জাহাজচলাচলমন্ত্রক

সাধারণ জনগণের পরামর্শের জন্য ভারতীয় বন্দর বিল ২০২০র খসড়া প্রকাশ করা হয়েছে

Posted On: 11 DEC 2020 2:26PM by PIB Kolkata
নয়াদিল্লী, ১১ ডিসেম্বর, ২০২০
 
    ১৯৮০ সালের ভারতীয় বন্দর আইনের পরিবর্তন এবং বাতিল করে ভারতীয় বন্দর বিল ২০২০ নিয়ে আসা হচ্ছে। তাই এই বিষয়ে  সাধারণ জনগণের মতামত নিতে ভারতীয় বন্দর বিল ২০২০র খসড়া প্রকাশ করেছে কেন্দ্রীয় বন্দর, জাহাজ চলাচল এবং জলপথ মন্ত্রক। ভারতীয় বন্দর বিল ২০২০র খসড়ায় বন্দরগুলির পরিকাঠামোগত বৃদ্ধি, সুস্থায়ী উন্নয়ন, বন্দর ক্ষেত্রে বিনিয়োগের জন্য ভারতীয় উপকূল অঞ্চলের প্রশাসনিক কাজ ও বন্দরের সর্বোত্তম ব্যবহারের বিষয় তুলে ধরা হয়েছে। প্রস্তাবিত বিলে অপ্রচলিত বন্দরগুলির কার্যকারিতা বৃদ্ধি, রক্ষণাবেক্ষণের ব্যবস্থাও রয়েছে। নতুন সমুদ্র বন্দর নির্মাণ এবং বিদ্যমান বন্দরগুলির ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন সম্ভবপর হলে ভারতীয় সমুদ্র ও বন্দর ক্ষেত্রে বৃহত্তর বিনিয়োগ সুনিশ্চিত হবে,তারাও সংস্থান রয়েছে এখানে।  এই বিলে ভারতীয় বন্দর ক্ষেত্রের অগ্রগতি,সুস্থায়ী উন্নয়নের জন্য একটি কার্যকরী পরিবেশ তৈরির চেষ্টা করা হয়েছে। এই বিলে বলা হয়েছে- 
 
একটি সমুদ্র বন্দর নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ গঠন করা হবে
 
উপকূলীয় রাজ্যগুলির সরকার, রাজ্যগুলির উপকূলীয়  পর্ষদ  এবং অন্যান্য অংশীদারদের সঙ্গে পরামর্শ করে জাতীয় বন্দর নীতি ও জাতীয় বন্দর পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হবে।
 
বন্দর অঞ্চলে যেকোন বেআইনি কার্যকলাপ  রোধ করতে এবং তাৎক্ষণিক ও দ্রুত  অভিযোগ নিরসন ব্যবস্থা হিসেবে কাজ করার জন্য মেরিটাইম পোর্ট ট্রাইবুনাল ও মেরিটাইম পোর্ট আপিল ট্রাইবুনালের মতো বিশেষ মেরিটাইম ট্রাইবুনাল গঠন করা হবে।
 
প্রস্তাবিত বিলে বন্দরের সুরক্ষা, দূষণ নিয়ন্ত্রণের বিষয়গুলিও নিশ্চিত করা হয়েছে। সামুদ্রিক সুরক্ষার বিষয়েও বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে এই বিলে। এই বিলে সমুদ্র ও বন্দর ক্ষেত্রে সরকারি এবং বেসরকারী বিনিয়োগ, বন্দরে প্রবেশের নানা সমস্যা অপসারণ সহ একাধিক বিষয়ের ওপর গুরুত্ব আরোপ করা হয়েছে। সমুদ্র ক্ষেত্রে আত্মনির্ভর হয়ে উঠার দিশা দেখানো হয়েছে এই বিলের মাধ্যমে। 
 
কেন্দ্রীয় বন্দর, জাহাজ চলাচল এবং জলপথ মন্ত্রকের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী শ্রী মনসুখ মান্ডভিয়া বলেছেন, ‘আমরা একটি জাতীয় বন্দর গ্রিড তৈরির জন্য কাজ করে চলেছি। এই বিল ভারতীয় উপকূল ক্ষেত্রে গেম চেঞ্চার হয়ে উঠবে। বিশেষ করে বিনিয়োগ বৃদ্ধিতে সহায়তা প্রদান করবে। এই বিল পরিকাঠামোগত উন্নয়ন এবং বন্দরের সুস্থায়ী উন্নতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে। পাশাপাশি আগামীদিনে ভারতীয় উপকূল পরিকাঠামো ক্ষেত্রে আমূল পরিবর্তন ঘটাতে সাহায্য করবে।’
 
ভারতীয় বন্দর বিল ২০২০ খসড়া বিষয়ে সাধারণ জনগণ তাদের মতামত জানাতে পারবেন
http://shipmin.gov.in/sites/default/files/IPAbill.pdf- এই লিঙ্কের মাধ্যমে। এছাড়াও sagar.mala[at]nic[dot]in-তেও ২৪শে ডিসেম্বরের মধ্যে মতামত জানানো যাবে। 
 
***
 
 
 
CG/SS/NS


(Release ID: 1680091) Visitor Counter : 167