উপ-রাষ্ট্রপতিরসচিবালয়
azadi ka amrit mahotsav

মাতৃভাষা রক্ষার আন্দোলনকে জন আন্দোলনে পরিণত করতে হবে – উপরাষ্ট্রপতি

আমাদের ভাষাগুলি হল সেই অদৃশ্য বুনন, যা অতীতকে বর্তমানের সঙ্গে সংযুক্ত করে – উপরাষ্ট্রপতি

শ্রী নাইডু ‘আঞ্চলিক ভাষা’র পরিবর্তে ‘ভারতীয় ভাষা’ শব্দবন্ধ ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছেন

কারিগরি পাঠ্যসূচিগুলি ভারতীয় ভাষায় পড়ানোর প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দিয়েছেন উপরাষ্ট্রপতি

উপরাষ্ট্রপতি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন

Posted On: 22 FEB 2022 1:23PM by PIB Kolkata

নতুন দিল্লি, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২২

 

উপরাষ্ট্রপতি শ্রী এম. ভেঙ্কাইয়া নাইডু বলেছেন, ভাষা হল মানুষকে একত্রিত করার এক মৌলিক বন্ধন। মাতৃভাষা রক্ষা ও সংরক্ষণের অভিযানকে এদেশে জন আন্দোলনে পরিণত করতে হবে। মাতৃভাষা হারিয়ে গেলে আমাদের নিজস্ব কোনো পরিচয়ই থাকবে না। 

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে কেন্দ্রীয় ভূ-বিজ্ঞান মন্ত্রকের এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে চেন্নাই থেকে যোগ দিয়ে উপরাষ্ট্রপতি বলেন, সময়ের পরিবর্তিত চাহিদার সঙ্গে সাযুজ্য রেখে ভাষাগুলিরও পরিবর্তন প্রয়োজন। ভাষা যাতে তরুণতর প্রজন্মের কাছেও একইরকম প্রাসঙ্গিক থাকে সেজন্য উদ্ভাবনী ও সৃজনশীল পন্থা-পদ্ধতি খোঁজা দরকার। শিশুরা যাতে তাদের কাজকর্ম ও খেলাধুলোর মাধ্যমে ভাষার সূক্ষ্মতা শিখতে উৎসাহিত হয় সেদিকে জোর দেওয়া উচিত বলে মত প্রকাশ করেন তিনি। ভারতীয় ভাষাগুলিতে বৈজ্ঞানিক ও কারিগরি পরিভাষা উন্নত করে তোলার উপরেও জোর দেন উপরাষ্ট্রপতি। 

ভাষাগুলিকে আমাদের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের বাহক হিসেবে বর্ণনা করে শ্রী নাইডু বলেন, ভাষা হল সেই অদৃশ্য বুনন, যা অতীতকে বর্তমানের সঙ্গে সংযুক্ত করে। তিনি বলেন, হাজার হাজার বছর ধরে আমরা যা সংগ্রহ করেছি, আমাদের ভাষাগুলি সেইসব জ্ঞান ও প্রজ্ঞার সম্মিলিত ভাণ্ডার।

ভারতে শত শত বছর ধরে অসংখ্য ভাষা পাশাপাশি বিকশিত হয়েছে বলে উল্লেখ করে উপরাষ্ট্রপতি সেগুলির পৃথক অস্তিত্ব ও সমমর্যাদা সুনিশ্চিত করার কথা বলেন। এজন্য ‘আঞ্চলিক ভাষা’র পরিবর্তে ভাষাগুলিকে ‘ভারতীয় ভাষা’ হিসেবে উল্লেখ করার পরামর্শ দেন তিনি। তিনি বলেন, এই ভারতীয় ভাষাগুলি আমাদের দীর্ঘকালের লালিত মূল্যবোধের প্রতীক – বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্য। 

ভারতকে শত শত ভাষা এবং হাজার হাজার উপভাষার ধাত্রীভূমি হিসেবে উল্লেখ করে উপরাষ্ট্রপতি বলেন, ভাষাগত এই সমৃদ্ধিই আমাদের সৃজনশীলতা ও অভিব্যক্তির চাবিকাঠি। নতুন জাতীয় শিক্ষানীতি স্কুল ও কলেজ স্তরে মাতৃভাষার ব্যবহারকে উৎসাহিত করায় সন্তোষপ্রকাশ করে উপরাষ্ট্রপতি বলেন, এই শিক্ষানীতি একটি সার্বিক, সর্বাত্মক ও মূল্যবোধভিত্তিক দৃষ্টিভঙ্গী নিয়ে আমাদের শিক্ষাব্যবস্থার ভারতীয়করণের প্রয়াস চালিয়েছে। এই প্রয়াসের প্রশংসা করে তিনি রাজ্যগুলিকে নতুন জাতীয় শিক্ষা নীতি অবিলম্বে রূপায়ণ করার আহ্বান জানান।

শিক্ষাকে প্রকৃত অর্থে অন্তর্ভুক্তিমূলক করে তুলতে এবং আমাদের যুব শক্তির সম্ভাবনার পূর্ণ সদব্যবহার করতে উপরাষ্ট্রপতি কারিগরি পাঠ্যসূচিগুলি ভারতীয় ভাষায় পড়ানোর প্রয়োজনীয়তার কথা বলেন। জাপান, ফ্রান্স ও জার্মানির মত কয়েকটি উন্নত দেশের উদাহরণ তুলে ধরে তিনি বলেন, এইসব দেশগুলিতে মাতৃভাষায় শিক্ষা দেওয়া হয়। মাতৃভাষার সংরক্ষণ ও প্রসারের জন্য তিনি এইসব দেশের নীতি ও কৌশল থেকে শিক্ষা নেওয়ার পরামর্শ দেন। 

জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ভারতীয় ভাষার প্রয়োগে সক্রিয় উদ্যোগ নিতে রাজ্য সরকারগুলির প্রতি আহ্বান জানান শ্রী নাইডু। তিনি বলেন, সব রাজ্যেরই উচিত শিক্ষার মাধ্যম এবং প্রশাসনিক ভাষা হিসেবে মাতৃভাষার ব্যবহারে সচেষ্ট হওয়া। 

গণতন্ত্রে শাসন ব্যবস্থায় সাধারণ মানুষের অংশগ্রহণের গুরুত্বের উপর জোর দিয়ে শ্রী নাইডু বলেন, একমাত্র মাতৃভাষা ব্যবহারের মধ্য দিয়েই এই লক্ষ্য অর্জন করা যেতে পারে। সাধারণ মানুষ যাতে বিচার বিভাগীয় প্রক্রিয়া আরও ভালোভাবে বুঝতে পারেন সেজন্য আদালতের কাজকর্মও ভারতীয় ভাষায় হওয়া উচিত বলে মত প্রকাশ করেন তিনি। 

উপরাষ্ট্রপতি বলেন, ঔপনিবেশিক শাসন আমাদের ভাষার ক্ষতি করেছে। স্বাধীনতার পরেও আমরা আমাদের ভাষাগুলির প্রতি যথেষ্ট সুবিচার করিনি। মাতৃভাষার ব্যবহারে সচেষ্ট না হওয়া আমাদের খুব বড় ভুল। আমাদের উচিত ছিল ঔপনিবেশিক শাসন অবসানের পরে মাতৃভাষা এবং ভারতীয় ভাষাগুলিকে জীবনের সর্বক্ষেত্রে প্রয়োগ করা। উপরাষ্ট্রপতি বলেন, একজন ব্যক্তির উচিত যত বেশি সম্ভব ভাষা শেখা, কিন্তু সেজন্য সবার আগে তার মাতৃভাষার ভিত মজবুত হতে হবে। মাতৃভাষাকে চাকরি ও জীবিকার সঙ্গে সংযুক্ত করার প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দেন তিনি।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে কেন্দ্রীয় ভূ-বিজ্ঞান মন্ত্রক এই ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল। কেন্দ্রীয় ভূ-বিজ্ঞান মন্ত্রী ডঃ জিতেন্দ্র সিং, ভূ-বিজ্ঞান মন্ত্রকের সচিব ডঃ এম. রবিচন্দ্রন, ওয়ার্ধার মহাত্মা গান্ধী অন্তঃরাষ্ট্রীয় হিন্দি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য প্রফেসর ডঃ গিরিশ্বর মিশ্র, ভূ-বিজ্ঞান মন্ত্রকের যুগ্ম সচিব ইন্দিরা মূর্তি প্রমুখ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। 

 

CG/SD/SKD/



(Release ID: 1800319) Visitor Counter : 85