স্বাস্থ্যওপরিবারকল্যাণমন্ত্রক

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক আয়োজিত বিশ্ব যকৃৎ দিবসের অনুষ্ঠানে পৌরহিত্য করেছেন শ্রী অশ্বিনী কুমার চৌবে

Posted On: 19 APR 2021 2:38PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ১৯ এপ্রিল, ২০২১

 

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী শ্রী অশ্বিনী কুমার চৌবে আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিশ্ব যকৃৎ দিবস অনুষ্ঠানে পৌরহিত্য করেছেন।

দিনটির গুরুত্ব ব্যাখ্যা করে শ্রী চৌবে জানান, যকৃৎ মানব শরীরে দ্বিতীয় বৃহত্তম অঙ্গ। এটি নীরবে মানব শরীরে গুরুত্বপূর্ণ কাজ সম্পন্ন করে থাকে। কিন্তু, উশৃঙ্খল জীবনযাপনের কারণে অনেক সময়েই যকৃতের সমস্যা দেখা দেয়। যকৃৎ যখন নিজে থেকে কাজ করা ছেড়ে দেয় বা ঠিকভাবে কাজ করতে না পারে, তখন নন-অ্যালকোহলিক ফ্যাটি লিভার ডিজিজ দেখা যায়। এই রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর হার যথেষ্টি বৃদ্ধি পাচ্ছে। মানুষ দ্রুত গতিময় জীবনযাত্রার কারণে নিজের স্বাস্থ্যের ব্যাপারে  ‘কনজুসি’ (কৃপণ) হয়ে পড়ছেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, ভারতে নন-অ্যালকোহলিক ফ্যাটি লিভার ডিজিজ ক্রমশই নীরবে মহামারীর আকার ধারণ করছে। এই বিষয়ে উদ্বেগও প্রকাশ করেন তিনি। বিশ্বের জনসংখ্যার প্রায় ২০-৩০ শতাংশ মানুষ এই রোগে আক্রান্ত। ভারতে প্রতি ১০ জনের মধ্যে ১-৩ জন এই রোগে আক্রান্ত বলেও উল্লেখ করেন তিনি। 

‘কুঠারাঘাত’ – এর মত করে সাধারণ মানুষ এবং তাঁদের নিকটাত্মীয়দের এই রোগের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান  শ্রী চৌবে। একই সঙ্গে, ধূমপান, মদ্যপান ও গুরুপাক খাবার পরিত্যাগ করার অনুরোধ করেন তিনি। কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী পরিবারের সদস্যদের নিয়মিত  স্বাস্থ্য পরীক্ষা পরামর্শ প্রদান করেন । এই রোগের বিরুদ্ধে সরকারের গৃহীত পদক্ষেপের বিষয়ে শ্রী চৌবে সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ভারতই হ’ল বিশ্বের মধ্যে প্রথম দেশ যে নন-অ্যালকোহলিক ফ্যাটি লিভার ডিজিজ – এর বিরুদ্ধে কার্যকর পদক্ষেপ এবং এই রোগ প্রশমনে জাতীয় কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। ক্যান্সার, মধুমেহ, কার্ডিও ভাসকুলার ডিজিজ এবং স্ট্রোকের মতো এই রোগ নিয়ন্ত্রণে আনতে জনকল্যাণমুখী কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। শ্রী চৌবে বলেন, এ ধরনের অসংক্রামক রোগ প্রশমনে সরকার উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। 

সকল দেশবাসীর সুস্বাস্থ্যের জন্য প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর দৃষ্টিভঙ্গীর উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করে শ্রী চৌবে জানান, স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন, ওজন হ্রাসজনিত সমস্যা দূর, সংক্রামক ও অসংক্রামক রোগ-প্রতিরোধের ওপর সরকার বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে। তিনি বলেন, ‘ফিট ইন্ডিয়া মুভমেন্ট’, ‘ইট রাইট ইন্ডিয়া’র সঙ্গে যোগাভ্যাসের ওপর বিশেষ নজর দিয়ে এ ধরনের রোগের সমস্যা মোকাবিলায় ভারত এক অনন্য পথ বেছে নিয়েছে। সমস্ত ভারতীয়র স্বাস্থ্যকর ও মঙ্গলময় জীবনযাপনের বিষয় সরকারের অগ্রণী দৃষ্টিভঙ্গীর মধ্যে রয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

এদিনের অনুষ্ঠানে জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনের মিশন অধিকর্তা এবং অতিরিক্ত সচিব শ্রীমতী বন্দনা গুরনানী, স্বাস্থ্য পরিষেবা দপ্তরের মহানির্দেশক ডঃ সুনীল কুমার সহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। 

 

CG/SS/SB



(Release ID: 1712683) Visitor Counter : 4