নতুনওপুনর্নবীকরণযোগ্যজ্বালানিমন্ত্রক
azadi ka amrit mahotsav

২০৩০ সালের মধ্যে সৌরশক্তি ক্ষেত্রে ১ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগের লক্ষ্য অর্জনের প্রতিশ্রুতির মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক সৌর জোটের চতুর্থ সভার সমাপ্তি

Posted On: 22 OCT 2021 11:52AM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ২২ অক্টোবর, ২০২১

 

আন্তর্জাতিক সৌর জোটের চতুর্থ সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে ১৮-২১ অক্টোবর পর্যন্ত। এই সভায় সভাপতিত্ব করেছেন কেন্দ্রীয় বিদ্যুৎ, নতুন ও পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তি মন্ত্রী শ্রী আর কে সিং। এই সভায় ১০৮টি দেশ অংশ নেয়। পাশাপাশি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জলবায়ু বিষয়ক বিশেষ রাষ্ট্রদূত জন কেরি প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন। এমনকি, ইউরোপীয়ান গ্রীন ডিলের পক্ষ থেকে  ইউরোপীয়ান কমিশনের কার্যকরি সহ-সভাপতি ফ্রান্স টিমারম্যান্স এই সভায় বক্তব্য রাখেন।

সভাপতির ভাষণে ভারতের পক্ষ থেকে বিদ্যুৎ ও নতুন ও পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তি মন্ত্রী শ্রী আর কে সিং জানান, সৌর ও পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তিকে সঠিকভাবে ব্যবহার করার সময় এসেছে। এই শক্তি যথাযথভাবে ব্যবহার করতে পারলে বেশ কিছু সমস্যার সমাধান সম্ভব। আন্তর্জাতিক সৌর জোট বিশ্বে সবুজ শক্তি ক্ষেত্রে বিনিয়োগে সাহায্য করতে পারে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। শ্রী সিং বলেন, স্বচ্ছ জ্বালানী ব্যবহারের মাধ্যমে আর্থিক উন্নয়ন সম্ভব। এতে কয়লা ও কাঠের জ্বালানী নিয়ন্ত্রণ করা যেতে পারে।

আন্তর্জাতিক সৌর জোটের মহানির্দেশক ডঃ অজয় মাথুর জানান, আন্তর্জাতিক সৌর জোট বিশ্বের কম কার্বন নিঃসরণকারী দেশগুলিতে আর্থিক পরিবর্তন নিয়ে আসতে অনুঘটকের কাজ করতে পারে। তিনি বলেন, সৌরশক্তি ক্ষেত্রে যথাযথ বিনিয়োগের জন্য উপযুক্ত নীতি, পরিকাঠামো প্রয়োজন। ২০৩০ সালের মধ্যে সৌরশক্তি ক্ষেত্রে ১ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে বলেও তিনি জানান। নতুন ও পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তি মন্ত্রকের সচিব শ্রী ইন্দু শেখর চতুর্বেদী বলেন, পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তি ক্ষেত্রে মহিলাদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধির জন্য কেন্দ্রীয় সরকার একাধিক গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিয়েছে। এক্ষেত্রে বেসরকারি সংস্থাগুলিকে এগিয়ে আসার আহ্বানও জানান তিনি। সভায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জলবায়ু বিষয়ক রাষ্ট্রদূত জন কেরি বলেন, জলবায়ু সঙ্কট মোকাবিলায় সৌরশক্তি বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী হাতিয়ার। উদীয়মান অর্থনীতির দেশগুলি সহ ছোট ছোট দ্বীপ রাষ্ট্রে সৌরশক্তি বিকাশের ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক সৌর জোট যে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে, তার উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন তিনি। চার দিনের এই সভায় ব্রিটেনের বিজ্ঞান, প্রযুক্তি ও উদ্ভাবন দপ্তরের মন্ত্রী তথা সাংসদ সদস্য মিঃ জর্জ ফ্রিম্যান কম দামে, নির্ভরযোগ্য উপায়ে কিভাবে বিশ্বব্যাপী বিদ্যুতের চাহিদা মেটানো যায় এবং এক্ষেত্রে সৌরশক্তি কি ভূমিকা পালন করতে পারে সে বিষয়ে বক্তব্য রাখেন। সভায় প্যারিস চুক্তির পর আন্তর্জাতিক সৌর জোটে উল্লেখযোগ্য সাফল্যের মাইলফলকগুলি তুলে ধরা হয়। ‘ওয়ান সান ওয়ান ওয়ার্ল্ড ওয়ান গ্রিড’ অর্থাৎ ‘এক সূর্য এক বিশ্ব এক গ্রিড’ – এর বিষয় নিয়েও সভায় আলোচনা হয়।

 

CG/SS/SB



(Release ID: 1765911) Visitor Counter : 87