বৈদ্যুতিন ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রক
azadi ka amrit mahotsav

বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে সেমিকন ইন্ডিয়া সম্মেলন ২০২২-এর সূচনা হল


ভারতের সেমিকন্ডাক্টর শিল্পের উন্নয়নে অনুঘটকের কাজ করতে বিশ্বের সেরা ও উজ্জ্বল মেধার সমাবেশ

আমরা দেশের চিপ ডিজাইন এবং উৎপাদন শিল্পের বিকাশ ও উন্নয়নে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ - শ্রী নরেন্দ্র মোদী

ভারতকে বিশ্বের অন্যতম প্রধান ইলেকট্রনিক এবং সেমিকন্ডাক্টর শিল্প হাব হিসেবে গড়ে তোলার যে স্বপ্ন আমরা দেখেছি, তা বাস্তবায়িত করতে সুচারু পরিকল্পনা এবং সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের সযত্ন প্রয়াসের সংমিশ্রণ ঘটেছে - শ্রী অশ্বিনী বৈষ্ণ

স্টার্টআপগুলি ভারতের প্রযুক্তি ক্ষেত্রের নির্মাণ করছে, এর চালিকাশক্তি হয়ে উঠেছে । উদ্যোক্তাদের সমবেত প্রয়াস ভারতের সেমিকন্ডাক্টর শিল্পকে এগিয়ে নিয়ে যাবে : শ্রী রাজীব চন্দ্রশেখর

বেঙ্গালুরুতে উৎপাদন কেন্দ্র গড়ে তুলতে ১৮০০ কোটি টাকা বিনিয়োগের ঘোষণা করলো অ্যাপ্লায়েড মেটেরিয়ালস

Posted On: 29 APR 2022 5:21PM by PIB Kolkata

নতুন দিল্লি,  ২৯ এপ্রিল, ২০২২

 

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী সেমিকন ইন্ডিয়া সম্মেলন ২০২২-এর উদ্বোধন করেছেন। বিশ্বব্যাপী এই সম্মেলনে সেমিকন্ডাক্টর ক্ষেত্রের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন পক্ষ তাদের নিজেদের সক্ষমতা, চিন্তা-ভাবনা ও উদ্ভাবন তুলে ধরে এবং এই শিল্পের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করে। এবারের সম্মেলনের মূল ভাবনা, ভারতের সেমিকন্ডাক্টর শিল্পকে উৎসাহদান। বেঙ্গালুরুতে ২৯শে এপ্রিল থেকে পয়লা মে ২০২২ পর্যন্ত এই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে।

সম্মেলনের সূচনা করে প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, সমকালীন বিশ্বে সেমিকন্ডাক্টরের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বিপুল গ্রাহকভিত্তি এবং দক্ষ ইঞ্জিনিয়ারিং কর্মশক্তি থাকায় ভারত এক্ষেত্রে এক অনন্য অবস্থানে রয়েছে। আমাদের সরকার এই ক্ষেত্রের অসীম সম্ভাবনা সম্পর্কে সচেতন এবং আমরা দেশে চিপ ডিজাইন ও উৎপাদন ব্যবস্থার বিকাশে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমরা এমন একটি ব্যবস্থা গড়ে তুলতে চাই, যার ভিত্তি হবে 'অত্যাধুনিক প্রযুক্তি, উচ্চ গুণমান এবং নির্ভরযোগ্যতা'। 

ভারত যে ভাবে ডিজিটাইজেশনকে গ্রহণ করেছে, তার মধ্য দিয়েই আমাদের ডিজিটাল-প্রথম দৃষ্টিভঙ্গী প্রতিফলিত। বর্তমানে ইউপিআই সব থেকে দক্ষ অর্থ প্রদান পরিকাঠামো হয়ে উঠেছে। স্বাস্থ্য থেকে জনকল্যাণ, অন্তর্ভুক্তিকরণ থেকে ক্ষমতায়ন - প্রশাসনের সব ক্ষেত্রেই জীবনে রূপান্তর আনতে আমরা ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করছি। এই সম্মেলন শিল্প মহল এবং সরকারকে এক মঞ্চে এনে পারস্পরিক ভাবনা-চিন্তার মাধ্যমে নীতি প্রণয়নের লক্ষ্যে একটি পদক্ষেপ। এর মাধ্যমেই প্রযুক্তি ক্ষেত্রে পরবর্তী বিপ্লবে ভারতের নেতৃত্ব দেওয়ার পথ তৈরি হবে। ব্যবসা সহায়ক পরিবেশ সৃষ্টি, নীতির ক্ষমতায়ন, উৎপাদন ভিত্তিক উৎসাহদান প্রকল্প এবং অন্যান্য প্রকল্পের মাধ্যমে অর্থের যোগান এবং যুবসমাজ যাতে এই ক্ষেত্রে উপযুক্ত হয়ে ওঠে, সে জন্য তাদের প্রশিক্ষণ ও দক্ষতা উন্নয়নে বিনিয়োগ করতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। 

ইন্ডিয়া সেমিকন্ডাক্টর মিশনে আমরা এক হাজার কোটি ডলার বরাদ্দ করেছি। আমরা দেশে এমন এক পরিবেশ সৃষ্টি করতে চাইছি, যা একটি প্রাণবন্ত সেমিকন্ডাক্টর শিল্প ব্যবস্থা গঠনে সহায়ক হবে এবং ভারতকে ভবিষ্যতের দিকে চালিত করবে। 

এই সম্মেলনটি ইন্ডিয়া সেমিকন্ডাক্টর মিশনের সূচনা ক্ষেত্র হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। মেক ইন ইন্ডিয়া এবং আত্মনির্ভর ভারতের মত বৃহত্তর জাতীয় ভাবনাগুলিও এর সঙ্গে যুক্ত রয়েছে। সেমিকন্ডাক্টর ক্ষেত্রে একটি মহাশক্তি হয়ে ওঠার যে আকাঙ্খা ভারত লালন করে, তাকে বাস্তবে রূপ দিতে সেরা এবং উজ্জ্বল মেধার সমাবেশ ঘটেছে এই সম্মেলনে। 

কেন্দ্রীয় বৈদ্যুতিন ও তথ্য প্রযুক্তি, রেল ও যোগাযোগ মন্ত্রী শ্রী অশ্বিনী বৈষ্ণ অনুষ্ঠানে বলেন, ভারতের সব থেকে বড় সম্পদ হল তার প্রতিভাবান কর্মীবাহিনী, যাঁদের ওপর সারা বিশ্বের আস্থা রয়েছে। চিপ ডিজাইন ও উৎপাদনে ভারতকে প্রথম সারিতে আনা স্বল্প মেয়াদী কোন কাজ নয়, এরজন্য দীর্ঘ প্রয়াসের প্রয়োজন। ভারতকে বিশ্বের অন্যতম প্রধান ইলেকট্রনিক এবং সেমিকন্ডাক্টর শিল্প হাব হিসেবে গড়ে তোলার যে স্বপ্ন আমরা দেখেছি, তা বাস্তবায়িত করতে সুচারু পরিকল্পনা এবং সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের সযত্ন প্রয়াসের সংমিশ্রণ দরকার। 

বৈদ্যুতিন ও তথ্য প্রযুক্তি এবং দক্ষতা উন্নয়ন ও উদ্যোগ প্রতিমন্ত্রী শ্রী রাজীব চন্দ্রশেখর বলেন, সম্প্রতি সারা বিশ্ব খুব খারাপ সময়ের মধ্য দিয়ে গেছে। অতিমারীতে লকডাউনের জন্য ভারতের দেড়শো বিলিয়ন থেকে ২০০ বিলিয়ন ডলার আর্থিক ক্ষতি হয়েছে। কিন্তু তা সত্বেও আমরা আরও শক্তিশালী হয়ে উঠেছি। আমাদের বিশাল দেশ ও বিপুল সংখ্যার পরিপ্রেক্ষিতে টিকা দান কর্মসূচি, স্বাস্থ্য পরিচর্যা, অর্থনৈতিক সহায়তা এবং নাগরিকদের জন্য অন্যান্য কল্যাণ মূলক প্রকল্পগুলিতে আমরা অসাধারণ ভাল কাজ করেছি। এই বিপুল সাফল্যের নেপথ্যে রয়েছে সুশাসন এবং সংবেদনশীল নীতি। পরবর্তী প্রযুক্তি বিপ্লবের প্রথম সারিতে ভারতকে আনার যে স্বপ্ন প্রধানমন্ত্রী দেখেছেন, তা পূরণ করতে হলে সবকা সাথ সবকা প্রয়াস নীতির প্রয়োগ আমাদের সুনিশ্চিত করতে হবে। 

সম্মেলনের প্রথম দিনে বেশ কয়েকটি সমঝোতাপত্র স্বাক্ষরিত হয়েছে। 

ভারতে সেমিকন্ডাক্টর শিল্পের প্রসারের লক্ষ্যে সমঝোতাপত্রে স্বাক্ষর করেছে এসইএমআই এবং ইএলসিআইএনএ। 

সেমিকন্ডাক্টর ডিজাইন স্টার্টআপগুলির সঙ্গে অংশীদারিত্বের লক্ষ্যে সমঝোতাপত্রে স্বাক্ষর করেছে সিডিএসি এবং ওয়ালকম।

সেমিকন্ডাক্টর ক্ষেত্রের জন্য কর্মীবাহিনীর প্রশিক্ষণ ও দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সমঝোতাপত্রে স্বাক্ষর করেছে এআইসিটিই, এসইএমআই এবং আইএসএম।

সেমিকন্ডাক্টর উৎপাদন সরবরাহ শৃঙ্খল - বিশ্ব বাজারে ভারতের সুযোগ' শীর্ষক একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আইইএসএ। 

বিশ্বের বৃহত্তম সেমিকন্ডাক্টর ডিসপ্লে সরঞ্জাম প্রস্তুতকারক সংস্থা, অ্যাপ্লায়েড মেটেরিয়ালস ভারতের বেঙ্গালুরুতে ১ হাজার ৮০০ কোটি টাকা বিনিয়োগে একটি উৎপাদন কেন্দ্র গড়ে তোলার ঘোষণা করেছে। 

 

CG/SD/AS/



(Release ID: 1821578) Visitor Counter : 66