তথ্যওসম্প্রচারমন্ত্রক
azadi ka amrit mahotsav

শ্রী অনুরাগ ঠাকুর ২০২১-এর ভারতীয় চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব পুরস্কার ঘোষণা করেছেন
৫২তম ইফিতে হেমা মালিনী ও প্রসূন যোশীকে এই পুরস্কার প্রদান করা হবে

Posted On: 18 NOV 2021 4:14PM by PIB Kolkata
নতুন দিল্লি, ১৮ নভেম্বর, ২০২১
 
কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী শ্রী অনুরাগ সিং ঠাকুর ২০২১-এর ভারতীয় চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব পুরস্কার প্রাপকদের নাম ঘোষণা করেছেন। এবার এই পুরস্কার শ্রীমতী হেমা মালিনী ও শ্রী প্রসূন যোশীকে দেওয়া হবে। পুরস্কারের কথা ঘোষণা করে শ্রী ঠাকুর বলেন, ২০২১-এর ভারতীয় চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব পুরস্কার হিসেবে অভিনেত্রী ও মথুরার সাংসদ শ্রীমতী হেমা মালিনী এবং বিশিষ্ট গীতিকার তথা সিবিএফসি-র চেয়ারপার্সন শ্রী প্রসূন যোশীর নাম ঘোষণা করে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। ভারতীয় চলচ্চিত্রে কয়েক দশক ধরে এদের অবদান অবিস্মরণীয়। এদের শিল্প নৈপুণ্য কয়েক প্রজন্মের দর্শক ও শ্রোতাদের মোহিত করেছে। এরা দু-জন ভারতীয় সিনেমার আইকন। সারা বিশ্বই এদেরকে সম্মান ও শ্রদ্ধা জানায়। গোয়ায় ৫২তম ভারত আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে বিশিষ্ট এই দুই ব্যক্তিত্বকে পুরস্কার প্রদান করে সম্মান জানানো হবে। 
 
পুরস্কার প্রাপকদের সম্পর্কে সংক্ষেপে :
 
বর্তমানে মথুরার সাংসদ ও বিশিষ্ট অভিনেত্রী শ্রীমতী হেমা মালিনী ১৯৪৮-এর ১৬ই অক্টোবর তামিলনাড়ুর আম্মানকুডিতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একাধারে অভিনেত্রী, লেখক, নির্দেশক, প্রযোজক, নৃত্যশিল্পী এবং রাজনীতিক। ১৯৬৩-তে তামিল ছবি 'ইডু সত্যম'-এ অভিনয়ের মধ্যদিয়ে চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করেন। এরপর, 'স্বপ্ন কা দওদাগর' সিনেমায় মুখ্য চরিত্রে অভিনয়ের মধ্যদিয়ে ১৯৬৮-তে হিন্দি চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে। এরপর থেকে এখনও পর্যন্ত তিনি ১৫০টিরও বেশি ছবিতে তাঁর অভিনয় পারদর্শিতা উপস্থাপিত করেছেন। তাঁর উল্লেখযোগ্য কয়েকটি চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছে - সোলে, সীতা অউর গীতা, সত্তে পে সত্তা, বাগবান প্রভৃতি। ড্রিম গার্ল ও মিস মালিনী নামে পরিচিত শ্রীমতী হেমা মালিনী তাঁর অভিনয় পারদর্শিতার জন্য বহু পুরস্কার ও সম্মান পেয়েছেন। ২০০০ সালে ভারত সরকার তাঁকে পদ্মশ্রী পুরস্কার দিয়ে সম্মানিত করে। ২০১৪-র সাধারণ নির্বাচনে শ্রীমতী মালিনী উত্তরপ্রদেশের মথুরা কেন্দ্র থেকে লোকসভার সদস্য নির্বাচিত হন। তখন থেকে তিনি এখনও পর্যন্ত এই কেন্দ্রের সাংসদ হিসেবে কাজ করছেন। 
 
বিশিষ্ট গীতিকার ও সিবিএফসি-র চেয়ারপার্সন শ্রী প্রসূন যোশী ভারতীয় সিনেমায় এক অত্যন্ত পরিচিত নাম। ২০০১-এ রাজকুমার সন্তোশীর 'লজ্জা' সিনেমায় গীতিকার হিসেবে তিনি বলিউডে আত্মপ্রকাশ করেন। এরপর, একাধিক সিনেমায় তাঁর রচিত গান ব্যবহৃত হয়েছে। গীতিকার হিসেবে তাঁর উল্লেখযোগ্য সিনেমাগুলির মধ্যে রয়েছে - তারে জমিন পর, রং দে বাসন্তী, ভাগ মিলখা ভাগ, নীরজা, মনিকর্ণিকা, দিল্লি ৬ প্রভৃতি। শ্রী যোশী না কেবল ভারতে, বরং বিদেশেও বহু স্বীকৃতি ও সম্মান পেয়েছেন। ২০০৭ সালে 'তারে জমিন পর' ছবিতে এবং ২০১৩-তে চিটাগং ছবিতে গীত রচনার জন্য তিনি সেরা গীতিকার হিসেবে জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন। ভারত সরকার ২০১৫-তে তাঁকে পদ্মশ্রী দিয়ে সম্মানিত করে। বর্তমানে তিনি সিবিএফসি-র চেয়ারম্যান। উল্লেখ করা যেতে পারে, ৫২তম ভারত আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে তিনি বিচারকমন্ডলীর সদস্য ছিলেন। 
 
CG/BD/AS/


(Release ID: 1773212) Visitor Counter : 96