কৃষিমন্ত্রক

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র সিং তোমর শস্য বীমা সপ্তাহের সূচনা করেছেন

Posted On: 01 JUL 2021 3:56PM by PIB Kolkata

নতুন দিল্লি,  ০১ জুলাই, ২০২১

 

কেন্দ্রীয় কৃষি ও কৃষক কল্যাণ মন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র সিং তোমর ভারতের স্বাধীনতার ৭৫ তম বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে ‘আজাদিকা অমৃত মহোৎসব’-এর অঙ্গ হিসেবে শস্য বীমা সপ্তাহে ফসল বীমা যোজনার জন্য শস্য বীমা সচেতনতা অভিযানের সূচনা করেছেন। অভিযানের সূচনা করে শ্রী তোমর বলেন, ফসল বীমা যোজনার উদ্দেশ্য হল প্রত্যেক কৃষককে সুরক্ষা প্রদান করা। তিনি আরও জানান, এই কর্মসূচিতে কৃষকদের ৯৫ হাজার কোটি টাকার দাবিদাওয়া মিটিয়ে এক অনন্য মাইল ফলক অর্জিত হয়েছে।

শ্রী তোমর আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী ফসল বীমা যোজনার রূপায়নে রাজ্য সরকার ও বীমা সংস্থাগুলির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। এক পরিসংখ্যান দিয়ে তিনি জানান, গত চার বছরে কৃষকরা ১৭ হাজার কোটি টাকার প্রিমিয়াম জমা দিয়েছেন। একইভাবে কৃষকদের বীমা বাবদ দাবিদাওয়া খাতে ৯৫ হাজার কোটি টাকার বেশি মেটানো হয়েছে। এই কর্মসূচির আরও সম্প্রসারণের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিয়ে শ্রী তোমর বলেন, অধিক সংখ্যক কৃষকের কাছে বীমার সুযোগ সুবিধা পৌঁছে দেওয়াই সরকারের উদ্দেশ্য। এই উপলক্ষে কৃষিমন্ত্রী শস্য বীমা সপ্তাহ চলাকালীন কৃষকদের আরও বেশি সচেতন করে তুলতে ই-পুস্তিকা, বিভিন্ন জিজ্ঞাস্য বিষয় সম্পর্কে ছোট পুস্তিকা এবং কৃষকদের সাহায্য করতে গাইড বুক প্রকাশ করেন। 

শস্য বীমা সপ্তাহ জুড়ে ২০২১ খরিফ মরশুমের আওতায় সমস্ত চিহ্নিত জেলায় বিশেষ অভিযান চালানো হবে। এই অভিযানে মন্ত্রকের চিহ্নিত ৭৫টি উন্নয়নে আগ্রহী/আদিবাসী অধ্যুষিত জেলার ওপর বিশেষ আগ্রাধিকার দেওয়া হবে।

শস্য বীমা সপ্তাহের অঙ্গ হিসেবে যেসমস্ত জায়গায় বা জেলায় সচেতনতামূলক অভিযানের আয়োজন করা হবে সেখানে যাবতীয় কোভিড-১৯ বিধি মেনে চলার বিষয়টিও সুনিশ্চিত করা হচ্ছে। এই প্রেক্ষিতে শ্রী তোমর চিহ্নিত ৭৫টি উন্নয়নে আগ্রহী/আদিবাসী অধ্যুষিত জেলায় কৃষকদের আরও বেশি সচেতন করে তুলতে সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকারগুলির প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন। তিনি কৃষকদের সচেতন হয়ে শস্য বীমার সুযোগ সুবিধা গ্রহণেও পরামর্শ দিয়েছেন। আত্মনির্ভর কৃষক সমাজ গঠনে এই উদ্যোগগুলি জটিল এই সময়ে বড় ভূমিকা নেবে বলেও কৃষি মন্ত্রী অভিমত প্রকাশ করেন।

উল্লেখ করা যেতে পারে, দেশে কৃষকদের আর্থিক নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর সুদক্ষ নেতৃত্বে ২০১৬-তে ফসল বীমার যোজনার সূচনা হয়। এখনও পর্যন্ত এই কর্মসূচিতে সামিল হওয়ার জন্য ২৯ কোটি ১৬ লক্ষের বেশি কৃষকের আবেদন মঞ্জুর হয়েছে। এমনকি গত ৫ বছরে ৮ কোটি ৩০ লক্ষের বেশি কৃষক লাভবান হয়েছেন। ফসল বীমা যোজনার প্রিমিয়াম বাবদ কৃষকদের জমা দেওয়া ২০ হাজার কোটি টাকার পরিবর্তে তাদের দাবিদাওয়া খাতে ৯৫ হাজার কোটি টাকা মেটানো হয়েছে। 

আজকের এই অনুষ্ঠানে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী শ্রী পুরুষত্তোম রুপালা, শ্রী কৈলাশ চৌধুরী, কৃষি দপ্তরের সচিব শ্রী সঞ্জয় আগরওয়াল সহ মন্ত্রকের উচ্চ পদস্থ আধিকারিকরা ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে অংশ নেন।

 

CG/BD/SKD/



(Release ID: 1732091) Visitor Counter : 148