শিল্পওবাণিজ্যমন্ত্রক
azadi ka amrit mahotsav

শিল্প পার্ক ক্রমতালিকা প্রতিবেদনে ৪১টি শিল্প পার্ক’কে অগ্রণী হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে

Posted On: 05 OCT 2021 4:54PM by PIB Kolkata

নতুন দিল্লি,  ০৫ অক্টোবর, ২০২১

 

ডিপার্টমেন্ট ফর প্রমোশন অফ ইন্ডাস্ট্রি অ্যান্ড ইন্টার্নাল ট্রেড (ডিপিআইআইটি) আজ শিল্প পার্ক ক্রমতালিকা ব্যবস্থাপনা বিষয়ক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এই প্রতিবেদনে ৪১টি শিল্প পার্ককে দেশের অগ্রণী হিসেবে তুলে ধরা হয়েছে। ৯০টি শিল্প পার্ককে বিনিয়োগে আহ্বানকারী বিভাগের আওতায় স্থান দেওয়া হয়েছে। এমনকি ১৮৫টি শিল্প পার্ককে সম্ভাবনাময় শিল্প পার্কের আওতায় রাখা হয়েছে। বর্তমান মাপকাঠি এবং পরিকাঠামোগত সুবিধা সহ একাধিক বিষয়ের ওপর ভিত্তি করে এই মূল্যায়ণ নির্ধারণ করা হয়েছে। 

কেন্দ্রীয় বাণিজ্য ও শিল্প প্রতিমন্ত্রী শ্রী সোম প্রকাশ আজ দ্বিতীয় পর্যায়ের এই প্রতিবেদন প্রকাশ করেছেন। অনুষ্ঠানের ভাষণে শ্রী প্রকাশ জানান, এই প্রতিবেদন দেশে শিল্প ক্ষেত্রে প্রতিযোগিতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করবে এবং বিনিয়োগের ক্ষেত্রে আরও আকর্ষণ বাড়িয়ে তুলবে। কোভিড-১৯ মহামারী চলাকালীন সরকার শিল্প ক্ষেত্রে বিনিয়োগ বৃদ্ধিতে এবং সহজে ব্যবসার সুযোগ সুবিধার মাধ্যমে ভারতকে অন্যতম অগ্রণী বিনিয়োগের গন্তব্য স্থল হিসেবে গড়ে তুলতে নিরন্তর প্রয়াস চালিয়ে গেছে। তিনি বলেন, এই পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে দেশের শিল্প ক্ষেত্রে অগ্রগতির পথ সুনিশ্চিত হবে। কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী জানান, দেশে ৪ হাজার ৪০০টিরও বেশি শিল্প পার্ক রয়েছে। এই শিল্প পার্কগুলিকে বিনিয়োগকারীদের কাছে আকর্ষণীয় করে তুলতে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, ২০২১ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে দেশজুড়ে শিল্প পার্কগুলির বিভিন্ন তথ্য পোর্টালে তুলে ধরা সম্ভব হবে। এতে বিনিয়োগকারীরা উপযুক্ত বিনিয়োগের স্থান নির্বাচন করতে পারবেন। 

শ্রী সোম প্রকাশ জানান, কেন্দ্রীয় মন্ত্রক/ দপ্তর দেশে শিল্প ক্ষেত্রের বিকাশে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ নিয়েছে। সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা সহজ এবং ব্যবসার অগ্রগতি সুনিশ্চিত করার জন্য একাধিক অপ্রয়োজনীয় নিয়মকানুন বাতিল করা হয়েছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে দেশ কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে সফলভাবে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে। শিল্পের উন্নয়ন এবং রপ্তানি বৃদ্ধির জন্য সরকারের পক্ষ থেকে একাধিক উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এক জেলা এক পণ্য, উৎপাদন সংযুক্ত উৎসাহ ভাতা প্রকল্প এবং জাতীয় এক জানলা ব্যবস্থাপনার মতো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। কোভিড সত্ত্বেও দেশের আর্থিক অগ্রগতি ক্রমশই বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী জানান, ২০২১-২২ অর্থ বর্ষের প্রথম ত্রৈমাসিকে দেশের জিডিপি ২০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এমনকি গত বছরের আগস্ট মাসের তুলনায় এবছরের আগস্ট মাসে রপ্তানির পরিমাণ ৪৫.১৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ৩৩.১৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে পৌঁছেছে। কয়েক সপ্তাহ আগে ভারত বিশ্ব উদ্ভাবনী সূচক তালিকায় ৩৫ তম স্থানে উঠে এসেছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী আরও জানান, উৎপাদন ক্ষেত্রে দেশ এক নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছে। এই প্রতিবেদন আত্মনির্ভর ভারতেরই অঙ্গ বলে উল্লেখ করেন তিনি। ভারতীয় শিল্প সংক্রান্ত জমি ব্যাঙ্ক-এর মাধ্যমে ৫.৬ লক্ষ হেক্টরেরও বেশি জমির তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। ২০২৫ সালের মধ্যে দেশের অর্থনীতিকে ৫ লক্ষ কোটি মার্কিন ডলারে পরিণত করার লক্ষ্যে সরকার নিরন্তর প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে দেশে ৫১টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হয়েছে বলেও তিনি জানান। 

 

CG/SS/SKD/



(Release ID: 1761460) Visitor Counter : 104