শিল্পওবাণিজ্যমন্ত্রক

ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও বাণিজ্যিক চুক্তি (ইসিটিএ) স্বাক্ষর

Posted On: 02 APR 2022 1:46PM by PIB Kolkata
নতুন দিল্লি,  ২ এপ্রিল, ২০২২
 
কেন্দ্রীয় বাণিজ্য ও শিল্প; গ্রাহক বিষয়ক, খাদ্য ও গণবন্টন তথা বস্ত্র মন্ত্রী শ্রী পীয়ূষ গোয়েল এবং অস্ট্রেলিয়ার বাণিজ্য, পর্যটন ও বিনিযোগ মন্ত্রী মিঃ ড্যান তেহান আজ এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে ভারত - অস্ট্রেলিয়া অর্থনৈতিক অংশীদারিত্ব ও বাণিজ্য চুক্তিতে (ইসিটিএ) স্বাক্ষর করেছেন। স্বাক্ষরদান অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী এবং সেদেশের প্রধানমন্ত্রী মিঃ স্কট মরিসন উপস্থিত ছিলেন। 
 
এক দশকেরও বেশি সময় পর উন্নত একটি দেশের সঙ্গে ভারতের এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। চুক্তিতে দ্বিপাক্ষিক অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক ক্ষেত্রে সহযোগিতার বিষয়টি প্রাধান্য পেয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে পণ্য পরিষেবা, সংশ্লিষ্ট দেশের নিয়ম-নীতি, অভিযোগ নিষ্পত্তি, বাণিজ্যিক ক্ষেত্রে কারিগরি বাধা, একে অপরের দেশে মানুষের যাতায়াত, টেলিযোগাযোগ, শুল্ক, ফার্মাসিউটিক্যাল সামগ্রী প্রভৃতি। 
 
এই চুক্তি দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ক্ষেত্রে প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থা গড়ে তুলতে উৎসাহিত করবে। বিভিন্ন ভারতীয় পণ্য সামগ্রী যেমন – রত্নালঙ্কার, বস্ত্র, চর্মজাত সামগ্রী, জুতো, আসবাবপত্র, খাদ্য ও কৃষিজ পণ্য, ইঞ্জিনিয়ারিং সামগ্রী, চিকিৎসার সাজসরঞ্জাম ও মোটরগাড়ি প্রভৃতি অস্ট্রেলিয়ার বাজারে অবাধ প্রবেশের সুযোগ পাবে। একই ভাবে অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন সামগ্রী যেমন- কাঁচামাল, কয়লা, বিভিন্ন খনিজ পদার্থ ও সুরা পানীয় ভারতের বাজারে প্রবেশ করতে পারবে। দুই দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে বোঝাপড়া শুরু হয় গতবছরের ৩০ সেপ্টেম্বর। অল্প সময়েই দুই দেশের মধ্যে এই চুক্তি স্বাক্ষর সম্পূর্ণ হয়েছে। উল্লেখ করা যেতে পারে, বিভিন্ন পরিষেবায় বাণিজ্যের ক্ষেত্রে অস্ট্রেলিয়া বিশ্বের অন্যতম পছন্দের দেশ। সে দেশে ১২০টি এমন ক্ষেত্র রয়েছে যেখানে ভারতের তথ্য প্রযুক্তি, বাণিজ্যিক পরিষেবা, স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও অডিও ভিজুয়াল ব্যবসায় বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে। অন্যদিকে, ভারত ৩১টি ক্ষেত্রে বাণিজ্যের নিরিখে অন্যতম পছন্দের দেশ। এরমধ্য রয়েছে – বাণিজ্যিক পরিষেবা, যোগাযোগ পরিষেবা, নির্মাণ ও এসংক্রান্ত ইঞ্জিনিয়ারিং পরিষেবা প্রভৃতি। এই ক্ষেত্রগুলিতে অস্ট্রেলিয়া ভারতীয় বাজারের সুযোগ নিতে পারে। 
 
ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে এক নিবিড় দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক রয়েছে, যেখানে বিগত বছরগুলিতে ব্যাপক পরিবর্তন ঘটেছে। দুই দেশের মধ্যে সর্বাঙ্গীন কৌশলগত অংশীদারিত্বের সূচনা হয় গত বছরের চৌঠা জুন, যখন প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী ও সেদেশের প্রধানমন্ত্রী মিঃ স্কট মরিসনের মধ্যে ভার্চুয়াল বৈঠক হয়। বহুমুখী দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার সর্বাঙ্গীন কৌশলগত অংশীদারিত্ব অত্যন্ত ফলপ্রসূ হয়ে উঠেছে। 
 
উল্লেখ করা যেতে পারে, ২০২১-এ দুই দেশের মধ্যে পণ্য সামগ্রী ও পরিষেবা ক্ষেত্রে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের পরিমাণ ছিল ২৭.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ২০১৯ থেকে ২০২১ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ায় ভারতীয় পণ্য সামগ্রী রপ্তানির পরিমাণ ১৩৫ শতাংশ বেড়েছে। ২০২১-এ এর পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৬.৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। অন্যদিকে, অস্ট্রেলিয়া থেকে ভারতে পণ্য সামগ্রী আমদানির পরিমাণ ২০২১-এ দাঁড়িয়েছে ১৫.১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। 
 
দুই দেশের মধ্যে এই চুক্তি পণ্য ও পরিষেবার লেনদেনে সামঞ্জস্য নিয়ে আসবে, যা নিবিড় ও কৌশলগত সম্পর্ককে আরও মজবুত করবে। পক্ষান্তরে দুই দেশের মধ্যে পণ্য ও পরিষেবা-ভিত্তিক দ্বিপাক্ষিক লেনদেন বৃদ্ধি পাবে, কর্মসংস্থানের নতুন সুযোগ তৈরি হবে, সাধারণ মানুষের জীবন-যাপনের মান বাড়বে তথা সর্বোপরি দুই দেশের মানুষের সার্বিক কল্যাণে সহায়ক হবে।
 
 
CG/BD/AS/


(Release ID: 1812806) Visitor Counter : 418