যুবওক্রীড়াবিষয়কমন্ত্রক

লোকসভার অধ্যক্ষ শ্রী ওম বিড়লা তৃতীয় জাতীয় যুব সংসদ উৎসব ২০২২-এর সমাপ্তি ভাষণ দিয়েছেন

Posted On: 11 MAR 2022 3:49PM by PIB Kolkata
নয়াদিল্লি, ১১ মার্চ, ২০২২
 
লোকসভার অধ্যক্ষ শ্রী ওম বিড়লা আজ নতুন দিল্লিতে সংসদের সেন্ট্রাল হলে তৃতীয় জাতীয় যুব সংসদ উৎসব ২০২২-এর সমাপ্তি ভাষণ দিয়েছেন। কেন্দ্রীয় যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া মন্ত্রী শ্রী অনুরাগ ঠাকুর, প্রতিমন্ত্রী শ্রী নিশিথ প্রামাণিক উপস্থিত ছিলেন। 
 
অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের উদ্দেশে শ্রী বিড়লা জানান, জাতীয় যুব সংসদ একটি উদ্ভাবনী কর্মসূচি। যুবসম্প্রদায়কে সংসদীয় পদ্ধতি ও গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার বিষয় বোঝানোর অন্যতম মাধ্যম হ’ল এটি। তরুণদের নতুন ভারত গড়ার প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণের জন্য উৎসাহিত করেন শ্রী বিড়লা। বিশ্ব জুড়ে দ্রুত পরিবর্তনের কথা উল্লেখ করে শ্রী বিড়লা যুবসম্প্রদায়কে এই পরিবর্তনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেওয়ার আহ্বান জানান এবং সেই অনুযায়ী নিজেদের প্রস্তুত করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে বলেন। তিনি জানান, দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে, তরুণদের মেধা ও শক্তি দিয়ে উন্নয়ন, গণতন্ত্র এবং গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানকে শক্তিশালী করে তুলতে অবদান রাখতে হবে। ‘নেশন ফার্স্ট’ – এই ভাবনা তাদের অনুপ্রাণিত করবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। দেশকে স্বনির্ভর করে তোলার জন্য বৃহত্তর লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে যেতে যৌথভাবে কাজ করা উচিৎ বলে তিনি জানান। 
 
আইনসভার মর্যাদা ও সম্মান হ্রাস সম্পর্কে উদ্বেগ প্রকাশ করে শ্রী বিড়লা বলেন, এই আইনসভা হ’ল বিতর্ক ও আলোচনার মঞ্চ, বাধাদানের জায়গা নয়। তিনি বলেন, বিলগুলি নিয়ে সংসদে আলোচনা করা উচিৎ, যাতে সমাজের সকল শ্রেণী মানুষের আশা-আকাঙ্খাকে আইনের মাধ্যমে কার্যকরভাবে অন্তর্ভুক্ত করা যায়। রাষ্ট্রপতি ও রাজ্যপালের ভাষণে বাধা সংসদীয় ঐতিহ্যের জন্য অনুকূল নয় বলেও জানান তিনি। জনপ্রতিনিধিদের সভার মর্যাদা ও গরিমা বৃদ্ধিতে নিরলসভাবে কাজ চালিয়ে যাওয়া উচিৎ বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
 
অনুষ্ঠানে কেন্দ্রীয় যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া মন্ত্রী শ্রী অনুরাগ ঠাকুর বলেন, ভারতীয় গণতন্ত্রের ভবিষ্যৎ সত্যিই উজ্জ্বল। কারণ, যুবরা দেশের বিষয়ে, গণতন্ত্র এবং সেই সংক্রান্ত ব্যবস্থাপনায় সক্রিয় অংশগ্রহণ করে থাকেন। তরুণরা ইতিবাচক পরিবর্তনের জন্য উদ্ভাবনী চিন্তাভাবনা নিয়ে এগিয়ে আসছেন, যা দেশের গণতন্ত্রের পক্ষে উৎসাহব্যঞ্জক। তরুণদের এই আলোচনায় অংশগ্রহণের জন্য উচ্ছ্বাসও প্রকাশ করেন তিনি। শ্রী ঠাকুর বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী স্বচ্ছ ভারত অভিযান শুরু করেছিলেন, যাতে বিশ্ব দরবারে ভারতের মুখ আরও উজ্জ্বল হয়ে ওঠে। 
 
এবারের এই জাতীয় যুব সংসদ উৎসব ২০২২ – এ প্রথম স্থান অধিকার করেছেন ভোপালের শ্রীমতী রাগেশ্বরী অঞ্জনা। দ্বিতীয় স্থান পেয়েছেন রাজস্থানের ডুঙ্গারপুরের শ্রী সিদ্ধার্থ যোশী এবং তৃতীয় স্থান দখল করেছেন ভাতিন্দার শ্রীমতী অমরপ্রীত কউর। শ্রী ওম বিড়লা এদিন বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন এবং সমস্ত অংশগ্রহণকারীদের শুভেচ্ছা জানান। 
 
 
CG/SS/SB


(Release ID: 1805237) Visitor Counter : 507