স্বাস্থ্যওপরিবারকল্যাণমন্ত্রক

মহারাষ্ট্র, পাঞ্জাব, কর্ণাটক, গুজরাট এবং ছত্তিশগড়ে দৈনিক নতুন সংক্রমণের পরিমাণ দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে

কেন্দ্র দেশে কোভিড-১৯ সংক্রমণের হার বৃদ্ধি পাওয়ার বিষয়টি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির সঙ্গে একযোগে নজর রাখছে

এ পর্যন্ত প্রায় ৪ কোটি কোভিড-১৯এর টিকা দেওয়া হয়েছে

Posted On: 19 MAR 2021 11:11AM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লী,  ১৯  মার্চ, ২০২১

        দেশে কয়েকটি রাজ্যে কোভিড-১৯এর নতুন সংক্রমণ দ্রুতহারে বাড়ছে। গত ২৪ ঘন্টায় ৩৯,৭২৬টি নতুন সংক্রমণের খবর এসেছে। এর মধ্যে ৮০.৬৩ শতাংশই মহারাষ্ট্র, পাঞ্জাব, কর্ণাটক, গুজরাট এবং ছত্তিশগড় থেকে খবর পাওয়া গেছে। নতুন সংক্রমণের ৬৫ শতাংশই মহারাষ্ট্রের হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় মহারাষ্ট্রে ২৫,৮৩৩ জন, পাঞ্জাবে ২৩৬৯ জন এবং কেরালায় ১৮৯৯ জন নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন।  

        কেন্দ্র সমস্ত রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির সঙ্গে পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছে। যেসব এলাকায় কোভিড সংক্রমণ বেশি হচ্ছে সেখানে কন্টেনমেন্ট ও জনস্বাস্থ্য সংক্রান্ত নিয়মাবলী পালনের ওপর গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।  

        রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে সার্বিকভাবে নমুনা পরীক্ষার পরিমাণ বাড়ানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। ‘টেস্ট ট্র্যাক ও ট্রিট’- এই নীতি অনুসরণ করে সংক্রমিতদের সংস্পর্শে যারা যারা আসবেন তাদের ৭২ ঘন্টার মধ্যে শনাক্ত করতে হবে। এরপর প্রয়োজনীয় চিকিৎসা নীতি অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে হবে। সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে ন্যাশনাল সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোলের আওতায় ইনস্যাকগ কনসোর্টিয়ামের অধীনস্থ ১০টি জাতীয় পরীক্ষাগারের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলতে হবে।   

        কেন্দ্র সম্প্রতি কোভিড পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে মহারাষ্ট্র ও পাঞ্জাবে উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল পাঠিয়েছে। এর আগে এ ধরণের প্রতিনিধি দল মহারাষ্ট্র, কেরালা, ছত্তিশগড়, মধ্যপ্রদেশ, গুজরাট, পাঞ্জাব, কর্ণাটক, তামিলনাড়ু, পশ্চিমবঙ্গ এবং জম্মু-কাশ্মীরে পাঠানো হয়েছে। কেন্দ্রীয় দলগুলি রাজ্য বা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের সঙ্গে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিভিন্ন পরামর্শ দিয়ে থাকে, যেগুলি যথাযথভাবে মানা হচ্ছে কি না সেদিকে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক নজর রাখছে।  

        আজকের হিসেবে ভারতে সংক্রমিত চিকিৎসাধীন ২,৭১,২৮২ জন। এই মুহুর্তে দেশে মোট সংক্রমিতের ২.৮২ শতাংশ চিকিৎসাধীন।

        আজ সকাল পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী ৩,৯৩,৩৯,৮১৭ জন কোভিডের টিকা নিয়েছেন। এর মধ্যে ৭৬,৩৫,১৮৮ জন স্বাস্থ্যকর্মী টিকার প্রথম ডোজ, ৪৭,১৫,১৭৩ জন স্বাস্থ্যকর্মী টিকার দ্বিতীয় ডোজ, প্রথম সারির কোভিড যোদ্ধাদের মধ্যে ৭৮,৩৩,২৭৮ জন প্রথম ডোজ এবং ২১,৯৮,৪১৪ জন টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন। ৬০ বছরের বেশি বয়সীদের মধ্যে ১,৪১,৭৭,৭৬৬ জন ও ৪৫ বছর থেকে ৬০ বছরের মধ্যে যাঁরা জটিল অসুখে ভুগছেন তাদের মধ্যে ২৭,৭৯,৯৯৮ জন টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন।

        ভারতে মোট ১,১০,৮৩,৬৭৯ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। কোভিড মুক্তির জাতীয় হার ৯৬.৫৬ শতাংশ।

        অন্ধ্রপ্রদেশ, চন্ডীগড়, ওড়িশা, উত্তরাখন্ড, ঝাড়খন্ড, লাক্ষ্মাদ্বীপ, সিকিম, মেঘালয়, দাদরা-নগর হাভেলী-দমন-দিউ, নাগাল্যান্ড, ত্রিপুরা, লাদাখ, মণিপুর, মিজোরাম, আন্দামান ও নিকোবর এবং অরুণাচলপ্রদেশে গত ২৪ ঘন্টায় কোনও কোভিড সংক্রমিতের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি।

***

 

 

CG/CB /NS



(Release ID: 1706172) Visitor Counter : 56