স্বাস্থ্যওপরিবারকল্যাণমন্ত্রক

কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে কোভিড-১৯ আর্থিক প্যাকেজের দ্বিতীয় কিস্তির ৮৯০.৩২ কোটি টাকা মঞ্জুর করেছে

Posted On: 06 AUG 2020 1:00PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লী, ৬ আগস্ট, ২০২০

 

 


   কেন্দ্রীয় সরকার ২২টি রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে কোভিড-১৯ জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলা এবং স্বাস্থ্য পরিকাঠামো প্রস্তুতি প্যাকেজের দ্বিতীয় কিস্তি হিসেবে ৮৯০.৩২ কোটি টাকা মঞ্জুর করেছে। যে রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির জন্য এই অর্থ মঞ্জুর করা হয়েছে সেগুলি হল - ছত্তিশগড়, ঝাড়খন্ড, মধ্যপ্রদেশ, ওড়িশা, রাজস্থান, তেলেঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশ, গোয়া, গুজরাত, কর্ণাটক, কেরালা, পাঞ্জাব, তামিলনাডু, পশ্চিমবঙ্গ, দাদরা ও নগর হাভেলি, দমন ও দিউ, অরুণাচল প্রদেশ, আসাম, মেঘালয়, মনিপুর, মিজোরাম, নাগাল্যান্ড এবং সিকিম। এই রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিতে কোভিড-১৯এর পরিসংখ্যান ও পরিস্থিতি অনুযায়ী আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।


    কোভিড-১৯ মোকাবিলা ও পরিচালনায় কেন্দ্রীয়ভাবে যে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে তারই অঙ্গ হিসেবে রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে প্রযুক্তিগত এবং আর্থিকভাবে সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। এর অঙ্গ হিসেবে কোভিড-১৯ জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলা এবং স্বাস্থ্য পরিকাঠামো প্রস্তুতি প্যাকেজের কথা ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। গত ২৪শে মার্চ জাতির উদ্দেশে ভাষণে তিনি বলেছিলেন, ‘কেন্দ্রীয় সরকার করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা এবং দেশের চিকিৎসা পরিকাঠামোকে শক্তিশালী করে তোলার জন্য ১৫ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। এতে করোনা পরীক্ষার সুযোগ বৃদ্ধি পাবে, ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য সুরক্ষা সরঞ্জাম (পিপিই), আইসোলেশন বেড, আইসিইউ বেড, ভেন্টিলেটরস এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জামগুলি কেনা যাবে। একইসঙ্গে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য কর্মীদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার সুযোগ তৈরি হবে। আমি রাজ্য সরকারগুলিকে অনুরোধ করছি জনস্বাস্থ্য পরিষেবাকে এখন সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিতে এবং তা সুনিশ্চিত করতে।’


    দ্বিতীয় কিস্তির এই আর্থিক সহায়তায় আরটি-পিসিআর মেশিন, আরএনএ এক্সট্রাকশন কিট, ট্রুনাট অ্যান্ড সিবিএনএএটি মেশিন, বিএসএল-২ ক্যাবিনেট কেনা হবে। জনস্বাস্থ্যের সুবিধার্থে পরীক্ষা পরিকাঠামো শক্তিশালী করা হবে। আইসিইউ বেড বাড়ানো হবে এবং চিকিৎসা পরিকাঠামোকে জোরদার করা হবে। এর পাশাপাশি জনস্বাস্থ্যের সুবিধার্থে অক্সিজেন জেনারেটর, ক্রায়োজেনিক অক্সিজেন ট্যাঙ্ক এবং মেডিক্যাল গ্যাস পাইপলাইন প্রতিস্থাপন ও বিছানার পাশে অক্সিজেন কনসেন্ট্রেটর ইত্যাদি কেনা হবে। এমনকি স্বাস্থ্য পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত কর্মীদের দক্ষতা উন্নয়নে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ, আশাকর্মী সহ স্বেচ্ছাসেবীদের কোভিড-১৯ মোকাবিলায় যথাযথ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। কোভিড ওয়ারিয়র্স পোর্টালে নথিভুক্ত  স্বেচ্ছাসেবীদেরও কোভিড মোকাবিলায় দায়িত্ব পালনের জন্য এই যুক্ত করা হবে।


    চলতি বছরের এপ্রিল মাসে সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে প্রথম কিস্তিতে ৩ হাজার কোটি টাকা দেওয়া হয়েছিল। কোভিড পরীক্ষার সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি, হাসপাতালের পরিকাঠামো বৃদ্ধি, প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম, ওষুধ কেনার পাশাপাশি নজরদারির কাজ পরিচালনার জন্য এই অর্থ দেওয়া হয়েছিল।


    এই আর্থিক প্যাকেজের অঙ্গ হিসেবে রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলি ৫ লক্ষ ৮০ হাজার ৩৪২টি আইসোলেশন বেড, ১ লক্ষ ৩৬ হাজার ৬৮টি অক্সিজেন সার্পোটেট বেড এবং ৩১ হাজার ২৫৫টি আইসিইউ বেড  তৈরি করেছে। এছাড়াও ৮৬ লক্ষ ৮৮ হাজার ৩৩৭টি টেস্টিং কিট এবং ৭৯ লক্ষ ৮৮ হাজার ৩৩৬টি ভিটিএম মেশিন কেনা হয়েছে।

 

 


CG/SS/NS



(Release ID: 1643801) Visitor Counter : 176