বিদ্যুৎমন্ত্রক

২০৩০ সালের মধ্যে ৪৫০ গিগাওয়াট পুনর্নবীকরণ শক্তি উৎপাদনে লক্ষ্য অর্জনের প্রতিশ্রুতির জন্য ভারতের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেছে আমেরিকা

Posted On: 13 SEP 2021 4:33PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লী, ১৩  সেপ্টেম্বর, ২০২১

 

    কেন্দ্রীয় বিদ্যুৎ ও নতুন এবং পুনর্নবীকরণ শক্তি মন্ত্রী শ্রী আর কে সিং আজ জলবায়ু পরিবর্তন রোধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ সভাপতিত্বে পরিচালিত এক প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। এই প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে ছিলেন মিঃ জন কেরি। জলবায়ু পরিবর্তন রোধের বিষয়ে সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা এগিয়ে নিয়ে যাওয়া এবং ভারত ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে প্রকৃত অংশীদারিত্বের লক্ষ্যে কাজ চালিয়ে যাওয়ার উদ্দেশ্যেই এই বৈঠক আয়োজন করা হয়। জলবায়ু পরিবর্তনের সুফল যাতে সমগ্র বিশ্ব পেতে পারে তা নিয়েও বৈঠকে আলোচনা হয়। এদিনের এই বৈঠকে বিদ্যুৎ মন্ত্রকের সচিব শ্রী অলক কুমার এবং মন্ত্রকের শীর্ষ আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন। 

    ২০৩০ সালের মধ্যে ৪৫০ গিগাওয়াট পুনর্নবীকরণ শক্তি উৎপাদনের লক্ষ্য অর্জনের প্রতিশ্রুতির জন্য ভারতের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা জানাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। তারা আরও জানিয়েছে মাত্র ১৮ মাসের মধ্যে ২.৮ কোটি বাড়িতে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিয়েছে ভারত। বাড়ি বাড়ি বিদ্যুতায়নে এ এক সর্বজনীন সাফল্যের বিষয় বলেও উল্লেখ করেছে তারা।

    কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি দলকে জানিয়েছেন যে, স্বচ্ছ শক্তির রূপান্তরের দিকে এগিয়ে যাওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় সরকার সর্বত প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি আরও জানান যে পুনর্নবীকরণ শক্তি ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় সমস্যা হল 'শক্তি সঞ্চয়' করে রাখা। এই সমস্যার সমাধান হলে সাধারণ মানুষের কাছে খুব সহজেই পুনর্নবীকরণ শক্তির সুফল পৌঁছে দেওয়া সম্ভবপর হবে। তিনি গ্রিন হাইড্রোজেনের বিষয়ে সরকারের গৃহিত পরিকল্পনাগুলির কথাও  উল্লেখ করেন। এক্ষেত্রে পরিকাঠামো নির্মাণের জন্য খুব শীঘ্রই নিলামের দরপত্র ডাকা হবে বলেও তিনি জানান। এই নিলামে মার্কিন সংস্থাগুলিকে দরপত্র জমা দেওয়ার জন্য অনুরোধও করেন। ভারত ২০৩০ সালের মধ্যে ৪৫০ গিগাওয়াট পুনর্নবীকরণ শক্তি উৎপাদনের পাশাপাশি তাপমাত্রার পারদ ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত কমিয়ে নিয়ে আসার লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে। এতে প্যারিস জলবায়ু চুক্তির প্রতিশ্রুতি পূরণ করাও সম্ভবপর হবে। শ্রী সিং উদ্বেগ প্রকাশ করে জানান যে, বিশ্বে এখনও ৮০ কোটিরও বেশি মানুষের কাছে বিদ্যুতের সুবিধা পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হয়নি। এক্ষেত্রে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে আন্তর্জাতিক সৌর জোটে যোগ দেওয়ার জন্য আহ্বান জানান তিনি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, এরফলে বহু দেশ উপকৃত হবে। উভয় পক্ষই সহমত হয়েছে যে সাশ্রয়ী মূল্যে শক্তি ক্ষেত্রে রূপান্তর নিয়ে আসার জন্য বিকল্প রসায়ন খুঁজে বের করা এবং তার উৎপাদন খরচ কমানোর লক্ষ্যে ভারত ও মার্কিন পরীক্ষাগারগুলি একযোগে কাজ করতে পারে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে জলবায়ু পরিবর্তন রোধে দুই দেশই একযোগে কাজ করে চলেছে। এই অংশীদারিত্ব বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলিকে অনুপ্রেরণা যোগাবে বলেও আমেরিকার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। 

 

CG/SS/NS



(Release ID: 1754605) Visitor Counter : 46