তথ্যওসম্প্রচারমন্ত্রক

২০২০-তে ডিজিটাল ক্ষেত্রে প্রসার ভারতীর (ডিডি-এআইআর) রেকর্ড অগ্রগতি

Posted On: 03 JAN 2021 4:22PM by PIB Kolkata
নয়াদিল্লি, ০৩ জানুয়ারি, ২০২১
 
 
২০২০-তে প্রসার ভারতীর দূরদর্শন ও আকাশবাণীর সমস্ত ডিজিটাল চ্যানেলের ১০০ শতাংশের বেশি অগ্রগতি হয়েছে। এই অগ্রগতি ডিজিটাল ক্ষেত্রে দর্শক-শ্রোতার সংখ্যার দিক থেকে এবং ডিজিটাল মাধ্যমে প্রসার ভারতীর সমস্ত চ্যানেল ৬ বিলিয়ন মিনিটের বেশি দেখা হয়েছে।
 
২০২০-তে আকাশবাণীর নিউজ অন এআইআর অ্যাপটিতে আরও ২৫ লক্ষ ব্যবহারকারী যুক্ত হয়েছেন। এর ফলে, এই অ্যাপ ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৩ কোটি ছাড়িয়েছে। শ্রোতারা লাইভ রেডিও অনুষ্ঠান শোনার ক্ষেত্রে বেশি সময় ব্যয় করেছেন। আর এই কারণেই ২০০টি অনলাইন অনুষ্ঠানের মধ্যে লাইভ রেডিও অনুষ্ঠান সব থেকে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।
 
ডিডি ন্যাশনাল এবং ডিডি নিউজ চ্যানেলের সঙ্গে সঙ্গতি বজায় রেখে প্রসার ভারতীর প্রথম ১০টি চ্যানেলের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে ডিডি সায়াদ্রি চ্যানেলের মারাঠি সংবাদ, ডিডি চন্দনা চ্যানেলের কন্নড় অনুষ্ঠান, ডিডি বাংলা চ্যানেলের বাংলা সংবাদ এবং ডিডি সপ্তগিরি চ্যানেলের তেলেগু অনুষ্ঠান।
 
অন্যদিকে ডিডি স্পোর্টস ও আকাশবাণী স্পোর্টস চ্যানেল দুটি ডিজিটাল ক্ষেত্রে দর্শকদের মধ্যে অত্যন্ত আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে। খেলাধূলার সরাসরি ধারাভাষ্যের কারণে এই ক্রীড়া অনুষ্ঠান দুটির পাশাপাশি, প্রসার ভারতীর আর্কাইভ ও ডিডি কিষাণ চ্যানেল দুটিও প্রথম ১০টি চ্যানেলের তালিকায় ডিজিটাল ক্ষেত্রে জায়গা করে নিয়েছে।
 
উত্তর-পূর্বাঞ্চল থেকে সংবাদের দর্শক-শ্রোতার সংখ্যা ডিজিটাল মাধ্যমে বেড়েছে। আকাশবাণীর উত্তর-পূর্ব পরিষেবা প্রথম ১০টি অনুষ্ঠানের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে। এমনকি, ডিজিটাল মাধ্যমে আকাশবাণীর উত্তর-পূর্ব পরিষেবা সংক্রান্ত অনুষ্ঠানের শ্রোতার সংখ্যা ১ লক্ষ ছাড়িয়েছে।
 
অত্যাশ্চর্যভাবে ২০২০-তে দূরদর্শন ও আকাশবাণীর অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রে দেশীয় দর্শক-শ্রোতার বাইরে ডিজিটাল মাধ্যমে দ্বিতীয় সর্বাধিক দর্শক-শ্রোতাই পাকিস্তান থেকে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকেও বিপুল সংখ্যায় দূরদর্শন ও আকাশবাণীর দর্শক-শ্রোতারা রয়েছেন।
 
২০২-তে সর্বাধিক জনপ্রিয় ডিজিটাল ভিডিও-গুলির মধ্যে বিদ্যালয় পড়ুয়াদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী মোদীর মতবিনিময় এবং প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠান দুটি রয়েছে। এছাড়াও, ডিডি ন্যাশনাল চ্যানেলে ১৯৭০ সময়ের শকুন্তলা দেবী শীর্ষক অনুষ্ঠানের দুষ্প্রাপ্য ভিডিও-গুলিও ডিজিটাল মাধ্যমে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে।
 
সংস্কৃত ভাষার অনুষ্ঠান সম্প্রচারের জন্য প্রসার ভারতী ২০২০ সালে একটি পৃথক ইউটিউব চ্যানেল চালু করে। এই চ্যানেলে আকাশবাণী ও দূরদর্শনের সমস্ত সংস্কৃত ভাষার অনুষ্ঠান একত্রিত করে আপলোড করা হচ্ছে।
 
প্রধানমন্ত্রীর মন কি বাত অনুষ্ঠানের ইউটিউব চ্যানেল এবং ট্যুইটার অ্যাকাউন্টেও ২০২০-তে দ্রুত অগ্রগতি হয়েছে। মন কি বাত – এর ট্যুইটার অ্যাকাউন্টের ফলোয়ার ৬৭ হাজার। এছাড়াও, মন কি বাত অনুষ্ঠানের বিভিন্ন পর্বের আঞ্চলিক ভাষায় অনুষ্ঠানের পৃথক ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে।
 
দূরদর্শন ও আকাশবাণীর সুবিস্তৃত নেটওয়ার্কে প্রায় দেড় হাজার বেতার নাট্য আপলোড করা হচ্ছে। বিভিন্ন ভারতীয় ভাষায় এই বেতার নাট্যগুলি একত্রিত করা হয়েছে। এগুলি এখন ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করার কাজ চলছে।
 
সুদীর্ঘ কয়েক হাজার ঘন্টার শিক্ষামূলক অনুষ্ঠান এবং টেলি-ক্লাসেস ইউটিউব চ্যানেলে দেখা যাচ্ছে।
 
দূরদর্শন ও আকাশবাণীর এক্তিয়ারে থাকা দুষ্প্রাপ্য কিছু অনুষ্ঠান, যেগুলির ঐতিহাসিক গুরুত্ব অমূল্য, সেগুলি এখন ডিজিটাল পদ্ধতিতে উন্নীত করে প্রসার ভারতীর আর্কাইভ ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করা হচ্ছে। বৃহত্তর জনস্বার্থে দূরদর্শন ও আকাশবাণীর বিভিন্ন স্টেশনে বিগত দশকগুলিতে রেকর্ড করা হাজার হাজার অনুষ্ঠানের টেপ থেকে সঙ্গীত, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক অনুষ্ঠানগুলিকে গুরুত্ব অনুসারে পৃথক করার জন্য একটি স্বতন্ত্র দল কাজ করে চলেছে। বিগত দশকগুলির স্মরণীয় এইসব অনুষ্ঠান আরও একবার সহজেই বর্তমান সময়ের দর্শক-শ্রোতাদের কাছে পৌঁছে দিতে প্রসার ভারতীয় এই উদ্যোগ।
 
***
 
 
 
CG/BD/SB


(Release ID: 1685936) Visitor Counter : 122