শিল্পওবাণিজ্যমন্ত্রক
azadi ka amrit mahotsav

ভারত ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি সম্পর্কিত আলোচনা শুরু হয়েছে

প্রস্তাবিত মুক্ত বাণিজ্য চুক্তির ফলে ২০৩০ সালের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য দ্বিগুণ করতে সাহায্য করবে বলে আশা করা হচ্ছে

শ্রী পীযূষ গোয়েল বিপণনের সমস্যাগুলি মোকাবিলা করে এবং বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা সরিয়ে ক্ষেত্রীয় সহযোগিতা বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন

মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি সম্পাদনের ফলে কর্মসংস্থানের ব্যাপক সুযোগ সৃষ্টি হবে

Posted On: 13 JAN 2022 2:42PM by PIB Kolkata
নতুন দিল্লি, ১৩ জানুয়ারি, ২০২২
 
কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রী শ্রী পীযূষ গোয়েল আজ ভারত ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি সম্পর্কিত আলোচনার সূচনা করেছেন। তার সঙ্গে ছিলেন যুক্তরাজ্যের সেক্রেটারি অফ স্টেট ফর ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড সম্মানীয় অ্যান মেরি ট্রেভেলিয়ান। মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি সম্পাদনের ফলে ২০৩০ সালের মধ্যে ভারত ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য দ্বিগুণ করার লক্ষ্য সহজতর হবে বলে আশা করা হচ্ছে। গত বছরের মে মাসে দু দেশের প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী এবং মিস্টার বরিস জনসন বিষয়টি নিয়ে আগেই আলোচনা করে নিয়েছিলেন।
 
চুক্তি সম্পাদন অনুষ্ঠানের সূচনা করে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শ্রী পীযূষ গোয়েল বলেন, ভারত এবং যুক্তরাজ্য উভয় দেশেরই গণতন্ত্র মজবুত ও শক্তিশালী। দু দেশের ইতিহাস এবং সংস্কৃতিও ঐতিহ্য শীল। যুক্তরাজ্যে বসবাসকারী প্রবাসী ভারতীয়রা একটি 'লিভিং ব্রিজ' হিসেবে কাজ করে। যার ফলে ফলে দু'দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরও গতিশীল হয়েছে।
 
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, যুক্তরাজ্যে সঙ্গে এই মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি একটি প্রতিযোগিতা মূলক পরিসেবা ব্যবস্থা নিশ্চিত করবে বলে আশা করা হচ্ছে।
 
শ্রী গোয়েল বলেন, যুক্তরাজ্যের সঙ্গে এই মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি আলোচনার ফলের চামড়া, বস্ত্র, অলংকার এবং প্রক্রিয়াজাত কৃষিপণ্যে ভারতের রপ্তানি অনেকটাই বাড়বে। এর পাশাপাশি ভারতের ৫৬ টি সামুদ্রিক ইউনিটের স্বীকৃতির মাধ্যমে ভারত সামুদ্রিক পণ্য রপ্তানিতে একটি কোয়ান্টাম জাম্প সৃষ্টি করবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।
 
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আরো উল্লেখ করেন যে, ফার্মার মিউচুয়াল রিকগনিশন এগ্রিমেন্ট বা এম আর এস- এর মাধ্যমে বাজারে অতিরিক্তভাবে প্রবেশাধিকার দিতে পারে। আই টি, বা আই টি ই এস এবং নার্সিং, শিক্ষা, স্বাস্থ্য সহ আয়ুষ ও অন্যান্য অডিও ভিসুয়াল পরিষেবাগুলির মতো ক্ষেত্র গুলিতে রপ্তানির পরিমাণ বাড়ানোর প্রভূত সম্ভাবনা রয়েছে। এর পাশাপাশি উভয় দেশের ক্ষেত্রে জনসাধারণের মধ্যে যোগাযোগ আরও সক্রিয় হয়ে উঠবে বলে তিনি মনে করেন।
 
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আশ্বস্ত করে বলেছেন যে, এই মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি সম্পাদনের ফলে দুটি দেশই বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে আলোচনার জন্য সক্রিয়ভাবে এবং নিয়মিত ভাবে একে অপরের সঙ্গে জড়িত থাকবে। তিনি বলেন যে, পর্যটন, প্রযুক্তি, শিল্পোদ্যোগ, শিক্ষা জলবায়ু পরিবর্তন প্রভৃতি ক্ষেত্রে সহযোগিতা প্রসারিত হবে এবং দুটি দেশই বিস্তৃত ক্ষেত্রে উপকৃত হবে।
 
বিপণনের সমস্যাগুলির সমাধান করে এবং বাণিজ্য বিধি-নিষেধ অপসারণের মাধ্যমে ক্ষেত্রীয় সহযোগিতা বাড়ানোর তিনি আহ্বান জানান। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন এই চুক্তি সম্পাদনের ফলে উভয় দেশই প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে সহায়তা করবে।
 
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন ভারত ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে এই চুক্তি সম্পাদনের ফলে মূল্য শৃংখল একীভূত করতে সাহায্য করবে এবং সরবরাহ শৃংখল শক্তিশালী করবে। তিনি মনে করিয়ে দেন যে, উভয় দেশের নেতারা গত বছরের গোড়ার দিকে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি সম্পর্কিত আলোচনা শুরুর একটি প্রস্তাব করেছিলেন।
 
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন এই চুক্তির ফলে উভয় দেশের মধ্যে বাণিজ্য প্রসার আরও প্রশস্ত এবং সুদৃঢ় হবে। ক্ষুদ্র, অতি ক্ষুদ্র এবং মাঝারি উভয় ক্ষেত্রেই দু-দেশ উপকৃত হবে।
 
 
CG/ SB


(Release ID: 1789740) Visitor Counter : 138