PIB Headquarters

কোভিন-১৯ সংক্রান্ত পিআইবি’র সংবাদ

Posted On: 07 APR 2021 5:37PM by PIB Kolkata
নতুন দিল্লি, ০৭ এপ্রিল, ২০২১

 

দেশে ৮.৭ কোটিরও বেশি টিকাকরণ, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৩ লক্ষেরও বেশি টিকার ডোজ দেওয়া হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে পেছনে ফেলে টিকাকরণের দিক থেকে ভারত বিশ্বে দ্রুততম হয়ে উঠেছে ৮টি রাজ্যে দৈনিক করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা লাগাতার বাড়ছে দেশে কোভিড-১৯ আক্রান্তের সংখ্যায় বৃদ্ধির প্রেক্ষিতে রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সমন্বয় বজায় রেখে চলছে কেন্দ্র
দেশে আজ কোভিড টিকাকরণ ৮ কোটি ৭০ লক্ষ ছাড়িয়েছে। আজ সকাল ৭টা পর্যন্ত প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী ৮ কোটি ৭০ লক্ষ ৭৭ হাজার ৪৭৪টি টিকার ডোজ দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ৮৯ লক্ষ ৬৩ হাজার ৭২৪ জন স্বাস্থ্য কর্মী প্রথম ডোজ, ৫৩ লক্ষ ৯৪ হাজার ৯১৩ জন স্বাস্থ্য কর্মী দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন। অন্যদিকে, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অগ্রভাগে থাকা ৯৭ লক্ষ ৩৬ হাজার ৬২৯ জন কর্মী প্রথম ডোজ এবং ৪৩ লক্ষ ১২ হাজার ৮২৬ জন কর্মী দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন। টিকাকরণ অভিযানে সারা দেশে ৬০ বছরের বেশি বয়সী ৩ কোটি ৫৩ লক্ষ ৭৫ হাজার ৯৫৩ জন সুফলভোগীকে প্রথম ডোজ এবং ১০ লক্ষ ৭৮৭ জন সুফলভোগীকে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও, ৪৫ – ৬০ বছর বয়সী ২ কোটি ১৮ লক্ষ ৬০ হাজার ৭০৯ জন সুফলভোগী প্রথম ডোজ এবং ৪ লক্ষ ৩১ হাজার ৯৩৩ জন সুফলভোগী দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৩ লক্ষেরও বেশি টিকার ডোজ দেওয়া হয়েছে। টিকাকরণ অভিযানের ৮১তম দিনে (৬ এপ্রিল) ৩৩ লক্ষ ৩৭ হাজার ৬০১টি টিকার ডোজ দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ৩০ লক্ষ ৮ হাজার ৮৭ জন সুফলভোগী প্রথম ডোজ এবং ৩ লক্ষ ২৯ হাজার ৫১৪ জন সুফলভোগী দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন। টিকাকরণ অভিযানে এক তাৎপর্যপূর্ণ সাফল্য হিসাবে ভারত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে ছাপিয়ে গিয়ে দ্রুততার সঙ্গে টিকাকরণের দিক থেকে প্রথম দেশ হয়ে উঠেছে। ভারতে দৈনিক টিকাকরণের হার ৩০ লক্ষ ৯৩ হাজার ৮৬১। দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ১ লক্ষ ১৫ হাজার ৭৩৬ জন নতুন করে আক্রান্ত হওয়ায় সংক্রমিতের সংখ্যা লাগাতার বাড়ছে। ৮টি রাজ্যে – মহারাষ্ট্র, ছত্তিশগড়, কর্ণাটক, উত্তর প্রদেশ, দিল্লি, মধ্যপ্রদেশ, তামিলনাডু এবং কেরলে সম্মিলিতভাবে আক্রান্তের হার ৮০.৭০ শতাংশ। মহারাষ্ট্রে একদিনেই আক্রান্তের সংখ্যা ৫৫ হাজার ৪৬৯। ছত্তিশগড়ে আক্রান্ত হয়েছেন ৯ হাজার ৯২১ জন। অন্যদিকে, কর্ণাটকে আক্রান্তের সংখ্যা ৬ হাজার ১৫০। উপরোক্ত ৮টি রাজ্য বাদে হরিয়ানা, রাজস্থান, গুজরাট এবং পাঞ্জাবেও দৈনিক আক্রান্তের হার ঊর্ধ্বমুখী। দেশে সুস্পষ্টভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৮ লক্ষ ৪৩ হাজার ৪৭৩, যা মোট আক্রান্তের ৬.৫৯ শতাংশ। অবশ্য, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্পষ্টভাবে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৫৫ হাজার ২৫০টি কমেছে। মহারাষ্ট্র, ছত্তিশগড়, কর্ণাটক, কেরল এবং উত্তর প্রদেশে সম্মিলিতভাবে আক্রান্তের হার ৭৪.৫ শতাংশ। এর মধ্যে কেবল মহারাষ্ট্রেই আক্রান্তের হার ৫৬.১৭ শতাংশ।
বিস্তারিত জানার জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1710027 এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।
বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসে প্রধানমন্ত্রীর বার্তা
প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস উপলক্ষ্যে বার্তা। “জনসাধারণ যাতে আয়ত্তের মধ্যে উন্নতমানের চিকিৎসা পরিষেবা পান, তার জন্য কেন্দ্র আয়ুষ্মান ভারত, পিএম জন ঔষধি যোজনার মত নানা উদ্যোগ নিয়েছে। কোভিড-১৯ মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াই-এ ভারত বিশ্বের বৃহত্তম টিকাকরণ অভিযান শুরু করেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসে আসুন আমরা মাস্ক পরা, নিয়মিত হাত ধোয়া এবং অন্যান্য নিয়ম মেনে কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে লড়াই করি। একই সঙ্গে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে এবং সুস্থ থাকতে আমাদের সম্ভাব্য সব রকমের উদ্যোগ নিতে হবে। যারা আমাদের সুস্বাস্থ্যর জন্য দিন রাত ধরে কাজ করছেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস হল তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানোর দিন। এই দিনে স্বাস্থ্য পরিষেবার জন্য গবেষণা ও উদ্ভাবনকে সাহায্য করার অঙ্গীকারও আমাদের করতে হবে।”
বিস্তারিত জানার জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1709995 এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।
১১টি রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ক্রমবর্ধমান কোভিড-১৯ সংক্রমণ বাড়ায় সংশ্লিষ্ট রাজ্যের পরিস্থিতি এবং টিকাকরণ অগ্রগতি বিষয় নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী ডাঃ হর্ষ বর্ধনের পর্যালোচনা বৈঠক
ছত্তিশগড়, দিল্লি, গুজরাট, হরিয়ানা, হিমাচল প্রদেশ, ঝাড়খণ্ড, কর্ণাটক, মধ্য প্রদেশ, মহারাষ্ট্র, পাঞ্জাব এবং রাজস্থান – এই ১১টি রাজ্যে কোভিড-১৯ পরিস্থিতি এবং টিকাকরণের অগ্রগতির বিষয় নিয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এক উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করেছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী ডাঃ হর্ষ বর্ধন। সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলিতে দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা ক্রমশই বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত দু-সপ্তাহে এই রাজ্যগুলিতে কোভিড-১৯ এর জেরে একাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এদিনের বৈঠকে সংশ্লিষ্ট রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের স্বাস্থ্য মন্ত্রী, অতিরিক্তম মুখ্যসচিব এবং স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রধান সচিবরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রী গুজরাট, হিমাচল প্রদেশ, ছত্তিশগড় এবং মহারাষ্ট্রে গত চার সপ্তাহে পরীক্ষার সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার জন্য উচ্ছ্বসিত প্রশংসা ব্যক্ত করেন. পাশাপাশি তিনি সংশ্লিষ্ট সমস্ত রাজ্যগুলিকে কোভিড-১৯ মোকাবিলায় সরকারি এবং বেসরকারি স্বাস্থ্য পরিষেবা সংস্থাগুলিকে শক্তিশালী করে তোলার পরামর্শ দেন।
বিস্তারিত জানার জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1709966 এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।
বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস উপলক্ষে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থায় ডঃ হর্ষবর্ধনের ভাষণ
বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস উপলক্ষে ডঃ হর্ষবর্ধন আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)-র দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া আঞ্চলিক কার্যালয়ে ভাষণ দেন। তিনি বলেন, এবারের বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস সমগ্র বিশ্ববাসীর পক্ষ থেকে এক বছরেরও বেশি সময় ধরে মহামারীর বিরুদ্ধে অদম্য লড়াইকেই সূচিত করে। স্বাভাবিকভাবেই এবারের স্বাস্থ্য দিবসের মূল ভাবনা প্রত্যেকের জন্য এক স্বাস্থ্যকর ও অনুকূল বিশ্ব গড়ে তোলা। তাই, আমাদের সকলের সমবেত দায়িত্ব হ’ল নীতি-পরিকল্পনা ও কর্মসূচিগুলি রূপায়ণে উদ্যোগী হওয়া।
বিস্তারিত জানার জন্য https://pib.gov.in/PressReleseDetail.aspx?PRID=1710023 এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।
'দাওয়াই ভি, কড়াই ভি'- এই বার্তা প্রচার করতে বেসরকারি টিভি চ্যানেল গুলিকে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের পরামর্শ
সারা দেশজুড়ে করোনা ভাইরাসের দাপট বাড়তে থাকায় কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক সমস্ত বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের জন্য আজ একটি নির্দেশিকা জারি করেছে।
বিস্তারিত জানার জন্য https://pib.gov.in/PressReleasePage.aspx?PRID=1709899 এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।
পিআইবি-র আঞ্চলিক কার্যালয় থেকে প্রাপ্ত তথ্য
•	মহারাষ্ট্র : মহারাষ্ট্র সরকার নবম এবং একাদশ শ্রেণীর সমস্ত ছাত্র-ছাত্রীদের কোনোরকম পরীক্ষা নেওয়া ছাড়াই পাশ করানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর আগে মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে রাজ্যে প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত সমস্ত ছাত্র-ছাত্রীদের কোনোরকম পরীক্ষা ছাড়াই পাশ করানোর কথা ঘোষণা করেছিলেন। যদিও রাজ্য সরকার দশম ও দ্বাদশ শ্রেণীর বোর্ড পরীক্ষা অফ লাইনে হবে বলে ঘোষণা করেছে। তবে এই পরীক্ষার সূচি খুব শীঘ্রই প্রকাশ করা হবে। মহারাষ্ট্র সরকার পর্যাপ্ত পরিমাণে করোনা টিকার ডোজ সরবরাহের জন্য কেন্দ্রের কাছে আর্জি জানিয়েছে। 
•	গুজরাট : রাজ্যে উদ্বেগজনক করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে সরকার ৮টি পুরনিগম এবং ২০টি শহরে রাত ৮টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত নৈশ কারফিউ জারি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই জায়গাগুলিতে আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত এই নিয়ম বলবৎ থাকবে। রাজ্যে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ১৭,৩৪৮। এপর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৪,৫৯৮ জনের। 
•	মধ্য প্রদেশ : মধ্য প্রদেশ সরকার জেলা হাসপাতালগুলির অর্ধেক বেড করোনা রোগীদের জন্য সংরক্ষিত করে রাখার নির্দেশ জারি করেছে। এমনকি প্রতিটি জেলা হাসপাতালে ৩০টি আইসিইউ বেডের ব্যবস্থা করতে বলা হয়েছে। 
•	রাজস্থান : মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট রাজ্যের ১৮ বছরের বেশি বয়সী মানুষের টিকাকরণ শুরু করার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি লিখেছেন। কোভিড রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তরকে যে কোনোরকম পরিস্থিতির মোকাবিলা করার জন্য প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে। এমনকি পূর্বের মতো বেসরকারি হাসপাতালে ১০ শতাংশ বেড কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসার জন্য সংরক্ষিত করে রাখতে বলা হয়েছে। রাজ্যে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা বেড়ে এখন ১৬,১৪০-এ পৌঁছেছে। 
•	কেরালা : কোভিড সংক্রমণের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় কেন্দ্রীয় সরকার সংশ্লিষ্ট রাজ্যকে আরটিপিসিআর পরীক্ষার পরিমাণ বৃদ্ধি করতে বলেছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য সচিব রাজেশ ভূষণ কেরালায় আরটিপিসিআর পরীক্ষার হার বাড়াতে বলেছেন। মঙ্গলবার নতুন করে ৩,৫০২ জন আক্রান্ত হয়েছেন। 
•	তামিলনাড়ু : মঙ্গলবার এরাজ্যে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ২৫,০০০ ছাড়িয়েছে। নতুন করে ৩,৬৪৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন। আরও ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে কোভিডের জেরে।
•	অন্ধ্র প্রদেশ : ফেব্রুয়ারি মাসে এই রাজ্যে সংক্রমণের হার কিছুটা কমলও পুনরায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। সরকার রাজ্যে থার্মাল স্ক্রিনিং, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ওপর জোর দিয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ১,৯৪১ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। 
•	কর্ণাটক : রাজ্যে একদিনে ৬,১৫০ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। আরও ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই নিয়ে রাজ্যে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১,২৯৭। 
•	তেলেঙ্গানা : একদিনে ১,৯১৪ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। রাজ্যের মুখ্যসচিব সোমেশ কুমারও করোনা আক্রান্ত। রাজ্যে দৈনিক টিকাকরণ ৫০,০০০ থেকে বাড়িয়ে ১,২৫,০০০-এ নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা হয়েছে।
•	আসাম : মঙ্গলবার আরও দুজন ব্যক্তির করোনার জেরে মৃত্যু হয়েছে। একদিনে ৯২ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। এরাজ্যে সরকারি এবং বেসরকারি বিদ্যালয়ে ২০২১-২২ নতুন শিক্ষা বর্ষ শুরু করার পর থেকেই লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েছে করোনা সংক্রমণের হার।
•	মণিপুর : মঙ্গলবার আরও ৭ জন ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এই নিয়ে সেখানে মোট ২৯,৪৩৫ জন করোনা আক্রান্ত হলেন। মণিপুরে ৩১,৭৩৩ জন স্বাস্থ্য কর্মী সহ মোট ৮৮,৬৪২ জনকে টিকা দেওয়া হয়েছে। 
•	সিকিম : গত ২৪ ঘণ্টায় এখানে আরও ২৩ জন নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন। মূলত সিকিমের পূর্ব জেলাতেই নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা সব থেকে বেশি। 
•	ত্রিপুরা : ৯ এবং ১০ এপ্রিল রাজ্যে বিশেষ টিকাকরণ অভিযানের কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। ইতিমধ্যে রাজ্যে ১৬ থেকে ১৮ শাতাংশ মানুষকে টিকা দেওয়া হয়েছে।
•	নাগাল্যান্ড : মঙ্গলবার নতুন করে কোনো ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হননি। এখানে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ১৩৪।

CG/SS/SKD/


(Release ID: 1710288) Visitor Counter : 186