শিল্পওবাণিজ্যমন্ত্রক

শিল্প সংক্রান্ত ছাড়পত্র ও অনুমোদনের জন্য শীঘ্রই এক জানালা ব্যবস্থা চালু করা হবে : শ্রী পী্যূষ গোয়েল

Posted On: 27 JUL 2020 6:20PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ২৭ জুলাই, ২০২০

 

 


কেন্দ্রীয় সরকার দেশে শিল্প ক্ষেত্রের ছাড়পত্র ও অনুমোদনের জন্য শীঘ্রই এক জানালা ব্যবস্থা চালু করতে চলেছে। সার্বভৌম সম্পদ তহবিল, বৈদেশিক পেনশন তহবিল এবং সহজে ব্যবসা-বাণিজ্য তথা পরিকাঠামো ক্ষেত্রে বিনিয়োগ সম্পর্কে কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য মন্ত্রী শ্রী পীযূষ গোয়েল বলেন, শিল্প সংক্রান্ত ছাড়পত্র ও অনুমোদনের ক্ষেত্রে এক জানালা ব্যবস্থা প্রকৃত পক্ষেই কার্যকর ব্যবস্থা হয়ে উঠবে। এমনকি, অনুমোদন ব্যবস্থায় সংশ্লিষ্ট সমস্ত রাজ্য সরকার ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রকগুলিকেও সামিল করা হবে।


শ্রী গোয়েল আরও জানান, সরকার একটি ভূমি ব্যাঙ্ক গঠনের লক্ষ্যে কাজ করছে। ইতিমধ্যেই ৬টি রাজ্য এ ধরনের ব্যাঙ্ক গড়ে তুলতে তাদের সম্মতির কথা জানিয়েছে। তিনি বলেন, সম্ভাব্য বিনিয়োগকারীরা ভূমি ব্যাঙ্ক থেকে স্থান ও জমি চিহ্নিত করতে পারবেন। সেই সঙ্গে, শিল্প স্থাপনের জন্য প্রয়োজনীয় জায়গাও চূড়ান্ত করতে পারবেন।


শিল্প ও বিনিয়োগের জন্য অনুমোদন প্রক্রিয়াকে আরও সরল ও ত্বরান্বিত করা প্রসঙ্গে মন্ত্রী জানান, সম্প্রতি কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে ক্যাবিনেট সচিবের নেতৃত্বে সচিবদের নিয়ে একটি ক্ষমতাপ্রাপ্ত গোষ্ঠী গঠনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। এই গোষ্ঠী বিভিন্ন শিল্প সংক্রান্ত কর্মসূচি ও উদ্যোগগুলির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে। শ্রী গোয়েল আরও বলেন, প্রতিটি কেন্দ্রীয় দপ্তরে একজন নোডাল আধিকারিক নিয়োগ করা হয়েছে। একই সঙ্গে, প্রোজেক্ট ডেভেলপমেন্ট সেল গঠন করা হচ্ছে। এই সেল বিনিয়োগযোগ্য প্রকল্পগুলির উন্নয়নে সাহায্য করবে। এমনকি, কেন্দ্রীয় সরকার ও রাজ্য সরকারগুলির মধ্যে সম্ভাব্য প্রকল্প খাতে বিনিয়োগের ব্যাপারে সমন্বয় গড়ে তুলবে। এই ব্যবস্থা গ্রহণের ফলে দেশে বিনিয়োগযোগ্য প্রকল্পের এক দীর্ঘ তালিকা তৈরি করা হবে। পক্ষান্তরে, এই প্রকল্পগুলির প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগের সুযোগও বাড়বে।


মন্ত্রী বলেন, সরকার ইতিমধ্যেই প্রাথমিকভাবে ১২টি শিল্প ক্ষেত্রকে চিহ্নিত করেছে। আরও সিদ্ধান্ত হয়েছে, সম্ভাব্য বিনিয়োগের ক্ষেত্র হিসাবে এই সংখ্যা বাড়িয়ে ২০ করা হবে। স্বাভাবিকভাবেই বিনিয়োগযোগ্য প্রকল্প বাড়ার সাথে সাথে লগ্নির পরিমাণও বাড়বে। অন্যদিকে, প্রকল্প খাতে বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার ব্যাপারে প্রতিযোগিতাও বৃদ্ধি পাবে।


স্বাস্থ্য ও শিক্ষা ক্ষেত্রের জন্য বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে সরকার এক অনুকূল বাতাবরণ গড়ে তুলবে। লগ্নিকারীদের এই সমস্ত ক্ষেত্রে বিনিয়োগের জন্য নীতিগত ও নিয়ন্ত্রণমূলক বিষয়গুলির সম্পূর্ণ সহযোগিতা করা হবে, যাতে সমগ্র লগ্নির প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা ও দায়বদ্ধতা বজায় থাকে। বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল সম্পর্কিত বাবাকল্যাণী কমিটির প্রতিবেদন মন্ত্রক গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করছে। শ্রম ক্ষেত্রে সংস্কার প্রসঙ্গে শ্রী গোয়েল বলেন, শ্রমিক ও বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ সুরক্ষিত রেখে এক সামঞ্জস্যপূর্ণ সমাধান খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে।


শ্রী গোয়েল ভারতকে অন্যতম বিনিয়োগের গন্তব্য বলে উল্লেখ করে বলেন, দেশের মানুষ আরও উন্নত জীবনযাপন প্রত্যাশা করেন। এই লক্ষ্যে সরকার দেশে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সম্ভাব্য সবরকম সুযোগ-সুবিধা দিতে অঙ্গীকারবদ্ধ। শ্রী গোয়েল দেশের অগ্রগতির পথে সামিল হওয়ার জন্য বিদেশি বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণের আহ্বান জানান।

 

 


CG/BD/SB



(Release ID: 1641807) Visitor Counter : 7