বৈদ্যুতিন ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রক

তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রী শ্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ নেক্সট জেনারেশন স্টার্ট আপ চ্যালেঞ্জ ‘চুনৌতি’ প্রতিযোগিতার সূচনা করেছেন

Posted On: 28 AUG 2020 4:18PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ২৮ অগাস্ট, ২০২০

 

 


ভারতের টিয়ার-২ শ্রেণীর শহরগুলিতে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে স্টার্ট আপ ও সফটওয়্যার সামগ্রীর আরও প্রসারে কেন্দ্রীয় তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী শ্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ আজ নেক্সট জেনারেশন স্টার্ট আপ চ্যালেঞ্জ ‘চুনৌতি’ প্রতিযোগিতার সূচনা করেছেন। উল্লেখ করা যেতে পারে, কেন্দ্রীয় সরকার টিয়ার-২ শ্রেণীর শহরগুলিরতে স্টার্ট আপ ও সফটওয়্যার সামগ্রীর আরও উৎপাদন প্রসারে আগামী তিন বছরে ৯৫ কোটি ৩ লক্ষ টাকার বাজেট সহায়তা মঞ্জুর করেছে। এই কর্মসূচির উদ্দেশ্য হ’ল – ৩০০টি স্টার্ট আপকে চিহ্নিত করে সেগুলিতে সফটওয়্যার সামগ্রীর উৎপাদন বাড়াতে ২৫ লক্ষ টাকা সহয়তার পাশাপাশি অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা প্রদান করা।


এই ‘চুনৌতি’ প্রতিযোগিতার আওতায় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রক নিম্নলিখিত ক্ষেত্রগুলিতে স্টার্ট আপগুলিকে অংশগ্রহণের আহ্বান জানিয়েছে :

১) সর্বসাধারণের জন্য শিক্ষা-প্রযুক্তি, কৃষি-প্রযুক্তি এবং আর্থিক-প্রযুক্তিগত সমাধান।
২) সরবরাহ-শৃঙ্খল, লজিস্টিক ও পরিবহণ ব্যবস্থাপনা।
৩) পরিকাঠামো ও প্রত্যন্ত অঞ্চলে নজরদারি।
৪) চিকিৎসা স্বাস্থ্য পরিচর্যা, ডায়গনোস্টিক, প্রিভেন্টিভ ও সাইকোলজিকাল কেয়ার।
৫) কর্মসংস্থান ও দক্ষতা বৃদ্ধি, লিঙ্গুয়েস্টিক টুলস্ এবং প্রযুক্তি।

‘চুনৌতি’ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে মনোনীত স্টার্ট আপগুলিকে দেশের বিভিন্ন জায়গায় যে সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক গড়ে তোলা হয়েছে, তার মাধ্যমে বিভিন্ন সুবিধা প্রদান করা হবে। মনোনীত স্টার্ট আপগুলি এই সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কগুলি থেকে ইনক্যুবেশন, মেন্টরশিপ, সিকিউরিটি, টেস্টিং, যৌথ উদ্যোগে মূলধন তহবিলের সহায়তা এবং বিভিন্ন শিল্প সংস্থার সঙ্গে সরাসরি যোগসূত্র স্থাপনের সুবিধা পাবে। এছাড়াও, স্টার্ট আপগুলিতে ২৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত তহবিল প্রদানের পাশাপাশি, সদ্যগঠিত স্টার্ট আপগুলিতে ছ’মাস পর্যন্ত বিশেষজ্ঞের সহায়তা নেওয়া হবে। স্টার্ট আপ স্থাপনে আগ্রহী উদ্যোগীদের এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করতে উৎসাহ দেওয়া হবে এবং ইন্টার্ন বা শিক্ষানবিশ হিসাবে ছ’মাসের জন্য মাসিক ১০ হাজার টাকা উৎসাহ ভাতা দেওয়া হবে।


আগ্রহী স্টার্ট আপগুলি নিম্নলিখিত লিঙ্কে ক্লিক করে অথবা এসটিপিআই – এর ওয়েবসাইটে গিয়ে ‘চুনৌতি’ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য আবেদন করতে পারবেন। এই প্রতিযোগিতায় আবেদনের লিঙ্কটি হ’ল - https://innovate.stpinext.in/ । এদিকে শ্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ বিহারের মুজাফফরপুরে ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ ইলেক্ট্রনিক অ্যান্ড ইনফরমেশন টেকনোলজির একটি ডিজিটাল প্রশিক্ষণ তথা দক্ষতা উন্নয়ন কেন্দ্রের শিলান্যাস করেছেন। কেন্দ্রীয় ইলেক্ট্রনিক্স ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক ৯ কোটি ১৭ লক্ষ টাকা খরচ করে এই প্রশিক্ষণ তথা দক্ষতা উন্নয়ন কেন্দ্রটি গড়ে তুলবে। ইতিমধ্যেই বিহার সরকার এই প্রতিষ্ঠানটি গড়ে তোলার জন্য ১ একর জমি বরাদ্দ করেছে।


প্রতিষ্ঠানটির ডিজিটাল প্রশিক্ষণ তথা দক্ষতা উন্নয়ন কেন্দ্রটির শিলান্যাস উপলক্ষে আয়োজিত এক ভার্চ্যুয়াল অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে শ্রী প্রসাদ বলেন, মন্ত্রকের ‘চুনৌতি’ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা গ্রহণের জন্য যুবাদের পাশাপাশি, মেধাবী উদ্ভাবকদের আমন্ত্রণ জানায়। তিনি বলেন, এই প্রতিযোগিতা নতুন ধরনের সফটওয়্যার সামগ্রী ও অ্যাপ উদ্ভাবনে সাহায্য করবে। প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী আত্মনির্ভর ভারত গঠনের জন্য যে আহ্বান জানিয়েছেন, এই উদ্যোগ সেই লক্ষ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। ডিজিটাল প্রশিক্ষণ তথা দক্ষতা উন্নয়ন কেন্দ্রটির শিলান্যাস অনুষ্ঠানে বিহারের উপ-মুখ্যমন্ত্রীও যোগ দেন।
 

 


CG/BD/SB



(Release ID: 1649327) Visitor Counter : 13