কেন্দ্রীয়মন্ত্রিসভা

ভারতীয় চিকিৎসা গবেষণা পরিষদ এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ হেলথ ডিপার্টমেন্ট অফ হেলথ অ্যান্ড হিউম্যান সার্ভিসেস – এর ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ অ্যালার্জি এবং ইনফেকশন ডিজিজের প্রতিষ্ঠানের মধ্যে স্বাক্ষরিত সমঝোতাপত্রে মন্ত্রিসভার অনুমোদন

Posted On: 09 MAR 2022 1:33PM by PIB Kolkata

নয়াদিল্লি, ০৯ মার্চ, ২০২২

 

ভারতীয় চিকিৎসা গবেষণা পরিষদ (আইসিএমআর) এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ হেলথ ডিপার্টমেন্ট অফ হেলথ অ্যান্ড হিউম্যান সার্ভিসেস – এর ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ অ্যালার্জি এবং ইনফেকশন ডিজিজের প্রতিষ্ঠানের মধ্যে, ভারত সরকারের (ব্যবসায়িক লেনদেন) ১৯৬১’র দ্বিতীয় তফশিলের ৭ (ডি) (আই) আইন অনুসারে, ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে  স্বাক্ষরিত সমঝোতাপত্র সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর পৌরোহিত্যে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভাকে অবহিত করা হয়েছে।

স্বাক্ষরিত এই সমঝোতাপত্র অনুযায়ী, চেন্নাইয়ে আইসিএমআর – এর ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট ফর রিসার্চ অন টুইবারকুলোসিস (এনআইআরটি) প্রতিষ্ঠানে মৌলিক ও সৃজনশীল গবেষণা, মহামারী, মেডিসিন, আণবিক জীব বিজ্ঞান, পতঙ্গ বিজ্ঞান, পরজীবী, রোগ-প্রতিরোধক ক্ষমতা এবং ভাইরাসের মতো ক্ষেত্রগুলিতে পারস্পরিক সহযোগিতা গড়ে তোলা হবে। সেইসঙ্গে, ক্রান্তীয় অঞ্চলে বিভিন্ন সংক্রামক রোগ-ব্যাধি প্রতিরোধ, রোগ-নির্ণয় এবং সঠিক চিকিৎসা-পদ্ধতির উপর গুরুত্ব দেওয়া হবে। সমঝোতাপত্র অনুযায়ী যক্ষ্মা, পরজীবী থেকে সংক্রমণ, এইচআইভি/এইডস্‌, অ্যালার্জিজনিত অসুস্থতা সহ অভিন্ন বৈজ্ঞানিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট রোগ-ব্যাধি প্রতিরোধে সহযোগিতা গড়ে তোলার উপর জোর দেওয়া হবে।

সম্পদের যোগানের উপর ভিত্তি করে সমঝোতাপত্র অনুযায়ী, বিভিন্ন গবেষণাধর্মী কাজে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত সরকার তহবিল সংস্থান করবে। এছাড়াও, গবেষণাধর্মী কাজকর্মে প্রয়োজনীয় সহায়তার অসরকারি, বেসরকারি ও অন্যান্য পক্ষের সক্রিয় অংশগ্রহণে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। প্রয়োজন-সাপেক্ষে উভয় পক্ষই সহযোগিতামূলক গবেষণাধর্মী কাজকর্মে তহবিল সংস্থান করতে পারবে।

দুই দেশের আইন, নিয়ম-নীতি, নীতি-নির্দেশিকা ও সংশ্লিষ্ট বিধি-ব্যবস্থা অনুসারে সমঝোতাপত্রের যাবতীয় কর্মকান্ড পরিচালিত হবে। তবে, এ ধরনের কর্মকান্ড পরিচালনার বিষয়টি সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রের কর্মী, মানবসম্পদ ও পর্যাপ্ত তহবিলের উপর নির্ভর করবে।

সমঝোতাপত্র অনুযায়ী, যৌথ গবেষণাধর্মী কর্মসূচিগুলিতে ভারতীয় বিজ্ঞানী/গবেষক/পড়ুয়াদের অস্থায়ী-ভিত্তিতে বা প্রকল্প অনুযায়ী কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হবে। এর ফলে, যক্ষ্মা ও অন্যান্য অসুখ-বিসুখ নিয়ন্ত্রণ তথা প্রতিরোধের বিভিন্ন আধুনিক পদ্ধতি ও দক্ষতা সম্পর্কে অবহিত হওয়ার সুযোগ ঘটবে।

উল্লেখ করা যেতে পারে, চেন্নাইয়ে গবেষণা ক্ষেত্রে একটি আন্তর্জাতিক মানের উৎকর্ষ কেন্দ্র স্থাপনের জন্য ২০০৩ সালে ভারত-মার্কিন যৌথ ঘোষণাপত্র স্বাক্ষরিত হয়েছিল। এই ঘোষণাপত্রের মেয়াদ প্রথমে বাড়িয়ে ২০০৮ এবং তারপর তা আরও বাড়িয়ে ২০১৭ সাল পর্যন্ত করা হয়। এখন এই ঘোষণাপত্রটির সমঝোতাপত্র হিসাবে নবীকরণ করা হয়েছে।

 

CG/BD/SB



(Release ID: 1804458) Visitor Counter : 182