রেলমন্ত্রক

উত্তর-পূর্বে রেলপথে বিদ্যুতায়নে গতি পেয়েছে

Posted On: 03 NOV 2021 1:46PM by PIB Kolkata
নয়াদিল্লি, ০৩ নভেম্বর, ২০২১
 
 
আসামের গুয়াহাটি উত্তর-পূর্বে বৃহত্তম ও ব্যস্ততম রেল স্টেশন। এই রেল স্টেশনটিকে অলটারনেটিং কারেন্ট বা এসি বৈদ্যুতিক ট্রাকশনের সঙ্গে যুক্ত করার জন্য কমিশন অফ রেলওয়ে সেফটি (সিআরএস) থেকে ছাড়পত্র পাওয়া গেছে। এর ফলে, উত্তর-পূর্বের এই বৃহত্তম রেল স্টেশনটি এখন ২৫ কেভি এসি ট্রাকশনের মাধ্যমে সমস্ত মেট্রো ও অন্যান্য বড় শহরের সঙ্গে আক্ষরিক অর্থে সংযুক্ত হয়েছে। উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেল কাটিহার থেকে গুয়াহাটি পর্যন্ত ৬৪৯ কিলোমিটার দীর্ঘ রেলপথে বিদ্যুতায়নের কাজ সম্পূর্ণ করেছে। সবুজ পরিবহণ ক্ষেত্রের ওপর বিশেষ জোর দেওয়া হয়েছে।
 
গুয়াহাটি স্টেশনে বিদ্যুতায়নের কাজ শেষ হওয়ার ফলে রাজধানী এক্সপ্রেস, তেজস রাজধানীর মতো একাধিক গুরুত্বপূর্ণ ট্রেন এখন গুয়াহাটি থেকে দিল্লি, মুম্বাই, চেন্নাই, কলকাতা ইত্যাদি শহরের মধ্যে বৈদ্যুতিক ট্রাকশনের মাধ্যমে চলাচল করতে পারবে। এতে উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলির মধ্যে আরও নিবিড় যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে উঠবে। এই বিদ্যুতায়নের কাজ সম্পূর্ণ হওয়ায় রেল চলাচলে ব্যবহৃত জ্বালানী হিসাবে তেলের জন্য যে অর্থ ব্যয় হ’ত, তা সাশ্রয় হবে। এতে একদিকে যেমন কার্বন নিঃসরণ পরিমাণ কমবে, তেমনই সবুজ পরিবহণ ব্যবস্থাপনায় গতি আসবে। পাশাপাশি, উচ্চ গতিতে যাত্রীবাহী ট্রেন ও ভারী পণ্যবাহী ট্রেন চালানো সম্ভব হবে। এমনকি, নিউ জলপাইগুড়ি ও নিউ কোচবিহারে রেলপথে ট্রাকশন পরিবর্তনের কোনও প্রয়োজন হবে না। কাটিহার থেকে গুয়াহাটির মধ্যে যাত্রাপথের সময় দু’ঘণ্টা কমে যাবে। রেলপথে বিদ্যুতায়নে গতি লাভ করায় পেট্রো পণ্যের ওপর নির্ভরতা কমবে।এছাড়াও বৈদ্যুতিক ট্রাকশনের জন্য গ্রিন হাউস গ্যাস নির্গমন কম হওয়ায় পরিবেশ সুরক্ষিত হবে। 
 
 
CG/SS/SB


(Release ID: 1769625) Visitor Counter : 176