স্বাস্থ্যওপরিবারকল্যাণমন্ত্রক

শ্বাস টেনে তা ধরে রাখুন, আপনার ফুসফুস শক্তিশালী হবে বেশিক্ষণ শ্বাস আটকে রাখতে না পারলে তা উদ্বেগের বিষয়

Posted On: 19 MAY 2021 12:52PM by PIB Kolkata

মুম্বাই, ১৮  মে, ২০২১

 

কোভিড-১৯ মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউ সহায়ক অক্সিজেনের চাহিদা বাড়িয়ে দিয়েছে। নীতি আয়োগের স্বাস্থ্য বিভাগের সদস্য ডঃ ভি কে পাল মনে করেন এই দ্বিতীয় ঢেউয়ে শ্বাসকষ্ট একটি সাধারণ লক্ষণ। এর মাধ্যমে অক্সিজেনের চাহিদার প্রয়োজন বোঝা যায়। 

মেদান্ত গোষ্ঠীর ইন্সটিটিউট অফ চেস্ট সার্জারির ডঃ অরবিন্দ কুমার জানিয়েছেন ৯০ শতাংশ কোভিড রোগীর ফুসফুস সংক্রান্ত সমস্যা হয়েই থাকে। ১০-১২ শতাংশ সংক্রমিতের নিউমোনিয়া হয়। অ্যালভেউলির লক্ষণ দেখা যায় খুব কম সংক্রমিতের। এদের মধ্যে কম সংখ্যক রোগীরই অক্সিজেনের প্রয়োজন হয়। রোগির সহায়ক অক্সিজেনের প্রয়োজন কমাতে শ্বাস আটকে রেখে ব্যায়াম করার পদ্ধতির চর্চা করা যেতে পারে।

কিভাবে শ্বাস আটকে রাখার ব্যায়াম সাহায্য করতে পারে?

ডঃ অরবিন্দ বলেছেন যেসব রোগীর হাল্কা উপসর্গ দেখা দেয় তাদের ক্ষেত্রে এই ব্যায়াম সহায়ক হতে পারে। এইসব সংক্রমিতরা যদি এই ব্যায়ামটি করেন তাহলে তাদের সহায়ক অক্সিজেনের প্রয়োজন হয়না। তবে যদি দেখা যায় কেউ দীর্ঘক্ষণ শ্বাস আটকে রাখতে পারছেন না তাহলে তাদের চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করা উচিত। অন্যদিকে যদি কোনো রোগী শ্বাস আটকে রাখার সময় বাড়াতে পারেন তাহলে সেটি সুস্বাস্থ্যের নিদর্শন। যাঁরা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন এবং এখন বাড়ি ফিরেছেন তাঁরা চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে এই ব্যায়ামটি করতে পারেন।

কিভাবে ব্যায়ামটি করতে হবে:-

সোজা হয়ে বসুন, আপনার হাত দুটি থাইয়ের ওপর রাখুন

মুখ খুলে যতটা সম্ভব বাতাস টেনে নিন

ঠোঁট চেপে রাখুন

যতক্ষণ সম্ভব ততক্ষণ শ্বাসটা শরীরের মধ্যে রেখে দিন।

আপনি কতক্ষণ ধরে এটি আটকে রাখতে পারেন তার ওপর আপনার ফুসফুসের সুস্বাস্থ্যের দিকটি নিশ্চিত হয়।

যে কেউ এটি প্রথমে ঘন্টা খানেক ধরে পরে আরো বেশি সময় ধরে এই ব্যায়াক করতে পারেন। যাঁরা ২৫ সেকেন্ড শ্বাস আটকে রাখতে পারেন তাদের কোনো সমস্যা নেই। তবে খুব জোর করে এই ব্যায়াম করবেন না।

সংক্রমণের দ্রুত শনাক্তকরণের প্রয়োজনীয়তা:- 

আমরা জানি কোভিড-১৯ আমাদের ফুসফুসে সমস্যা তৈরি করে। এর ফলে শ্বাসকষ্ট হয় এবং শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা কমে যায়। 

ডঃ অরবিন্দ বলেছেন, কোভিডের প্রথম ঢেউয়ে জ্বর এবং কাশি খুব সাধারণ উপসর্গ ছিল। দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময় উপসর্গের লক্ষণগুলি হল : গলা ব্যাথা, নাক দিয়ে জল পরা, চোখ লাল হওয়া, মাথা ব্যাথা, সারা শরীর ব্যাথা, গায়ে গোটা বেরোন, ঝিমুনি ভাব, বমি এবং ডাইরিয়া। রোগীর এই সমস্যাগুলি ৫-৬ দিন হতে পারে আর তখনই ফুসফুসের ওপর বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা যায়। বয়স, ওজন, ফুসফুসের অবস্থা, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ, এইচআইভি সংক্রমিতদের কোভিড-১৯ আক্রান্ত হলে তার পরিণতি ভয়ানক হতে পারে।   


CG/CB /NS



(Release ID: 1719989) Visitor Counter : 90639