দক্ষতাউন্নয়নওশিল্পোদ্যোগমন্ত্রক

স্টার্ট-আপ ভিলেজ আন্ত্রেপ্রেনিওরশিপ প্রোগ্রাম (এসভিইপি)-র প্রসারের জন্য গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের সঙ্গে আইআইই-র সমঝোতাপত্র স্বাক্ষর

Posted On: 25 MAR 2022 11:24AM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ২৫ মার্চ, ২০২২

 

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর আত্মনির্ভর ভারত অভিযানের সঙ্গে সাযুজ্য রেখে দক্ষতা বিকাশ ও শিল্পোদ্যোগ মন্ত্রকের ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ আন্ত্রেপ্রেনিওরশিপ (আইআইই) কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রকের সঙ্গে একটি সমঝোতা পত্র স্বাক্ষর করেছে। এই সমঝোতা পত্র অনুসারে গ্রামের যুবক-যুবতীদের স্থানীয় স্তরে শিল্পোদ্যোগে উৎসাহিত করা হবে। চুক্তি অনুযায়ী, জাতীয় গ্রামীণ জীবনজীবিকা মিশন (এনআরএলএম)-এর অধীনস্থ স্টার্ট-আপ ভিলেজ আন্ত্রেপ্রেনিওরশিপ প্রোগ্রাম (এসভিইপি)-র মাধ্যমে গ্রামাঞ্চলে কর্মসংস্থানের নতুন নতুন সুযোগ গড়ে তোলা হবে। এক্ষেত্রে গ্রামের বেকার যুবক-যুবতীদের স্বনির্ভর করে তোলার জন্য বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হবে। এর মাধ্যমে গ্রামের দরিদ্র যুবক-যুবতীরা তাদের নিজস্ব ব্যবসা শুরু করতে পারবেন। পুরো প্রকল্পটিতে তথ্য-যোগাযোগ প্রযুক্তির মাধ্যমে প্রশিক্ষণ, দক্ষতা বিকাশ, ব্যাঙ্ক থেকে ঋণ, স্বনির্ভর গোষ্ঠী গঠনের মতো ব্যবস্থা করা হবে। আইআইই-র পক্ষে ডঃ ললিত শর্মা এবং গ্রামোন্নয়নের মন্ত্রকের পক্ষে শ্রী রাঘবেন্দ্র প্রতাপ সিং এই সমঝোতাপত্র স্বাক্ষর করেছেন।

আসামের গুয়াহাটি-ভিত্তিক আইআইই এই কর্মসূচিতে জাতীয় সম্পদ প্রতিষ্ঠানের (ন্যাশনাল রিসোর্স অর্গানাইজেশন) ভূমিকা পালন করবে। এছাড়াও, এই সংস্থাটি রাজ্যস্তরে গ্রামীণ জীবনজীবিকা মিশনকে প্রকল্প বাস্তবায়নে সব ধরনের সহযোগিতা দেবে। নতুন শিল্পোদ্যোগ গ্রামাঞ্চল কর্মসূচি বা এসভিইপি-র মূল উদ্দেশ্য হল গ্রামস্তরে মানবসম্পদ গড়ে তোলা। এর মাধ্যমে এনআরএলএম-এর দক্ষতা বৃদ্ধি হবে। স্বনির্ভর গোষ্ঠীগুলি পুরো প্রকল্পের তত্ত্বাবধান করবে। ১৯৯৩ সালে গুয়াহাটিতে ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ আন্ত্রেপ্রেনিওশিপ গঠিত হয়। এই প্রতিষ্ঠানের মূল লক্ষ্য মানুষকে শিল্পোদ্যোগে উৎসাহিত করে তোলা। এই লক্ষ্য পূরণে অতিক্ষুদ্র ও ক্ষুদ্র শিল্পোদ্যোগীদের প্রশিক্ষণ, পরামর্শ এবং বিভিন্ন গবেষণালব্ধ তথ্য দেওয়া হয়ে থাকে।

 

CG/CB/DM/



(Release ID: 1809750) Visitor Counter : 119