন ব্যবস্থাপনা এবং ৯৫৮টি লিকুইড মেডিকেল অক্সিজেন স্টোরেজ ট্যাঙ্ক স্থাপনের জন্য ইসিআরসি – দ্বিতীয় পর্যায়ের তহবিল অনুমোদন করা হয়েছে । রাজ্যগুলিতে অভ্যন্তরীণ অক্সিজেন উৎপাদন ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য নিজেদের সুযোগ-সুবিধা কাজে লাগাতে এবং সরকারি হাসপাতালে দ্রুত চিকিৎসা পাইপলাইনের কাজ শেষ করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে ।
 
পাশাপাশি রাজ্যগুলিতে চালু হওয়া পিএসএ প্ল্যান্টগুলির কার্যকারিতা বিষয়ে মহড়া দেওয়া, হাসপাতালে রোগীর শয্যার পাশে কত পরিমাণ বিশুদ্ধ অক্সিজেন পৌঁছোচ্ছে তা দেখার জন্য বলা হয়েছে । এই ধরণের মহড়ার কাজ চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে সম্পন্ন করতে হবে । এমনকি কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের কাছে এবিষয়ে প্রতিবেদনও জমা দিতে হবে বলে বলা হয়েছে ।
 
কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক পিএসএ প্ল্যান্ট এবং অন্যান্য চিকিৎসা অক্সিজেন সম্পর্কিত পরিকাঠামো পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণের জন্য প্রযুক্তিবিদ, চিকিৎসকদের সংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি প্রশিক্ষণ কর্মসূচি পরিচালনা করতেও নির্দেশ দিয়েছে । এদিনের এই পর্যালোচনা বৈঠকে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের সহকারী সচিব ডাঃ মনোহর অগ্নানি, স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রধান সচিব, জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনের অধিকর্তা এবং সমস্ত রাজ্যের তত্ত্বাবধায়ক আধিকারিকেরা উপস্থিত ছিলেন । পাশাপাশি কয়লা, বিদ্যুৎ, রেল, পেট্রোলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাস মন্ত্রকের প্রতিনিধিরাও এই বৈঠকে যোগ দেন ।  
 
CG/SS/RAB


(Release ID: 1782026) Visitor Counter : 106