সামাজিকন্যায়ওক্ষমতায়নমন্ত্রক

হাত দিয়ে মল পরিষ্কার করার কারণে মৃত্যু

Posted On: 16 MAR 2022 2:07PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ১৬ মার্চ, ২০২২

 

ম্যানুয়াল স্ক্যাভেঞ্জিং আইন – এর ৫ নম্বর ধারা অনুযায়ী, হাত দিয়ে মল পরিষ্কার করার কারণে মৃত্যুর কোনও সংবাদ পাওয়া যায়নি। ন্যাশনাল সাফাই কর্মচারী ফিনান্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন এ সংক্রান্ত কোনও সমীক্ষাও করেনি। তবে, সেফটিক ট্যাঙ্ক পরিষ্কার করতে গিয়ে যথাযথ সুরক্ষা বিধি মেনে না চলায় ৪৩ জন প্রাণ হারিয়েছেন। হাত দিয়ে যাঁরা মল পরিষ্কার করেন, তাঁদের জন্য কেন্দ্র একটি স্বনির্ভর প্রকল্পের সূচনা করেছে।

স্কিম ফর রিহ্যাবিলিটেশন অফ ম্যানুয়াল স্ক্যাভেঞ্জার্স এর আওতায় স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মাধ্যমে এইসব পরিবারগুলিকে সাহায্য করা হয়। পরিবারের কোনও সদস্য যদি হাত দিয়ে মল পরিষ্কার করার কাজে যুক্ত হন, তাহলে সেই পরিবারকে এককালীন নগদ ৪০ হাজার টাকা অর্থ সাহায্য দেওয়া হয়। এছাড়াও ওই ব্যক্তির এবং তার ওপর নির্ভরশীল পরিবারের সদস্যদের দক্ষতা বিকাশ প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে অন্য কাজের জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। ২ বছরের প্রশিক্ষণের সময়কালে তাঁরা প্রতিমাসে ৩ হাজার টাকা স্টাইপেন্ডও পান। এছাড়াও যাঁরা স্বনির্ভর প্রকল্পের আওতায় ঋণ নিয়েছেন তাঁদের ঋণের মূলধনের ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ভর্তুকি দেওয়া হয়। পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট পরিবারগুলির জন্য  আয়ুষ্মান ভারত প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনার মাধ্যমে স্বাস্থ্য বীমার ব্যবস্থা করা হয়।  

সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের জন্য গৃহীত এই প্রকল্পে আর্থিক সাহায্য সহ অন্যান্য সুবিধা প্রাপকদের সংখ্যাঃ-  

২০১৬-১৭ অর্থবর্ষে ১ হাজার ৩৫৭ জনকে এককালীন অর্থ সাহায্য করা হয়েছে। ৪ হাজার ২৭৩ জন দক্ষতা বিকাশ সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ পেয়েছেন। ১৯৬ জন ঋণের মূলধনের উপর ভর্তুকি পেয়েছেন।

২০১৭-১৮ অর্থবর্ষে ১ হাজার ১৭১ জনকে এককালীন অর্থ সাহায্য করা হয়েছে। ৩৩৪ জন দক্ষতা বিকাশ সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ পেয়েছেন। ১৫৯ জন ঋণের মূলধনের উপর ভর্তুকি পেয়েছেন।

২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে ১০ হাজার ৭৯ জনকে এককালীন অর্থ সাহায্য করা হয়েছে। ১ হাজার ৬৮২ জন দক্ষতা বিকাশ সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ পেয়েছেন। ১৪৪ জন ঋণের মূলধনের উপর ভর্তুকি পেয়েছেন।

২০১৯-২০ অর্থবর্ষে ১৩ হাজার ২৪৬ জনকে এককালীন অর্থ সাহায্য করা হয়েছে। ২ হাজার ৫৩২ জন দক্ষতা বিকাশ সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ পেয়েছেন। ১০৭ জন ঋণের মূলধনের উপর ভর্তুকি পেয়েছেন।

২০২০-২১ অর্থবর্ষে ১৪ হাজার ৬৯২ জনকে এককালীন অর্থ সাহায্য করা হয়েছে। ৬ হাজার ২০৪ জন দক্ষতা বিকাশ সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ পেয়েছেন। ১৫৭ জন ঋণের মূলধনের উপর ভর্তুকি পেয়েছেন।

রাজ্যসভায় আজ এক প্রশ্নের লিখিত জবাবে এই তথ্য জানিয়েছেন সামাজিক ন্যায় ও ক্ষমতায়ন দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী শ্রী রামদাস আটওয়ালে।

 

CG/CB/SB



(Release ID: 1806694) Visitor Counter : 165