নারীওশিশুবিকাশমন্ত্রক
azadi ka amrit mahotsav

নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রকের একগুচ্ছ প্রকল্প

Posted On: 02 FEB 2022 9:34AM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লী,  ০২ ফেব্রুয়ারি, ২০২২


ভারতের মোট জনসংখ্যার ৬৭.৭ শতাংশ মহিলা ও শিশু। দেশের সার্বিক ও স্থিতিশীল উন্নয়নে এদের জন্য নিরাপদ ও সুরক্ষিত পরিবেশ গড়ে তোলা অত্যন্ত প্রয়োজন। শিশুদের যাতে পুষ্টির কোনো অভাব না হয়, তারা যাতে খুশিতে থাকে এবং মহিলারা যাতে কোনোরকমের বৈষম্য ও হিংসার শিকার না হন তা নিশ্চিত করতে মহিলা ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রক বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে। বিভিন্ন রাজ্যে মহিলা ও শিশুদের জন্য নানা কর্মসূচি যাতে যথাযথভাবে পালন করা হয় সেটি নিশ্চিত করা, লিঙ্গ বৈষম্য দূর করা এবং শিশুদের কল্যাণে গৃহীত বিভিন্ন নীতি ও কর্মসূচি বাস্তবায়িত করা মন্ত্রকের কাজ। কেন্দ্র সম্প্রতি তিনটি গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচি অনুমোদন করেছে, এগুলি হল : মিশন পোষণ ২.০, মিশন শক্তি ও মিশন বাৎসল্য।

মিশন পোষণ হল একটি সুসংহত পুষ্টিকরণ প্রকল্প। শিশু, বয়ঃসন্ধিতে থাকা কিশোরী, যেসমস্ত মহিলারা গর্ভধারণ করেছেন এবং যাঁরা তাঁদের সন্তানদের বুকের দুধ খাওয়ান- এঁদের সকলের পুষ্টি নিশ্চিত করতে এই প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে দেশজুড়ে পুষ্টির বিষয়ে সচেতনতা গড়ে তোলা, সুখাদ্যাভ্যাস এবং অপুষ্টির সমস্যা দূর করা সম্ভব। পোষণ ২.০-র মাধ্যমে অঙ্গনওয়াড়ী, বয়সন্ধিতে থাকা কিশোরীদের জন্য প্রকল্প এবং পোষণ অভিযানকে এক ছাতার তলায় নিয়ে আসা হয়েছে। এই প্রকল্প বাস্তবায়নে তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তির সাহায্য নেওয়া হবে। এছাড়াও সংবাদ মাধ্যমের সহায়তায় নির্দিষ্ট জনগোষ্ঠীর কাছে পৌঁছানোও এই প্রকল্পের উদ্দেশ্য।

মিশন শক্তি হলো মহিলাদের সহায়তা করার একটি প্রকল্প। মহিলাদের নিরাপত্তা, সুরক্ষা প্রদান, পুনর্বাসন এবং ক্ষমতায়ণ এই প্রকল্পের মাধ্যমে নিশ্চিত করা হবে। মিশন শক্তির অধীনে দুটি প্রকল্প রয়েছে- সম্বল ও সামর্থ। সম্বল প্রকল্পে মহিলাদের নিরাপত্তা ও সুরক্ষা নিশ্চিত করা হয়। মহিলাদের ক্ষমতায়ণের জন্য সামর্থ প্রকল্পটি কার্যকর করা হবে।

মিশন বাৎসল্যের মাধ্যমে শিশুদের স্বাস্থ্য ও খুশিতে ভরপুর শৈশব নিশ্চিত করা হবে। দেশে ৪৭ কোটি ২০ লক্ষ নাগরিকের বয়স ১৮-র নীচে- যারা মোট জনসংখ্যার ৩৯ শতাংশ। এই প্রকল্পটির মাধ্যমে শিশুর মনের বিকাশ যাতে যথাযথভাবে হয় এবং সে বেড়ে ওঠার জন্য উপযুক্ত পরিবেশ পায় সেটি নিশ্চিত করা হবে।

এই তিনটি প্রকল্প ২০২১-২২ থেকে ২০২৫-২৬ সময়কালে পঞ্চদশ অর্থ কমিশন বাস্তবায়িত করবে।

মিশন পোষণ ২.০র জন্য ১,৮১,৭০৩ কোটি টাকা ধার্য করা হয়েছে। এই অর্থ পোষণ অভিযানে ব্যয় করা হবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে রাজ্য সরকার এবং যেসব কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিধানসভা রয়েছে, সেখানকার প্রশাসন ৪০ শতাংশ ব্যয় বহন করবে। তবে উত্তরপূর্বাঞ্চলের রাজ্য, হিমালয় সন্নিহিত রাজ্যের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকারগুলি প্রকল্পের ১০ শতাংশ ব্যয়ভার বহন করবে। যেসব কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের বিধানসভা নেই সেখানে পুরো অর্থ কেন্দ্র দেবে।

মিশন শক্তির জন্য ২০৯৮৯ কোটি টাকা ধার্য করা হয়েছে। এর আওতায় সম্বল প্রকল্পটি বাস্তবায়নে পুরো অর্থই কেন্দ্র দেবে। সমর্থ প্রকল্পটিতে বাস্তবায়নে রাজ্য সরকার এবং যেসব কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিধানসভা রয়েছে, সেখানকার প্রশাসন ৪০ শতাংশ ব্যয় বহন করবে। তবে উত্তরপূর্বাঞ্চলের রাজ্য, হিমালয় সন্নিহিত রাজ্যের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকারগুলি প্রকল্পের ১০ শতাংশ ব্যয়ভার বহন করবে। যেসব কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের বিধানসভা নেই সেখানে পুরো অর্থ কেন্দ্র দেবে।

মিশন বাৎসল্য প্রকল্পের জন্য ব্যয় হবে ১০,৯১৬ কোটি টাকা। এই প্রকল্পে কেন্দ্র ৬৯২৮ কোটি এবং রাজ্য ৩৯৮৮ কোটি টাকা ব্যয় করবে।


CG/CB/NS



(Release ID: 1794827) Visitor Counter : 1000