আবাসনএবংশহরাঞ্চলেরদারিদ্র্যদূরীকরণমন্ত্রক

শহরাঞ্চলের স্থানীয় সংস্থা এবং স্মার্ট সিটিগুলিতে সদ্য স্নাতকদের শিক্ষানবিশ হিসাবে যোগদানের সুযোগ সৃষ্টি করতে আর্বান লার্নিং ইন্টার্ণশিপ প্রোগ্রাম(টুলিপ) কর্মসূচী চালু করার উদ্যোগ গ্রহণ


এই কর্মসূচী রূপায়নে কেন্দ্রীয় আবাসন এবং নগর উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রক এবং অল ইন্ডিয়া কাউন্সিল ফর টেকনিকাল এডুকেশনের (এ আই সি টি আই) মধ্যে সমঝোতাপত্র

Posted On: 04 JUN 2020 1:47PM by PIB Kolkata

নতুন দিল্লী, ৪ঠা জুন, ২০২০

 



কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী শ্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশাঙ্ক এবং কেন্দ্রীয় আবাসন ও নগর উন্নয়ন বিষয়ক স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী শ্রী হরদীপ সিং পুরি এবং অল ইন্ডিয়া কাউন্সিল ফর টেকনিকাল এডুকেশন (এ আই সি টি আই) আজ যৌথভাবে দি আর্বান লার্নিং ইন্টার্ণশিপ প্রোগ্রাম (টুলিপ) –এর অনলাইন পোর্টালটি চালু করেছে।


দেশের শহরাঞ্চলের স্থানীয় সংস্থা এবং স্মার্ট সিটিগুলির যে সব বাসিন্দা সদ্য স্নাতক হয়েছেন, তাঁরা যাতে শিক্ষানবিশ হিসাবে  নানা কাজে যোগদানের সুযোগ পান, সেই জন্য আর্বান লার্নিং ইন্টার্ণশিপ প্রোগ্রাম(টুলিপ) চালু করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।


মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের সচিব শ্রী অমিত খারে,আবাসন ও নগরোন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রকের সচিব শ্রী দুর্গা শংকর মিশ্র, এ আই সি টি ইর সভাপতি এবং উভয় দপ্তরের পদস্থ আধিকারিকরা এই পোর্টাল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন। 


টুলিপ কর্মসূচীর মাধ্যমে সদ্য স্নাতকরা শহরাঞ্চলের স্থানীয় সংস্থাগুলিতে বিভিন্ন বিষয়ে হাতে কলমে অভিজ্ঞতা অর্জনের  সুযোগ পাবেন। প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর, যুবশক্তির ওপর দৃঢ় বিশ্বাস রয়েছে। শ্রী মোদি মনে করেন যুবশক্তি শুধুমাত্র দেশের ইতিবাচক পরিবর্তনেই যে সাহায্য করবে, তা নয়,  গোটা বিশ্বে পরিবর্তনের ক্ষেত্রে তাঁরা সহায়ক হবেন। প্রধানমন্ত্রীর দৃঢ় বিশ্বাস,  ভারতের যুবসম্প্রদায়ই  ভবিষ্যতে আমাদের দেশ গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।


স্মার্ট সিটিস মিশন-অগ্রগতির চিত্র: 


ভারতে নগর কেন্দ্রিক ভবিষ্যত গঠনের লক্ষ্যে গত তিন বছর ধরে দ্য স্মার্ট সিটিস মিশনের গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি হয়েছে। আজ পর্যন্ত এই প্রকল্প বাস্তবায়নে ১,৬৫,০০০ কোটি টাকা খরচ হয়েছে। আরও ১,২৪,০০০ কোটি টাকার প্রকল্প রূপায়ণের পথে। ইতিমধ্যেই ২৬,৭০০ কোটি টাকার প্রকল্প রূপায়ণ হয়েছে এবং এই সব প্রকল্পের সুবিধা নাগরিকরা ভোগ করছেন। কোভিড সঙ্কটের মোকাবিলায় স্মার্ট সিটি গুলি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলেছে। ৪৭টি স্মার্ট সিটি তাদের স্মার্ট কন্ট্রোলরুম এবং স্মার্ট কমান্ডের মাধ্যমে এই সঙ্কট মোকাবিলায় কার্যকরী ভূমিকা পালন করছে। স্মার্ট সিটি গুলিতে ইতিমধ্যেই ২,৩০০ কোটি টাকা খরচ করে ১৫১টি স্মার্ট সড়ক নির্মাণ করা হয়েছে। ১৮,৩০০ কোটি টাকার আরও ৩৭৩টি প্রকল্প শেষের পথে। ৩,৭০০ কোটি টাকার ৯১টি সরকারী- বেসরকারী অংশীদারীত্বের প্রকল্পের কাজ শেষ হয়েছে। ২১,৪০০ কোটি টাকার আরও ২০৩টি প্রকল্পের কাজ শীঘ্রই শেষ হবে। স্মার্ট জল প্রকল্পের অধীনে ২,৩০০ কোটি টাকার ৬৭টি কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে পাশাপাশি স্মার্ট সৌরশক্তি প্রকল্পে ২০০ কোটি টাকা খরচ করে সম্পূর্ণ হয়েছে ৪১ টি প্রকল্প। 


"উচ্চাকাঙ্ক্ষী ভারত" প্রকল্পের অধীনে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী শ্রীমতী নির্মলা সীতারমন ২০২০-২১ সালের বাজেট প্রস্তাবনায় এই টুলিপ কর্মসূচীর কথা ঘোষনা করেন। ভারতের বিশাল জনঘনত্বের সুবিধা এই কর্মসূচীর পক্ষে সহায়ক হবে। আগামী বছরগুলিতে বিশ্বের মধ্যে ভারতেই  সবথেকে বেশী কর্মক্ষম জনগণ থাকবে। বর্তমানে ভারতে  প্রচুর কারিগরী স্নাতক রয়েছেন౼ এরা যাতে আন্তর্জাতিক স্তরে প্রকল্প রূপায়ন বা পরিকল্পনা করতে পারে,তারজন্য পেশাগত উন্নয়ন এবং দক্ষতার প্রয়োজন। বর্তমান সমাজে শুধুমাত্র পুঁথিগত শিক্ষা কার্যকরী জ্ঞানের প্রতিফলন ঘটায় না। হাতে কলমে শিক্ষার ও এখন প্রয়োজন।   


টুলিপের মাধ্যমে দেশের স্নাতকদের একাধিক ক্ষেত্র, যেমন নগর পরিকল্পনা,পরিবহন ইঞ্জিনিয়ারিং, পরিবেশ, পৌর বিনিয়োগ ইত্যাদি ক্ষেত্রে আরও দক্ষ করে তোলা সম্ভব হবে। এই প্রকল্পে মাধ্যমে শখরাঞ্চলের স্থানীয় প্রশাসন  এবং স্মার্ট সিটির প্রকল্প গুলি উপকৃত হবে। এর মাধ্যমে সরকার-শিক্ষাজগৎ-শিল্প ও নাগরিক সমাজের মধ্যে মেলবন্ধন ঘটবে।


২০২৫ সালের মধ্যে ১ কোটি সফল শিক্ষানবিশ তৈরির যে লক্ষ্যমাত্রা কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক এবং এ আই সি টি ই গ্রহন করেছে তা পূরণে এই প্রকল্প চালু করা একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। টুলিপ উদ্ভাবন, নিয়োগ, সংকলন, বিকাশ এবং স্বচ্ছতা সহ নানা শক্তিতে বলীয়ান।


আবাসন এবং নগরোন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রক এবং এ আই সি টি ইর মধ্যে একটি ৫ বছরের জন্য সমঝোতা পত্র স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ আই সি টি ই সব রকম প্রযুক্তিগত সাহায্য করবে অন্যদিকে মন্ত্রক  প্রযুক্তি নির্ভর নয়, এমন বিষয়গুলিতে সাহায্য করবে। এই কর্মসূচিকে স্বাভাবিক গতিতে পরিচালনার জন্য একটি নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে౼  যেখানে পরিষ্কার ভাবে এই কর্মসূচীর লক্ষ্য, উদ্দেশ্য, যোগ্যতা, সময়সীমা সহ সবরকম শর্তাবলির উল্লেখ রয়েছে।


কেন্দ্রীয় আবাসন এবং নগরোন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রক এই কর্মসূচীকে রাজ্য সরকার গুলির সঙ্গে অংশীদারিত্বের মাধ্যমে রূপায়নের  উদ্যোগ নিয়েছে। রাজ্য এবং কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলি তাদের শহরগুলির নানা সমস্যা এবং সুযোগের বিষয়গুলি ভালো জানে। সেক্ষেত্রে তারাই তাদের প্রয়োজন মতন টুলিপ প্রকল্পটি ব্যবহার করতে পারবে।

 

 


CG/PPM



(Release ID: 1629479) Visitor Counter : 239